ব্রেকিং:
মিয়ানমার সীমান্তের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ রাখাইনে বড় সংঘাতের আশঙ্কা, বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ একদিনে পদ্মাসেতুর আয় পৌনে ৫ কোটি টাকা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল হাসপাতাল পরিদর্শনে শেখ হাসিনা ‘গ্লোবাল কোয়ালিশন ফর সোশ্যাল জাস্টিসে’ যোগ দিলো বাংলাদেশ রেলস্টশন-বাস টার্মিনালে ঘরমুখো মানুষের ঢল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেফতার ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু চালু হচ্ছে সেপ্টেম্বরে নোয়াখালীর কবিরহাটে ৩৬ দিন পর লাশ উত্তোলন বসুরহাটের বাজেট ঘোষণা করলেন মেয়র কাদের মির্জা প্রেমিকের সঙ্গে বিয়েতে বাবা-মা রাজি না হওয়ায় আত্মহত্যা নানা সংকটে হুমকিতে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী নোয়াখালীতে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর নামে পাচার হয়েছে ৩৫শ’ কোটি টাকা নেত্রকোণায় কাঁচা ঘাস খেয়ে ২৬ গরুর মৃত্যু প্রত্যেকটা গ্রামকে আমরা নাগরিক সুবিধায় নিয়ে আসব ফেনীর সোনাগাজীতে চাঁদা আদায়কালে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার ৮ ফেনীর সোনাগাজীর চরাঞ্চলে বজ্রপাতে প্রাণ গেলো ১২ গবাদিপশুর ফেনীর সোনাগাজীতে আযান দেওয়ার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট ফেনীর ফুলগাজীতে ফুটপাত মুক্ত করতে নির্দেশনা
  • রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের মুখে খাওয়ার কলেরা টিকা দেওয়া শুরু

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১ মার্চ ২০২৩  

ডায়রিয়া ও কলেরার সংক্রমণ প্রতিরোধে নোয়াখালীর ভাসানচরে পুনর্বাসিত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মধ্যে মুখে খাওয়া কলেরা টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। এ কর্মসূচির আওতায় মোট ৩০ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থীকে টিকা দেওয়া হবে।

সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) এই কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার (সিডিসি) তত্ত্বাবধানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সহায়তায় নোয়াখালী সিভিল সার্জন অফিস ও আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআর,বি) যৌথভাবে এটি বাস্তবায়ন করছে।

আইসিডিডিআর’বির তথ্যমতে, ভাসানচরের ২৫টি কেন্দ্রের মাধ্যমে প্রথম ডোজ কলেরা টিকাদান কার্যক্রম ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আগামী ১ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে।

পরে আগামী ১৯ মার্চে দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রদান করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এছাড়া কমপক্ষে ১৪ দিন অন্তর প্রদেয় দুই ডোজের দক্ষিণ কোরিয়ার ইউবায়োলোজিক্স কো. লিমিটেডের তৈরি ইউভিকল প্লাস নামের কলেরার টিকা এক বছর থেকে তদূর্ধ্ব বয়সীদেরকে দেওয়া হচ্ছে।

Drug

উদ্বোধনকালে অধিদফতরের সিডিসি শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. নাজমুল ইসলাম বলেন, বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিকদের সম্ভাব্য সংক্রামক রোগ প্রতিরোধে সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে।‌ সেই ধারাবাহিকতায় তাদের জন্য আমরা কলেরা টিকার ব্যবস্থা করেছি। আমাদের লক্ষ্য প্রতিরোধ সম্ভব রোগ থেকে তাদেরকে নিরাপদ রাখা।

এসময় তিনি টিকাদান কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য আইসিডিডিআর,বি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও নোয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

আইসিডিডিআর,বির ইনফেকশাস ডিজিজেস ডিভিশনের ভারপ্রাপ্ত সিনিয়র ডিরেক্টর ড. ফিরদৌসী কাদরী বলেন, ২০১৭ সালে যখন মিয়ানমারের নিপীড়ন এড়াতে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নেয় তখন থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৫০ লাখ ডোজ কলেরার টিকা দেওয়া হয়েছে। আর এ কারণেই সম্ভাব্য কলেরার বড় রকমের প্রাদুর্ভাব সংঘটিত হয়নি। আমাদের এই সফলতা পৃথিবীর অন্যান্য স্থানেও ছড়িয়ে পড়বে বলে আমি আশাবাদী।

তিনি আরও বলেন, এই টিকা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত। এক বছরের কম বয়সী শিশু, যারা বিগত ১৪ দিনের মধ্যে অন্য কোনো টিকা গ্রহণ করেছে এবং গর্ভবতী মহিলা ব্যতীত সকলেই এই টিকা গ্রহণ করতে পারবেন। এই টিকা নেওয়ার ১৪ দিনের মধ্যে অন্য কোনো টিকা নেওয়া যাবে না।

Drug

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে নোয়াখালী জেলার সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার, সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা, আইসিডিডিআর,বি এবং অন্যান্য উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, নোয়াখালী জেলার অন্তর্ভুক্ত ভাসানচরে ২০২০ সালের ডিসেম্বর থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে পুনর্বাসন করা শুরু হয়। এ পর্যন্ত প্রায় ভাসানচরে ৩২ হাজার রোহিঙ্গাকে পুনর্বাসন করা হয়েছে। তুলনামূলক উন্নততর পানি, পয়ঃনিষ্কাশন ও আবাসন ব্যবস্থা থাকার পরেও ২০২১ সালের জুনে ভাসানচরে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব ঘটে এবং প্রায় ১ হাজার ৫০০ রোহিঙ্গা আক্রান্ত হয় এবং ৪ জন মৃত্যুবরণ করেন। এ রকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে ভাসানচরে কলেরা টিকাদান কার্যক্রম শুরুর উদ্যোগ নেয় সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা, আইসিডিডিআর,বি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও অন্যান্য উন্নয়ন সহযোগীরা।