ব্রেকিং:
মিয়ানমার সীমান্তের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ রাখাইনে বড় সংঘাতের আশঙ্কা, বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ একদিনে পদ্মাসেতুর আয় পৌনে ৫ কোটি টাকা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল হাসপাতাল পরিদর্শনে শেখ হাসিনা ‘গ্লোবাল কোয়ালিশন ফর সোশ্যাল জাস্টিসে’ যোগ দিলো বাংলাদেশ রেলস্টশন-বাস টার্মিনালে ঘরমুখো মানুষের ঢল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেফতার ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু চালু হচ্ছে সেপ্টেম্বরে নোয়াখালীর কবিরহাটে ৩৬ দিন পর লাশ উত্তোলন বসুরহাটের বাজেট ঘোষণা করলেন মেয়র কাদের মির্জা প্রেমিকের সঙ্গে বিয়েতে বাবা-মা রাজি না হওয়ায় আত্মহত্যা নানা সংকটে হুমকিতে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী নোয়াখালীতে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর নামে পাচার হয়েছে ৩৫শ’ কোটি টাকা নেত্রকোণায় কাঁচা ঘাস খেয়ে ২৬ গরুর মৃত্যু প্রত্যেকটা গ্রামকে আমরা নাগরিক সুবিধায় নিয়ে আসব ফেনীর সোনাগাজীতে চাঁদা আদায়কালে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার ৮ ফেনীর সোনাগাজীর চরাঞ্চলে বজ্রপাতে প্রাণ গেলো ১২ গবাদিপশুর ফেনীর সোনাগাজীতে আযান দেওয়ার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট ফেনীর ফুলগাজীতে ফুটপাত মুক্ত করতে নির্দেশনা
  • রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

কোম্পানীগঞ্জে কিশোর গ্যাং লিডারসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১১ মে ২০২৩  

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভা এলাকায় চাঁদাবাজির অভিযোগে কিশোর গ্যাং লিডার মোহনসহ (২০) তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। এ ঘটনায় মোঃ মাইন উদ্দিন (৩৬) নামের চাঁদাবাজকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী মোঃ নুরনবী বাদী হয়ে এ চাঁদাবাজির মামলাটি দায়ের করেন। গ্রেফতারকৃত মাইন উদ্দিনকে বৃহস্পতিবার সকালে নোয়াখালীর বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মামলার অপর দু’আসামী পলাতক রয়েছে।

চাঁদাবাজি মামলার তিন আসামীরা হলেন, বসুরহাট পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ডের হৈদ বাড়ীর গোলাম মাওলার ছেলে কিশোর গ্যাং লিডার মোহন (২০), একই এলাকার বানু মাঝির বাড়ীর মৃত সাহাব উদ্দিনের ছেলে মোঃ মাইন উদ্দিন (৩৬) ও মিয়া মাঝি (৪৫)।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, বসুরহাট পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড ইদ্রিছিয়া রোডে আমেরিকা প্রবাসী আনোয়ার হোসেন সোহেল একটি ভবন নির্মান কাজ আরম্ভ করে। কিশোর গ্যাং লিডার মোহনসহ আসামীরা এপ্রিল মাসের ১০ তারিখে ওই ভবনটির নির্মান কাজে ৫০হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে। দাবীকৃত চাঁদা না পেয়ে নির্মান কাজ বন্ধ করে দিয়ে নির্মান কাজে তদারককারী মামলার বাদী নুরনবী ও ঠিকাদার মিশনকে হত্যার হুমকি দেয় তারা। এপ্রিল মাসের ১৫ তারিখে নির্মান কাজে তদারককারী নুরনবী অনোন্যপায় হয়ে ওই তিন চাঁদাবাজকে দাবীকৃত ৫০ হাজার টাকা প্রদানের পর ভবন নির্মানের কাজ আরম্ভ করে। এঘটনা স্থানীয় ভাবে জানাজানি হলে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার নির্দেশে এ মামলা দায়ের করা হয়। মামলা দায়েরের পর পুলিশ তিন আসামীর মধ্যে মাইন উদ্দিনকে গ্রেফতার করে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) এসএম মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, চাঁদাবাজির মামলায় তিন আসামীর মধ্যে মাইন উদ্দিনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। আসামীদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, মাদক ক্রয়-বিক্রয়সহ থানায় বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ রয়েছে।