ব্রেকিং:
মিয়ানমার সীমান্তের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ রাখাইনে বড় সংঘাতের আশঙ্কা, বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ একদিনে পদ্মাসেতুর আয় পৌনে ৫ কোটি টাকা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল হাসপাতাল পরিদর্শনে শেখ হাসিনা ‘গ্লোবাল কোয়ালিশন ফর সোশ্যাল জাস্টিসে’ যোগ দিলো বাংলাদেশ রেলস্টশন-বাস টার্মিনালে ঘরমুখো মানুষের ঢল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেফতার ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু চালু হচ্ছে সেপ্টেম্বরে নোয়াখালীর কবিরহাটে ৩৬ দিন পর লাশ উত্তোলন বসুরহাটের বাজেট ঘোষণা করলেন মেয়র কাদের মির্জা প্রেমিকের সঙ্গে বিয়েতে বাবা-মা রাজি না হওয়ায় আত্মহত্যা নানা সংকটে হুমকিতে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী নোয়াখালীতে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর নামে পাচার হয়েছে ৩৫শ’ কোটি টাকা নেত্রকোণায় কাঁচা ঘাস খেয়ে ২৬ গরুর মৃত্যু প্রত্যেকটা গ্রামকে আমরা নাগরিক সুবিধায় নিয়ে আসব ফেনীর সোনাগাজীতে চাঁদা আদায়কালে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার ৮ ফেনীর সোনাগাজীর চরাঞ্চলে বজ্রপাতে প্রাণ গেলো ১২ গবাদিপশুর ফেনীর সোনাগাজীতে আযান দেওয়ার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট ফেনীর ফুলগাজীতে ফুটপাত মুক্ত করতে নির্দেশনা
  • রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

নোয়াখালীতে বাবার মৃত্যুর আধাঘণ্টা পর মেয়ের আত্মহত্যা

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৭ জুন ২০২৪  

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) নোয়াখালী জেলা শহরে বাবা ও মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন নোয়াখালীর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের উকিল পাড়ার নরেশ চন্দ্র দে (৫০) ও তার মেয়ে তিশা দে (১৯)।

বৃহস্পতিবার দুপুরে দুইটার দিকে মরদেহ দুটি ময়নাতদন্তের পর স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার( ৫ জুন)  রাতে নোয়াখালীর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের উকিল পাড়ার একটি বহুতল বাসা থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত নরেশ চন্দ্রের মেয়ে তিশা ফেনী জেলায় এলএলবিতে পড়াশোনা করছিলেন। সেখানে এক মুসলিম ছেলের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। তিশার বাবা মা বিষয়টি জানার পর মঙ্গলবার (৪ জুন) তাকে ফেনী থেকে নোয়াখালীতে তাদের বাসার নিয়ে আসা হয়। এনিয়ে রাতে মেয়েকে বুঝানোর অনেক চেষ্টা করেন বাবা।

এরপর বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নিজ কক্ষে নরেশ চন্দ্রের নিথর দেহ পড়ে থাকে দেখেন পরিবারের সদস্যরা। নরেশ নিয়মিত কিডনি ডায়ালাইসিস করতেন। তার ডায়ালাইসিসের ফিস্টুলার স্থান থেকে রক্ত বের হয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায়। এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর আলাদা একটি কক্ষে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তিশার ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া যায়।

সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোর্তাহীন বিল্লাহ জানান, মেয়েকে সারারাত বুঝানোর চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়ে ভোর রাতের দিকে স্ট্রোক করে নরেশ চন্দ্র দে মারা যান। বাবার মৃত্যুর আধাঘন্টা পর মেয়ে নিজেকে অপরাধী ভেবে আত্মহত্যা করে বলে ধারণা করছে পুলিশ। দুটি মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে অধিকতর তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য,  তাকে ফেনী থেকে নোয়াখালীতে তাদের বাসার নিয়ে আসা হয়। এনিয়ে রাতে মেয়েকে বুঝানোর অনেক চেষ্টা করেন বাবা।এরপর বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নিজ কক্ষে নরেশ চন্দ্রের নিথর দেহ পড়ে থাকে দেখেন পরিবারের সদস্যরা। নরেশ নিয়মিত কিডনি ডায়ালাইসিস করতেন। তার ডায়ালাইসিসের ফিস্টুলার স্থান থেকে রক্ত বের হয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায়। 

এ ঘটনার আধাঘণ্টা পর আলাদা একটি কক্ষে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তিশার ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া যায়।

সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোর্তাহীন বিল্লাহ জানান, মেয়েকে সারারাত বুঝানোর চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়ে ভোর রাতের দিকে স্ট্রোক করে নরেশ চন্দ্র দে মারা যান। বাবার মৃত্যুর আধাঘন্টা পর মেয়ে নিজেকে অপরাধী ভেবে আত্মহত্যা করে

বলে ধারণা করছে পুলিশ। দুটি মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে অধিকতর তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।