ব্রেকিং:
মিয়ানমার সীমান্তের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ রাখাইনে বড় সংঘাতের আশঙ্কা, বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ একদিনে পদ্মাসেতুর আয় পৌনে ৫ কোটি টাকা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল হাসপাতাল পরিদর্শনে শেখ হাসিনা ‘গ্লোবাল কোয়ালিশন ফর সোশ্যাল জাস্টিসে’ যোগ দিলো বাংলাদেশ রেলস্টশন-বাস টার্মিনালে ঘরমুখো মানুষের ঢল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেফতার ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু চালু হচ্ছে সেপ্টেম্বরে নোয়াখালীর কবিরহাটে ৩৬ দিন পর লাশ উত্তোলন বসুরহাটের বাজেট ঘোষণা করলেন মেয়র কাদের মির্জা প্রেমিকের সঙ্গে বিয়েতে বাবা-মা রাজি না হওয়ায় আত্মহত্যা নানা সংকটে হুমকিতে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী নোয়াখালীতে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর নামে পাচার হয়েছে ৩৫শ’ কোটি টাকা নেত্রকোণায় কাঁচা ঘাস খেয়ে ২৬ গরুর মৃত্যু প্রত্যেকটা গ্রামকে আমরা নাগরিক সুবিধায় নিয়ে আসব ফেনীর সোনাগাজীতে চাঁদা আদায়কালে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার ৮ ফেনীর সোনাগাজীর চরাঞ্চলে বজ্রপাতে প্রাণ গেলো ১২ গবাদিপশুর ফেনীর সোনাগাজীতে আযান দেওয়ার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট ফেনীর ফুলগাজীতে ফুটপাত মুক্ত করতে নির্দেশনা
  • রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ফরিদগঞ্জে সুপারি পাড়াকে কেন্দ্র ভাই ভাতিজাদের হামলায় আহত ৫

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে জমির বিরোধে সুপারি ও কলার ছরা পারাকে কেন্দ্র করে আপন ভাই ও ভাতিজাদের অতর্কিত হামলায় ৫ জনকে রক্তাক্ত জখম করে গুরতর আহত করার খবর পাওয়ায় গেছে।

এদের মধ্যে সোহেল সওদার (৩০) নামের এক যুবকের বুকে লোহার শাবাল দিয়ে আঘাত করলে তার অবস্থা আশংজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি ৪ জন গুরুতর আহত অবস্থায় বর্তমানে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

১৫ সেপ্টেম্বর শনিবার সকালে ফরিদগঞ্জ উপজেলার ১২ নং চরদুখিয়া ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডস্থ পূর্ব লাড়ুয়া গ্রামের নুরু সওদাগর বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, নুরু মিয়া সওদাগরের পুত্র মুক্তার আহমেদ সওদাগর (৫৫), তার স্ত্রী নারগিস বেগম (৩৮), সৈয়দ আহমেদ সওদাগরের স্ত্রী খাদিজা বেগম (৫০), ছেলে সোহেল সওদাগর (৩০), সিরাজ ভূঁইয়ার ছেলে আল-আমিন (২৫)।
আহত মুক্তার আহমেদ সওদাগর ও তার পরিবারের অন্যান্যরা জানান, তার আপন বড় ভাই মনির সওদাগর বিভিন্ন সময়ে তাদের পিতাকে সহজ সরল পেয়ে বিভিন্ন সময়ে বাড়ির বেশ কিছু সম্পত্তি তার নিজের নামে লিখে নিয়ে যান।

এসব বিষয় নিয়ে কয়েক বছর ধরে তাদের পারিবারিক ভাবে বিরোধ চলে আসছিলো। এমনকি তাদের এই বিরোধ আদালত পর্যন্ত গড়াতে থাকেন। আর এসব বিরোধের মিমাংসার কথা চিন্তা করে তাদের বৃদ্ধ পিতা নুরু মিয়া সওদাগর ২০১৭ সালে তাদের তিন ভাইকে ২০ শতাংশ করে সম্পত্তি লিখে দেন। কিন্তু ভাগ ভাটোয়ারার পরেও মনির সওদাগর তাদের জমিতে ভাগ বসাতে থাকেন। তাদের অভিযোগ প্রায় সময় মনির সওদাগর তাদের ভাগের সম্পত্তিতে থাকা বিভিন্ন ফল, ফলাদি, গাছ গাছালি কেটে নিয়ে যান। এ প্রায়ই তাদের ঝগড়া ঝাটি হতো।

ঘটনার ১ দিন আগে গত বৃহস্পতিবার মনির সওদাগর তার ছোট ভাই মুক্তার আহমেদের সম্পত্তিতে থাকা সুপারি গাছ থেকে সুপারি এবং কলার ছরা কেটে নিয়ে যায়। এসব বিষয়ে জিজ্ঞাসা করতে গেলে ওইদিন মনির সওদাগর তার ছোট ভাই মুক্তারকে ব্যাপক মারধর করেন। তার মারধরে মুক্তার সওদাগর হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিয়েছেন।

তারা আরো জানান, ওই ঘটনার পর শুক্রবার দিন মনির সওদাগর তার ছেলে মেয়েদেরকে খবর দিয়ে বাড়িতে নিয়ে আসেন। এরপর শনিবার সকালে মনির সওদাগর তার ছেলে কামাল সওদাগর, শাহাদাত, রাকিব, রাজু, মেয়ে বিউটি ও স্ত্রীর সালেহা বেগম সহ সকলে একত্রিত হয়ে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে তাদের ওপর হামলা চালায়।

এসময় মনিরের ছেলে কামাল লোহার শাবাল (খন্তি) দিয়ে সৈয়দ আহমেদের ছেলে সোহল সওদাগরের বুকে আঘাত করেন। এতে সোহেল রক্তাক্ত জখম ও গুরুতর আহত হয়ে পড়েন। একই সাথে অন্যান্য আহতরা মাথায়, হাতে, পায়ে, কপালসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতপুপ্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে বাড়ির অন্যান্য লোকজন ও স্বজনরা মিলে তাদেরকে সেখান থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান।

কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদের মধ্যে সোহেল সদাগরের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে তাৎক্ষণিক ঢাকায় প্রেরণ করেন।