ব্রেকিং:
মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র থেকে প্রসূতিকে বের করে দিলেন আয়া,অতঃপর . মাদরাসায় বাংলায় সাইনবোর্ড স্থাপনের নির্দেশ সরকার সবার জন্য নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন নিশ্চিত করছে দেশে খাদ্য ঘাটতির সম্ভাবনা নেই: খাদ্যমন্ত্রী নতুন স্ন্যাপড্রাগন আসছে এ সপ্তাহেই ১৮ মাসের কাজ শেষ হয়নি ৬২ মাসেও অ্যান্টিবায়োটিক চেনাতে চিহ্ন ব্যবহারের সিদ্ধান্ত সরকারের ফেসবুক পোস্টে ‘হা হা’ দেওয়ায় ব্যাপক ভাঙচুর, পুলিশ মোতায়েন নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, গলায় পোড়া দাগ গরু-ছাগলের মাংসে যক্ষ্মার জীবাণু শনাক্ত টানা ২৮ দিন করোনায় মৃত্যুশূন্য দেশ, কমলো শনাক্ত বন্যার্তদের দুঃসময়ে সরকার পাশে রয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাক্তন স্বামীর হামলায় আহত চিকিৎসক স্ত্রী ডাইনিং বন্ধ, হোটেলে উচ্চমূল্য: বিপাকে কুবি শিক্ষার্থীরা দূষণে বছরে ৯০ লাখ মানুষের প্রাণহানি: গবেষণা ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে ৩৭৫২ বেসামরিক নাগরিকের মৃত্যু ‘শুধু চোর নয়, চোরাই মোবাইল বিক্রেতারাও গ্রেফতার হবে’ কক্সবাজারে অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণ নয়: প্রধানমন্ত্রী চরাঞ্চলের জনগণের ক্ষুধা-দারিদ্র্য হ্রাসে প্রকল্প নেয়া হয়েছে
  • বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৯

  • || ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

মেয়ের জানাজার আগেই চোখ হারালেন সেই বাবা

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৪ এপ্রিল ২০২২  

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত চার বছর বয়সী তাসফিয়ার বাবা মাওলানা আবু জাহেরের ডান চোখ নষ্ট হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজেই এ তথ্য নিশ্চিত করেন আবু জাহের।

এর আগে, বুধবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মলকার বাপের দোকান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শিশুটির বাবা আবু জাহের বলেন, দোকান থেকে একটি জুস ও চিপস নিয়ে বের হচ্ছিলাম। এ সময় মহিন, রিমন, আকবর, নাঈমের নেতৃত্বে ১৫-২০ জনের একদল সন্ত্রাসী বাজারে আসে। পরে তারা আমাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে পাশে থাকা গ্যাসের সিলিন্ডারে লেগে তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। দ্রুত তাসফিয়াকে নিয়ে দোকান থেকে বের হওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা আমাদের লক্ষ্য করে ইট নিক্ষেপ করে। এতে তাসফিয়ার মাথায় আঘাত লাগে।

পরে দোকানি মামুনের সহযোগিতায় আমরা বাড়ির দিকে যাওয়ার পথে পেছন থেকে আরো দুই রাউন্ড শটগানের গুলি ছোড়ে সন্ত্রাসীরা। এতে তাসফিয়া ও আমি গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটে পড়ি। গুলিতে মাথাসহ পুরো শরীর ঝাঁঝরা হয়ে যায় তাসফিয়ার।

তিনি আরো বলেন, সন্ত্রাসীদের গুলিতে আমি আমার ডান চোখ হারিয়েছি। সেহরির সময় আমার মেয়ের লাশ নিয়ে ঢাকা থেকে এসেছি। আজ মাগরিবের পর জানাজা হবে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

তাসফিয়ার মা জেসমিন আক্তার বলেন, আমার সোনামণি তাসপিয়া লাশ হয়ে ফিরেছে। আমার বুকটা খালি হয়ে গেছে। মেয়ে আমারে ঘুম পাড়িয়ে যে গেল, আর আসবে না।

এদিকে, তাসফিয়া নিহতের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি।

এর আগে, দুপুরে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় ১৭ জনের নামে একটি হত্যা মামলা করেন নিহত তাসফিয়ার চাচা হুমায়ুন কবির। তবে মামলার গোপনীয়তার স্বার্থে আসামিদের নাম প্রকাশ করেনি পুলিশ।

ওসি মীর জাহিদুল হক রনি বলেন, ১৭ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ১০-১২ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেছেন নিহত শিশুর চাচা। আমরা তিন আসামিকে গ্রেফতার করেছি। গুরুত্ব দিয়ে মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।