ব্রেকিং:
কুমিল্লা সমাবেশে রুমিনের মোবাইল ছিনতাই করল যুবদল কর্মী হাইমচরে নৌকার পক্ষে প্রচারণায় মাঠে ডা:টিপু ও মেয়র জুয়েল চাঁদপুর শহরের গ্রীণ ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আজ বিশেষ মুনাজাতের মধ্যে শেষ হচ্ছে চাঁদপুর জেলা ইজতেমা মতলব উত্তর ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রামপুরে বিষ প্রয়োগে অসহার কৃষকের মাছ নিধন ‘গুসি শান্তি পুরস্কার’ পেলেন শিক্ষামন্ত্রী মতলবের ধনাগোদা নদীতে কচুরিপানা জটে নৌ চলাচল বন্ধ ৩৫ বছরে শৈশবের স্বাদ, হতে চান উচ্চশিক্ষিত লক্ষ্মীপুরে ছাত্রদলের ১৫১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দক্ষিণ আফ্রিকায় নোয়াখালীর ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা অটোরিকশা-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, প্রাণ গেল ২ তরুণের মুরাদনগরের সিদল যাচ্ছে বিদেশে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীসহ ২ জনের মৃত্যু যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত বঙ্গবন্ধু টানেলে গাড়ি চলবে জানুয়ারিতে বিদেশিদের মন্তব্যে বিরক্ত সরকার আমনের বাম্পার ফলন রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আইওআরএ মন্ত্রীদের সাক্ষাৎ
  • রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের সহায়তায় জাপান-ইউএনএফপিএর চুক্তি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৩ নভেম্বর ২০২২  

নোয়াখালীর ভাসানচরে স্থানান্তরিত রোহিঙ্গা এবং স্থানীয়দের সহায়তার জন্য জাপান সরকার ও জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিলের (ইউএনএফপিএ) মধ্যে ৩৭ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি এবং ইউএনএফপিএ-এর প্রতিনিধি ক্রিস্টিন ব্লুকুস এ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

জাপান দূতাবাস জানায়, চুক্তির আওতায় এই ৩৭ মিলিয়ন ডলার যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য পরিষেবা বৃদ্ধি, লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা থেকে নারীদের মর্যাদা এবং নিরাপত্তা রক্ষাসহ কিশোর ও যুবকদের ক্ষমতায়নের জন্য ব্যবহার করা হবে।

জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেন, কক্সবাজার ও ভাসানচরে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জাপান এবং ইউএনএফপিএর মাধ্যমে অতিরিক্ত সহায়তা দিতে পেরে আমি আনন্দিত। যদিও দীর্ঘায়িত রোহিঙ্গা সংকটের কারণে অনেক নারী ও মেয়ে প্রজনন স্বাস্থ্য সমস্যা এবং লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতায় (জিবিভি) ভুগছে। 

ইতো নাওকি বলেন, আমি আশা করি এ সহায়তা নারী ও মেয়েদের সুরক্ষা, মর্যাদা এবং জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে অবদান রাখবে। যেহেতু রোহিঙ্গা সংকট ষষ্ঠ বছরে পদার্পণ করেছে তাই মিয়ানমারে দ্রুত প্রত্যাবাসনের জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে শরণার্থীদের উন্নত ও মর্যাদাপূর্ণ জীবনের জন্য অর্থায়ন অব্যাহত রাখা অপরিহার্য।

রোহিঙ্গা সংকটের টেকসই সমাধান একটি মুক্ত ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিকের দৃষ্টিভঙ্গি বাস্তবায়নের জন্য সহায়ক হবে বলে মনে করেন তিনি।