ব্রেকিং:
মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র থেকে প্রসূতিকে বের করে দিলেন আয়া,অতঃপর . মাদরাসায় বাংলায় সাইনবোর্ড স্থাপনের নির্দেশ সরকার সবার জন্য নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন নিশ্চিত করছে দেশে খাদ্য ঘাটতির সম্ভাবনা নেই: খাদ্যমন্ত্রী নতুন স্ন্যাপড্রাগন আসছে এ সপ্তাহেই ১৮ মাসের কাজ শেষ হয়নি ৬২ মাসেও অ্যান্টিবায়োটিক চেনাতে চিহ্ন ব্যবহারের সিদ্ধান্ত সরকারের ফেসবুক পোস্টে ‘হা হা’ দেওয়ায় ব্যাপক ভাঙচুর, পুলিশ মোতায়েন নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, গলায় পোড়া দাগ গরু-ছাগলের মাংসে যক্ষ্মার জীবাণু শনাক্ত টানা ২৮ দিন করোনায় মৃত্যুশূন্য দেশ, কমলো শনাক্ত বন্যার্তদের দুঃসময়ে সরকার পাশে রয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাক্তন স্বামীর হামলায় আহত চিকিৎসক স্ত্রী ডাইনিং বন্ধ, হোটেলে উচ্চমূল্য: বিপাকে কুবি শিক্ষার্থীরা দূষণে বছরে ৯০ লাখ মানুষের প্রাণহানি: গবেষণা ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে ৩৭৫২ বেসামরিক নাগরিকের মৃত্যু ‘শুধু চোর নয়, চোরাই মোবাইল বিক্রেতারাও গ্রেফতার হবে’ কক্সবাজারে অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণ নয়: প্রধানমন্ত্রী চরাঞ্চলের জনগণের ক্ষুধা-দারিদ্র্য হ্রাসে প্রকল্প নেয়া হয়েছে
  • বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৯

  • || ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

পার্কে প্রেমিককে জুতাপেটা, আটক করে টাকা নিলেন মেম্বার

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০২২  

বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় পার্কে ফায়ারম্যান প্রেমিককে জুতাপেটা করেন নবম শ্রেণির এক ছাত্রী। ঢাকার ধামরাইয়ের মহিষাশী মোহাম্মদীয়া পার্কে এ ঘটনা ঘটে। পরে প্রেমিক যুগলকে আটকের পর ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার মো. আলাউদ্দিন এবং তার সঙ্গী মো. ইমরান হোসেন ও জুয়েল রানার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী প্রেমিক যুগল। 

এরপর ছাড়া পেয়ে প্রেমিক মোটরসাইকেলযোগে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। পরে প্রেমিকা তার প্রেমিক উপজেলার গাঙ্গুটিয়া ইউনিয়নের চারিপাড়া গ্রামের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন করেন। প্রেমিকের পরিবারের লোকজন তাকে বেধড়ক মারধর করে বাড়ির বাইরে রাস্তায় বের করে দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, উপজেলার গাঙ্গুটিয়া ইউনিয়নের ঐ তরুণী সাটুরিয়া উপজেলার মহিষাশীলোহা মাওলানা জাব্বারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। ৫-৬ মাস পূর্বে একই ইউনিয়নের চারিপাড়া গ্রামের মো. জয়নাল আবদীনের ছেলে ফায়ার সার্ভিস কর্মী মো. বাবুল হোসেন বাবলুর সঙ্গে গভীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিভিন্ন স্থানে বেড়াতে গিয়ে তারা গোপন অভিসারে মিলিত হন। এদিকে গোপনে প্রেমিক অন্য মেয়েকে বিয়ে করার জন্য কথা পাকাপোক্ত করে আংটিও পরিয়েছেন।

এরপরও প্রেমিক তার প্রেমিকাকে দুপুর ৩টার দিকে মহিষাশী মোহাম্মাদীয়া পার্কে বেড়াতে নিয়ে যান। এ সময় প্রেমিকা তাকে বিয়ে করার বায়না ধরেন। এতে প্রেমিক বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় প্রেমিকা ক্ষেপে গিয়ে তার পায়ের জুতা খুলে জনসমক্ষেই তাকে জুতাপেটা করেন।

প্রেমিকা বলেন, আমার সঙ্গে বাবুলের ৫-৬ মাস ধরে প্রেম। এখন আমাকে বিয়ে না করে অন্য মেয়েকে বিয়ে করার জন্য আংটি পরিয়েছে। আমাকে বিয়ে করবে না তাহলে আমাকে বিভিন্ন জায়গায় বেড়াতে নিয়ে আমার সর্বনাশ করল কেন। আমি এর শেষ দেখে ছাড়ব। বিয়ে আমাকে করতেই হবে। নাহলে আমি ওকে কখনই ছেড়ে দেব না।

প্রেমিক বাবুল হোসেন বলেন, ঐ ইউপি মেম্বার আলাউদ্দিন ৫০ হাজার টাকা নিয়ে আমাদের ছেড়েছেন। আমার বন্ধু গান্ধুলিয়া গ্রামের শাকিল আহাম্মেদ দুটি বিকাশ নম্বর থেকে (৩০ ও ২০) ৫০ হাজার টাকা দিয়েছি। অস্বীকার করার কোনো সুযোগ নেই। আমার অন্য মেয়ের সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয়েছে আমি এখন এই মেয়েকে বিয়ে করব কীভাবে।

টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করে ইউপি মেম্বার আলাউদ্দিন বলেন, এভাবে জুতাপেটা করতে দেখে এগিয়ে যাই। তারপর তাদের আটক করি। পরে জিজ্ঞাসাবাদ করে ঐ প্রেমিক যুগলকে ছেড়ে দেই।