ব্রেকিং:
কোটাবিরোধীতায় অশুভ শক্তি নেমেছে : ওবায়দুল কাদের প্রান্তিক মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে সব করব : সামন্ত লাল চোরাই মোবাইলের স্বর্গরাজ্য চট্টগ্রামের রিয়াজউদ্দিন বাজার বৃষ্টির পানিতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ২ ফার্নিচার কর্মচারীর মৃত্যু ২২ কেজির কোরাল বিক্রি হলো ২৬ হাজার টাকায় আন্দোলনরত শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে ওবায়দুল কাদের প্রতিবন্ধী তরুণকে কুকুর লেলিয়ে হত্যা করল ইসরায়েলি সেনারা ফেনী বন্যাদুর্গত ৭০০ পরিবার পেলো ত্রাণ সামগ্রী এক সপ্তাহে ৭৪১১ কোটি টাকা বাজার মূলধন হারালো ডিএসই রাজধানীতে পিতার ১ কোটি ৬৬ লাখ টাকা চুরি করলেন মেয়ে নৈশ প্রহরীকে বেঁধে বাজারে দুর্ধর্ষ ডাকাতি পচা কাঠের পোকা, দাম ৭৫ লাখ! জানেন কেন? দেশে ফিরেছেন ৬৭৯৭৪ হাজি সারাদেশে ইন্টারনেটে ধীরগতি আন্দোলনকারীরা বক্তব্য দিতে চাইলে আপিল বিভাগ বিবেচনায় নেবেন সচেতনতার অভাবে অনেক মানুষ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি গমের উৎপাদন বাড়াতে সিমিট ও মেক্সিকোর সহযোগিতা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি থেকে বিরত থাকুন : আরাফাত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালকের শ্রদ্ধা
  • রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

মাছের সাথে উঠে এলো বিষধর রাসেলস ভাইপার

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২৪  

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় মাছের সাথে উঠে এসেছে বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপ। তবে সাপটিকে তাৎক্ষণিক পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) বিকেলে  উপজেলার জাহাজমারা ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের কাটাখালী ঘাটে এ ঘটনা ঘটে। এর আগে গত রোববার  দিবাগত রাত ২টায় উপজেলার  তমরদ্দি ইউনিয়নের তমরদ্দি ঘাটে একটি রাসেলস ভাইপার সাপের দেখা মিলে। ওই সাপটিকেও পিটিয়ে মেরে ফেলেন স্থানীয়রা।

মাছের সঙ্গে বিষধর এ সাপ উঠে আসার ব্যাপারে স্থানীয় বাসিন্দা নুর উদ্দিন খান ঢাকা পোস্টকে বলেন, আমাদের বাড়ির পাশের দুইজন জেলে মাছ ধরে বাড়ি ফিরে। তাদের ধরা মাছের সঙ্গে একটি সাপও উঠে। তারা তাৎক্ষণিক সাপটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলেন। তবে তারা জানতেন না যে এটা রাসেলস ভাইপার।”

আমতলী বাজারের সাধারণ সম্পাদক এনাম চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে বলেন, আমি দেখার পর সাপটিকে চিনতে পারি। তবে জেলে দুইজন সাপটিকে চিনতে পারেনি। আমি সচেতনতার জন্য সাপটিকে আমতলী বাজারে নিয়ে আসি। কয়েকদিন আগে তমরদ্দি ইউনিয়নে রাসেলস ভাইপারের সন্ধান পাওয়া যায়। এখন জাহাজমারা ইউনিয়নে পাওয়া যাচ্ছে। সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত হয়ে গেছে।

রাসেলস ভাইপার সাপটি খুবই বিষধর। ২০১৩ সালে চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার বরেন্দ্র গ্রামে এক কৃষককে এবং গত বছর রাজশাহীর তানোর এবং নওগাঁর ধামইরহাটে আরও দুইজনকে এই সাপটি কামড় দেয়। চিকিৎসাধীন থাকার পরও তাদের শরীরে পচন ধরে যায়। পচন ধরা অংশ কেটে ফেলার পরও তাদের বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

উপকূলীয় বন বিভাগ নোয়াখালীর বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আবু ইউসুফ ঢাকা পোস্টকে বলেন, রাসেলস ভাইপার সাপটি খুবই বিষধর এবং দুর্লভ সাপ। সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন জেলায় এটি দেখা যাচ্ছে। পাশাপাশি নোয়াখালীতেও দেখা গেল। জাহাজমারা ইউনিয়ন ও  তমরদ্দি মাছ ঘাটে পিটিয়ে মারা সাপটি রাসেলস ভাইপার। এর আগে ডিসেম্বর মাসে প্রথম হাতিয়ায় সাপটি দেখা মেলে। আমরা জীবিত উদ্ধার করে গবেষণার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে পাঠিয়েছিলাম। এই ধরনের বিষধর সাপ দেখতে পেলে বিশেষজ্ঞদের জানানোর পরামর্শ দিচ্ছি। সাধারণ মানুষকে সাপের কাছে না যাওয়ার অনুরোধও করছি।

নোয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার ঢাকা পোস্টকে বলেন, সাপ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই, প্রয়োজন সচেতনতা। প্রত্যেক উপজেলা হাসপাতালসহ নোয়াখালী ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে পর্যাপ্ত এন্টিভেনম মজুত রাখা হয়েছে। সাপ কাটলে দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হবেন। তবে ওঝা বা ঝাড়ফুঁকের অপেক্ষা করে কালক্ষেপণ করা যাবে না। অনতিবিলম্বে ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে এক্ষেত্রে যথাযথ চিকিৎসার মাধ্যমে রোগীকে সম্পূর্ণ সুস্থ করে তোলা সম্ভব।