ব্রেকিং:
রাইসির মৃত্যুতে বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে বুদ্ধের শিক্ষা অনুসরণ করা প্রয়োজন ফেনীর একরাম হত্যাকাণ্ড ১ দশক পরও মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১৭ আসামী পলাতক মেয়রের সামনেই কাউন্সিলরকে জুতাপেটা করলেন আলোচিত সেই চামেলী আজ ঢাকায় আসছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাবেক সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা রাইসির মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক নোয়াখালীতে মাথাসহ হরিণের ৩০ কেজি মাংস উদ্ধার হাসপাতাল নয় যেন গারদখানা সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে রাইসির হেলিকপ্টার, কোনো আরোহী বেঁচে নেই রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষের ছবি-ভিডিও প্রকাশ্যে আজ থেকে ৬৫ দিন সামুদ্রিক জলসীমায় মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ নোয়াখালীতে শতকোটি টাকার জমি উদ্ধারের পর প্রকৌশলী বদলি লক্ষ্মীপুরে বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদি অধ্যক্ষ মামুনুর রশীদ কাঁচা মরিচের কেজি ছাড়াল ২০০ টাকা এক জালে মিলল ৫৫০০ পিস ইলিশ, ১৭ লাখে বিক্রি ছোট ভাইকে ‘কুলাঙ্গার’ বললেন মির্জা কাদের শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন বাংলাদেশের পুনর্জন্ম ফেনীতে কিশোর গ্যাং পিএনএফের প্রধানসহ গ্রেফতার ৫ সরকারি সফরে যুক্তরাষ্ট্র গেলেন সেনাপ্রধান
  • বুধবার ২২ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪৩১

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪৫

মেঘনায় মিলল নিখোঁজ জেলের মরদেহ

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২০ অক্টোবর ২০২৩  

চাঁদপুরের মেঘনা নদীর লক্ষ্মীরচর এলাকায় নৌ পুলিশের অভিযানের সময় নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হওয়া জেলে শাকিল হোসেন বেপারীর (১৯) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (১৮ অক্টোবর) বিকেলে আজকা বাজার নামাক এলাকায় তার মরদেহ ভাসতে দেখে নৌ পুলিশকে জানান স্থানীয়রা। পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল থেকে ওই জেলের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নেয়।

মৃত শাকিল সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের বলাশিয়া এলাকার মো. রহিম বেপারীর ছেলে।

ওই অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন চাঁদপুর নৌ থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান। 

তিনি বলেন, মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) বিকেল ৪টার দিকে আমাদের নিয়মিত অভিযানে লক্ষ্মীরচর এলাকায় মা ইলিশ নিধনকালে মাছ ধরার নৌকাকে হেফাজতে নেয়ার জন্য চেষ্টা করা হয়। জেলেরা আমাদের ওপর ক্ষিপ্ত হন। এ সময় ওই ট্রলারে থাকে ৮ জন জেলের মধ্যে সবাই নদীতে ঝাঁপ দেন। এর মধ্যে আমরা ৭ জনকে আটক করলেও একজন নিখোঁজ ছিলেন। পরে বাকি ৭ জনকে থানায় এনে তাদের বিরুদ্ধে মৎস্য আইনে নিয়মিত মামলা দায়ের করে আদালতে পাঠানো হয়।

ওসি আরো বলেন, মরদেহ থানা থেকে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা প্রক্রিয়াধীন।

নৌ-পুলিশ চাঁদপুর অঞ্চলের এসপি মোহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, ঘটনাটি সত্য। জেলেরা পুলিশ দেখে নদীতে পালানোর সময় ওই ট্রলারে থাকা ৮ জেলেই ঝাঁপ দেন। ৭ জনকে আটক করলে তারা তখন বলে আমাদের সঙ্গের আরেকজন নেই। সেই নিখোঁজ জেলের মরদেহ আজ উদ্ধার হয়। তবে ধারণা করা হচ্ছে, তিনি নদীতে ঝাঁপ দিতে গিয়ে ট্রলারের পাখার সঙ্গে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতপ্রাপ্ত হন এবং ডুবে মারা যান।