ব্রেকিং:
মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র থেকে প্রসূতিকে বের করে দিলেন আয়া,অতঃপর . মাদরাসায় বাংলায় সাইনবোর্ড স্থাপনের নির্দেশ সরকার সবার জন্য নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন নিশ্চিত করছে দেশে খাদ্য ঘাটতির সম্ভাবনা নেই: খাদ্যমন্ত্রী নতুন স্ন্যাপড্রাগন আসছে এ সপ্তাহেই ১৮ মাসের কাজ শেষ হয়নি ৬২ মাসেও অ্যান্টিবায়োটিক চেনাতে চিহ্ন ব্যবহারের সিদ্ধান্ত সরকারের ফেসবুক পোস্টে ‘হা হা’ দেওয়ায় ব্যাপক ভাঙচুর, পুলিশ মোতায়েন নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, গলায় পোড়া দাগ গরু-ছাগলের মাংসে যক্ষ্মার জীবাণু শনাক্ত টানা ২৮ দিন করোনায় মৃত্যুশূন্য দেশ, কমলো শনাক্ত বন্যার্তদের দুঃসময়ে সরকার পাশে রয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাক্তন স্বামীর হামলায় আহত চিকিৎসক স্ত্রী ডাইনিং বন্ধ, হোটেলে উচ্চমূল্য: বিপাকে কুবি শিক্ষার্থীরা দূষণে বছরে ৯০ লাখ মানুষের প্রাণহানি: গবেষণা ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে ৩৭৫২ বেসামরিক নাগরিকের মৃত্যু ‘শুধু চোর নয়, চোরাই মোবাইল বিক্রেতারাও গ্রেফতার হবে’ কক্সবাজারে অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণ নয়: প্রধানমন্ত্রী চরাঞ্চলের জনগণের ক্ষুধা-দারিদ্র্য হ্রাসে প্রকল্প নেয়া হয়েছে
  • বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৯

  • || ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

ঢাবি ছাত্র সৌরভের পড়াশোনার দায়িত্ব নিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ডিসি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০২২  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থী সৌরভ দাসের পড়াশোনার খরচ জোগাবেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ডিসি। স্নাতকোত্তর সম্পন্ন পর্যন্ত বছরে কিস্তিতে ৫০ হাজার টাকা করে তাকে দেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিসি মো. শাহগীর আলম নিজ কাযার্লয়ে সৌরভকে ডেকে নিয়ে পড়াশোনার খরচ বাবদ প্রাথমিকভাবে ২৫ হাজার টাকা তুলে দেন। 

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ জানুয়ারি একটি জাতীয় দৈনিকের অনলাইন সংস্করণে সৌরভ দাসকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দৃষ্টিগোচর হলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সৌরভের বিষয়টি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ডিসিকে জানানো হয়। আজ দুপুরে ডিসি মো. শাহগীর আলম সৌরভকে নিজ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে তার পড়াশোনার খরচ চালানোর সমস্ত দায়িত্ব নেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক প্রথম বর্ষ থেকে স্নাতকোত্তর পর্যন্ত সৌরভকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতি ছয় মাস পর পর ২৫ হাজার টাকা করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর জন্য সৌরভকে প্রতি ছয় মাস পর পর সশরীরে বা ইমেইলের মাধ্যমে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের  (সার্বিক) কাছে একটি দরখাস্ত লিখতে হবে। পরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সৌরভের ব্যাংক হিসাবে ২৫ হাজার টাকা পাঠিয়ে দিবেন। ডিসি সৌরভকে একটি ভালো ফলাফল অব্যাহত রাখার শর্ত দিয়েছেন।

সৌরভ দাস ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের কানিউচ্ছ গ্রামের বিষ্ণু দাস ও চম্পা রানী দাসের ছেলে। গত বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগে ভর্তির সুযোগ পান সৌরভ। তার বাবা বিষ্ণু দাস চট্টগ্রামে ফেরি করে স্টিলের হাড়িপাতিলসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র বিক্রি করেন।

পরিবারিক অভাব-অনটনের কারণে সৌরভ জেলার নবীনগর উপজেলার সুহাতা গ্রামের নানী বাড়িতে থেকে পড়াশোনা করতো। সেখানে থেকেই এসএসসি পাস করেন সৌরভ। পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করে। আজ দুপুরে ডিসি মো. শাহগীর আলম সৌরভকে তার কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে যান ও  তার পড়াশোনা ও পারিবারের খোঁজ নেন। তিনি সৌরভকে পড়াশোনার বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেন। সে সময় তিনি জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত পড়াশোনার খরচ হিসেবে সৌরভের হাতে ২৫ হাজার টাকা তুলে দেন।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ রুহুল আমিন, সরাইল ইউএনও আরিফুল হক, সহকারী শিক্ষক স্বপন মিয়া, সাংবাদিক মাসুকুর রহমান, আবুল হাসনাত, মাইনুদ্দিন রুবেল ও মাজহারুল করিম অভি উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে ডিসি মো. শাহগীর আলম বলেন, আমরা সৌরভের পড়াশোনার সব দায় দায়িত্ব গ্রহণ করেছি। স্নাতক থেকে স্নাতকোত্তর পর্যন্ত সৌরভকে পড়াশোনার খরচ হিসেবে প্রতি ছয় মাস পর পর ২৫ হাজার টাকা করে দিবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসন। আশা করি এতে তার খাতা-বই কেনাসহ পড়ার খরচ হয়ে যাবে।