ব্রেকিং:
মিয়ানমার সীমান্তের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ রাখাইনে বড় সংঘাতের আশঙ্কা, বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ একদিনে পদ্মাসেতুর আয় পৌনে ৫ কোটি টাকা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল হাসপাতাল পরিদর্শনে শেখ হাসিনা ‘গ্লোবাল কোয়ালিশন ফর সোশ্যাল জাস্টিসে’ যোগ দিলো বাংলাদেশ রেলস্টশন-বাস টার্মিনালে ঘরমুখো মানুষের ঢল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেফতার ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু চালু হচ্ছে সেপ্টেম্বরে নোয়াখালীর কবিরহাটে ৩৬ দিন পর লাশ উত্তোলন বসুরহাটের বাজেট ঘোষণা করলেন মেয়র কাদের মির্জা প্রেমিকের সঙ্গে বিয়েতে বাবা-মা রাজি না হওয়ায় আত্মহত্যা নানা সংকটে হুমকিতে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী নোয়াখালীতে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর নামে পাচার হয়েছে ৩৫শ’ কোটি টাকা নেত্রকোণায় কাঁচা ঘাস খেয়ে ২৬ গরুর মৃত্যু প্রত্যেকটা গ্রামকে আমরা নাগরিক সুবিধায় নিয়ে আসব ফেনীর সোনাগাজীতে চাঁদা আদায়কালে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার ৮ ফেনীর সোনাগাজীর চরাঞ্চলে বজ্রপাতে প্রাণ গেলো ১২ গবাদিপশুর ফেনীর সোনাগাজীতে আযান দেওয়ার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট ফেনীর ফুলগাজীতে ফুটপাত মুক্ত করতে নির্দেশনা
  • রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

নোয়াখালীতে ব্যালট বাক্স ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা, পুলিশের গুলিতে আহত

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৩০ মে ২০২৪  

নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষে ব্যালট বাক্স ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শওকত রেজা চৌধুরী আরমানের লোকজন। এ সময় প্রিসাইডিং কর্মকর্তার নির্দেশে পুলিশ গুলি ও লাঠিপেটা শুরু করলে তারা পালিয়ে যায়। তবে পুলিশের ছোড়া গুলিতে ৫ জন আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। আহতরা বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থী এ কে এম শামছুদ্দিন জেহানের সমর্থক।

বুধবার (২৯ মে) দিবাগত রাতে উপজেলার ৯ নম্বর কালাদরাপ ইউনিয়নের উত্তর শুল্লুকিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

আহতরা হলেন- উপজেলার কালাদরাপ ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর শুল্লুকিয়া গ্রামের মোহাম্মদ উল্যার ছেলে আব্দুল মান্নান, শাহ আলমের ছেলে মামুনুর রশিদ মান্না, হানিফের ছেলে রাকিব, আবুল কালামের ছেলে কবির ও একই গ্রামের রফিক উল্যার ছেলে জামাল।

সুধারাম মডেল থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি বলেন, ভোটগ্রহণ শেষে গণনা চলছিল। হঠাৎ চেয়ারম্যান প্রার্থী আরমানের লোকজন উত্তেজিত হয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করে ভাঙচুর ও ব্যালট বাক্স ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। সে সময় প্রিসাইডিং কর্মকর্তার নির্দেশে পুলিশ গুলি ও লাঠিপেটা করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে দুইজন সামান্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় প্রিসাইডিং অফিসার বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৬০-৭০ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন।