ব্রেকিং:
কেন মানুষ প্রথম প্রেম ভুলতে পারে না বৃষ্টিপাত নিয়ে আজ যে দুঃসংবাদ জানালো আবহাওয়া অফিস আমরা এক দেশপ্রেমিক জননেতাকে হারালাম : প্রধানমন্ত্রী স্কুলে কোরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক করলো পাকিস্তান ধারণার চেয়েও ভয়ঙ্কর করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: সিডিসি আশপাশের শ্রমিকদের দিয়েই চলবে কারখানা হেলেনার বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় আরেক মামলা সিনহা হত্যার এক বছর: ‘প্রদীপের’ নিচেই ছিল অন্ধকার বিশ্বব্যাপী করোনায় মুত্যু কমলেও বেড়েছে আক্রান্ত চালু হতে না হতেই রোগীদের দখলে দুই হাসপাতালের ১৪ আইসিইউ বিশ্বের সাইবার সিকিউরিটির জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি যুক্তরাষ্ট্র: চী বিষ দিয়ে যুবককে হত্যা করলেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন নিয়মনীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে বাফুফের তামাশা, শুরুর এক ঘণ্টা আগে স্থগিত জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকা ব্যক্তিরা টিকা পাবেন বিশেষ প্রক্রিয়ায় দর্শকশূন্য ব্যতিক্রমধর্মী ‘ইত্যাদি’ আজ বাংলাদেশে বিনিয়োগে সর্বোচ্চ মুনাফা কৃষিতে ২৮ হাজার কোটি টাকা ঋণ দেবে ব্যাংকগুলো মাঠ পর্যায় থেকেই ভূমির ভুল রেকর্ড সংশোধনের নির্দেশ সামাজিক মাধ্যমে অপরাধ দমনে সাইবার পেট্রোলিং টিম
  • শনিবার   ৩১ জুলাই ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১৬ ১৪২৮

  • || ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

পুলিশ পরিচয়ে ভাইয়ের সামনে থেকে বোনকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০২১  

ফেনী প্রতিনিধি : 

ফেনীর দাগনভূঞায় পুলিশ পরিচয় দিয়ে বড় ভাইয়ের সামনে থেকে ছোট বোনকে তুলে নিয়ে যৌন নিপীড়ন ঘটনায় ৩ বখাটেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতারকৃত ৩ বখাটে হলো মো. ইমদাদুল হক মিরাজ, মিরাজ মাহমুদ, জনি চন্দ্র দে। ২৩ জুন স্থানীয় সস্তা বাজার মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। 

সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী কিশোরী (১৫) স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ও তার ভাই স্থানীয় একটি স্কুলের ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী। কিশোরীর মা ২৫ জুন বিকেলে বাদী হয়ে ৫ জন ও অজ্ঞাত ২ কে আসামী করে দাগনভূঞা থানা মামলা দায়ের করেন। 

অভিযুক্তরা হলো- মো. ইমামুল হক মিরাজ (২০), শান্ত (২৮), মিরাজ মাহমুদ নিরব (২০), তুহিন (২১), জনি চন্দ্র দে (২১)। মো. ইমামুল হক মিরাজ উপজেলার আজিজ ফাজিলপুর গ্রামের নেওয়াজ মেম্বারের বাড়ীর মো. জসীম উদ্দিন, শান্ত ইয়ারপুর গ্রামের সাত বাড়ীর মো. হানিফ, মিরাজ মাহমুদ নিরব উত্তর করিমপুর গ্রামের হাজী জমাদ্দার বাড়ীর রহিম উল্যাহ, তুহিন আজিজ ফাজিল পুর গ্রামের মো. একরাম, জনি চন্দ্র দে আজিজ ফাজিল পুর গ্রামের সুকমল চন্দ্র দে’র ছেলে।

ভুক্তভোগী কিশোরী মা মারজাহান বেগম জানান, ২৩ জুন সন্ধ্যায় আমার বড় ছেলে মাহফুজল হক মিরাজ সহ মেয়ে স্থানীয় সস্তা বাজার মার্কেট থেকে বের হওয়ার বখাটেরা পুলিশ পরিচয় দিয়ে তুলে নিয়ে নির্জন স্থানে নিয়ে যৌন নিপীড়ন চালায়। লোকজন আসতে দেখলে ভুক্তভোগী কিশোরীকে রেখে চলে যায় বখাটেরা।

দাগনভূঞা থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) প্রার্থ প্রতিম দেব জানান, মামলা রুজু হওয়ার পর পরই ৩ জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে, বাকীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যহত রয়েছে।