ব্রেকিং:
কুমিল্লা সমাবেশে রুমিনের মোবাইল ছিনতাই করল যুবদল কর্মী হাইমচরে নৌকার পক্ষে প্রচারণায় মাঠে ডা:টিপু ও মেয়র জুয়েল চাঁদপুর শহরের গ্রীণ ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আজ বিশেষ মুনাজাতের মধ্যে শেষ হচ্ছে চাঁদপুর জেলা ইজতেমা মতলব উত্তর ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রামপুরে বিষ প্রয়োগে অসহার কৃষকের মাছ নিধন ‘গুসি শান্তি পুরস্কার’ পেলেন শিক্ষামন্ত্রী মতলবের ধনাগোদা নদীতে কচুরিপানা জটে নৌ চলাচল বন্ধ ৩৫ বছরে শৈশবের স্বাদ, হতে চান উচ্চশিক্ষিত লক্ষ্মীপুরে ছাত্রদলের ১৫১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দক্ষিণ আফ্রিকায় নোয়াখালীর ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা অটোরিকশা-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, প্রাণ গেল ২ তরুণের মুরাদনগরের সিদল যাচ্ছে বিদেশে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীসহ ২ জনের মৃত্যু যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত বঙ্গবন্ধু টানেলে গাড়ি চলবে জানুয়ারিতে বিদেশিদের মন্তব্যে বিরক্ত সরকার আমনের বাম্পার ফলন রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আইওআরএ মন্ত্রীদের সাক্ষাৎ
  • রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ক্ষমা চাইলেন এমপি একরাম, মাফ করে দিলেন ওবায়দুল কাদের

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৩ নভেম্বর ২০২২  

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়েছে। বুধবার (২৩ নভেম্বর) বিকেলে নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে বিষয়টি তৃণমূল নেতাকর্মীদের কাছে পরিষ্কার করেন দুই নেতা। সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অংশ নেন।

নিজের বক্তব্যে একরামুল করিম চৌধুরী বলেন, গতকাল আমার বড় ভাই ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে কথা হয়েছে। আমি ওনার কাছে ক্ষমা চেয়েছি। তিনি আমাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। আজ ভরা সমাবেশে সবার সামনে ক্ষমা চাচ্ছি। আজ থেকে আমি ওনার পেছনে রাজনীতি করব। 

এরপর ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ২০০৮ সালে কোম্পানীগঞ্জে ভোটে পিছিয়ে থাকলেও কবিরহাটের মানুষ আমাকে জয়ী করেছে। আমি কবিরহাটবাসীর কাছে কৃতজ্ঞ। অনেকে একরাম চৌধুরীকে নিয়ে আমাকে ভুল বুঝিয়েছে। গতকাল তিনি আমার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। আমি ক্ষমা করে দিয়েছি।

বিএনপি মসহাসচিব মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের দায় মুক্তি দিতে সংবিধানে কুখ্যাত আইন প্রণয়ন করেছিলেন, ভুলিনি মির্জা ফখরুল। জাতীয় নেতাদের হত্যাকারীদের পুরস্কৃত করেছেন বিদেশি দূতাবাসে চাকরি দিয়ে। আমরা ভুলিনি। বঙ্গবন্ধুর কন্যাকে হত্যা করার জন্য গ্রেনেড হামলা করেছেন। বিএনপি আমাদের মারতে চায়, হত্যা করতে চায়। কথা কথায় বলে ‘৭৫-এর হাতিয়ার গর্জে উঠুক আরেকবার’। 

dhakapost

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা একজন পরিশ্রমী মানুষ। যিনি দেশ ও জাতির উন্নয়নে সারাক্ষণ চিন্তা করেন। তিনি করোনাকালীন সময়ে সংকট দূর করতে সমর্থ হয়েছেন। ইনশাআল্লাহ তিনি বর্তমান সংকটও উত্তরণ করতে পারবেন। শেখ হাসিনাকে বহুবার হত্যার জন্য চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু রাখে আল্লাহ মারে কে। খেলা হবে খেলা হবে; দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে খেলা হবে। খেলা হবে রাজপথে; ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে খেলা হবে।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, আগে বলা হতো নোয়াখালীর মাটি বিএনপির ঘাঁটি। আমি বলবো বিএনপি নয় নোয়াখালীর মাটি আওয়ামী লীগের ঘাঁটি। ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ অনেক শক্তিশালী। কেউ আওয়ামী লীগকে ঠেকাতে পারবে না। আগামী নির্বাচনে বৃহত্তর নোয়াখালীতে সব আসনে আওয়ামী লীগ জয় লাভ করবে ইনশাআল্লাহ।

তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট-এর মাস্টারমাইন্ড জিয়াউর রহমান আর ২১ আগস্ট-এর মাস্টারমাইন্ড তারেক রহমান। সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র চলছে। এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। এজন্য ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগের বিকল্প নেই। 

কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন রুমির সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক রায়হানের সঞ্চালনায় সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের হুইপ ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম, আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক বেগম ফরিদুন্নাহার লাইলী, আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক বাবু সুজিত রায় নন্দী, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং বর্তমান কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সহিদ উল্যাহ খান সোহেল প্রমুখ। 

সম্মেলনে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও কবিরহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুন নাহার শিউলি, নোয়াখালী পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টুসহ কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।