ব্রেকিং:
রাইসির মৃত্যুতে বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে বুদ্ধের শিক্ষা অনুসরণ করা প্রয়োজন ফেনীর একরাম হত্যাকাণ্ড ১ দশক পরও মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১৭ আসামী পলাতক মেয়রের সামনেই কাউন্সিলরকে জুতাপেটা করলেন আলোচিত সেই চামেলী আজ ঢাকায় আসছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাবেক সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা রাইসির মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক নোয়াখালীতে মাথাসহ হরিণের ৩০ কেজি মাংস উদ্ধার হাসপাতাল নয় যেন গারদখানা সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে রাইসির হেলিকপ্টার, কোনো আরোহী বেঁচে নেই রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষের ছবি-ভিডিও প্রকাশ্যে আজ থেকে ৬৫ দিন সামুদ্রিক জলসীমায় মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ নোয়াখালীতে শতকোটি টাকার জমি উদ্ধারের পর প্রকৌশলী বদলি লক্ষ্মীপুরে বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদি অধ্যক্ষ মামুনুর রশীদ কাঁচা মরিচের কেজি ছাড়াল ২০০ টাকা এক জালে মিলল ৫৫০০ পিস ইলিশ, ১৭ লাখে বিক্রি ছোট ভাইকে ‘কুলাঙ্গার’ বললেন মির্জা কাদের শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন বাংলাদেশের পুনর্জন্ম ফেনীতে কিশোর গ্যাং পিএনএফের প্রধানসহ গ্রেফতার ৫ সরকারি সফরে যুক্তরাষ্ট্র গেলেন সেনাপ্রধান
  • বুধবার ২২ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪৩১

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪৫

লাকসাম-আখাউড়া রেল ডাবললাইন প্রকল্প উদ্বোধন হচ্ছে আরো ১৬ কিলোমিটার

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০২৩  

ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলরুটে কুমিল্লা থেকে আখাউড়া পর্যন্ত ডাবল লাইন নির্মানের কাজ ৮০ শতাংশ শেষ হয়েছে। নতুন নির্মিত কসবা স্টেশন থেকে  মন্দবাগ স্টেশনে ৮ কিলোমিটার এবং শশীদল থেকে রাজাপুর স্টেশন পর্যন্ত আরো ৮ কিলোমিটার, মোট ১৬ কিলোমিটার রেল ডাবল লাইন আগামী ৩১ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করবেন বলে জানিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। এই পথ উদ্বোধন হলে পুরো প্রকল্পের ৪১ কিলোমিটারের মধ্যে পুরোদমে ডাবল লাইনে ট্রেন চলাচল করবে।
কুমিল্লা রেলওয়ের উর্দ্ধতন উপ সহকারী প্রকৌশলী(পথ) লিয়াকত আলী মজুমদার জানান, লাকসাম-আখাউড়া ডাবল লাইন প্রকল্পের আওতায় ৮০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এর মধ্যে কুমিল্লা থেকে লাকসাম ২৬ কিলোমিটারের মধ্যে ট্রেন চলাচল করছে। আগামী ৩১ জানুয়ারি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা থেকে মন্দবাগ এবং শশীদল থেকে রাজাপুর মোট ১৬ কিলোমিটার রেলপথ ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করবেন। কসবা, মন্দবাগ, রাজাপুর এবং শশীদল নতুন স্টেশনও উদ্বোধন করা হবে।
তিনি আরো জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা এবং কুমিল্লার শশীদলে ডাবল লাইন নির্মানের যে প্রতিবন্ধকতা রয়েছে সেগুলো সারিয়ে ফেলার দ্রুত চেষ্টা চলছে।
এদিকে ভারতের সাথে সীমান্ত জটিলতা নিয়ে কসবা এবং সালদানদী এলাকায় ধীরগতিতে চলছে ডাবললাইন নির্মানের কাজ। প্রকৌশলী লিয়াকত আলী মজুমদার আরো জানান, যে গতিতে কাজ চলছে সব মিলিয়ে ২০২৩ সালের জুনের মধ্যে ডাবললাইনের নির্মান কাজ শেষ হয়ে যাবে। সীমান্ত জটিলতা দ্রুত কাটলে আরো কম সময়ের মধ্যে এই রুটে শতভাগ ডাবললাইনে ট্রেন চলবে।       
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া ও কুমিল্লা লাকসামের মধ্যে ৭২ কিলোমিটার নতুন ডুয়েল গেজ ডাবল রেললাইন নির্মাণ শেষ হলে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত পুরো রেলপথটি ডুয়েল গেজ ডাবল লাইনে রূপান্তরিত হবে। এরই মধ্যে গত বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর আখাউড়া থেকে লাকসাম নতুন রেলপথের লাকসাম থেকে কুমিল্লা পর্যন্ত ২৫ কিলোমিটার অংশ ট্রেন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। এই ২৫ কিলোমিটার পথে ট্রেন চলাচল করছে।
জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় আখাউড়া থেকে কুমিল্লার লাকসাম পর্যন্ত ৭২ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন পায়। এরপর কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালের নভেম্বরে।
২০২০ সালের জুনের মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রকল্পের মেয়াদ এক বছর বাড়িয়ে ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত করা হয়। কিন্তু এ সময়ের মধ্যেও তা সম্ভব না হওয়ায় প্রকল্পের মেয়াদ আরও দুই দফায় এক বছর করে বাড়ানো হয়। মেয়াদ বাড়িয়ে ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত করা হলেও কাজ শেষ হয়নি। বর্তমানে প্রকল্পের মেয়াদ ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।