ব্রেকিং:
কুমিল্লা সমাবেশে রুমিনের মোবাইল ছিনতাই করল যুবদল কর্মী হাইমচরে নৌকার পক্ষে প্রচারণায় মাঠে ডা:টিপু ও মেয়র জুয়েল চাঁদপুর শহরের গ্রীণ ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আজ বিশেষ মুনাজাতের মধ্যে শেষ হচ্ছে চাঁদপুর জেলা ইজতেমা মতলব উত্তর ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রামপুরে বিষ প্রয়োগে অসহার কৃষকের মাছ নিধন ‘গুসি শান্তি পুরস্কার’ পেলেন শিক্ষামন্ত্রী মতলবের ধনাগোদা নদীতে কচুরিপানা জটে নৌ চলাচল বন্ধ ৩৫ বছরে শৈশবের স্বাদ, হতে চান উচ্চশিক্ষিত লক্ষ্মীপুরে ছাত্রদলের ১৫১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দক্ষিণ আফ্রিকায় নোয়াখালীর ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা অটোরিকশা-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, প্রাণ গেল ২ তরুণের মুরাদনগরের সিদল যাচ্ছে বিদেশে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীসহ ২ জনের মৃত্যু যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত বঙ্গবন্ধু টানেলে গাড়ি চলবে জানুয়ারিতে বিদেশিদের মন্তব্যে বিরক্ত সরকার আমনের বাম্পার ফলন রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আইওআরএ মন্ত্রীদের সাক্ষাৎ
  • রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কুমিল্লায় ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি যাত্রাবাড়ী থেকে গ্রেফতার

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০২২  

 কুমিল্লার বরুড়ায় সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি মো. আলমগীর হোসেনকে (২৬) রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এসময় তার কাছ থেকে একটি মোবাইল ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়।
বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) র‌্যাব-১০ এর পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
এতে বলা হয়, কুমিল্লার বরুড়া থানার রতনপুর এলাকায় বসবাসরত প্রধান আসামির বন্ধু ও ধর্ষণ মামলার ৩ নম্বর আসামি একই জেলার লাকসাম এলাকায় বসবাসরত ভিকটিমের সঙ্গে আত্মীয়তার সূত্র ধরে মিথ্যা প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এরপর প্রধান আসামির সহায়তায় তার বন্ধু পালিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ভিকটিমকে গত ১২ জুলাই বাসা থেকে বরুড়া থানার ছোট কালিকাপুর এলাকায় নিয়ে যায়। সেখানে গ্রেফতার আলমগীর ও তার বন্ধু তাদের অন্য দুই সহযোগীকে মোবাইলের মাধ্যমে ডেকে নিয়ে আসেন।
গ্রেফতার আলমগীর ও ২ নম্বর আসামি ভিকটিমকে কাজী অফিসে যাওয়ার কথা বলে তাদের পূর্বপরিকল্পিত সুবিধাজনক স্থান বরুড়া থানার দুর্গাপুর কার্জন খালপাড় এলাকায় নিয়ে যায়। সেখানে নেওয়ার পর আলমগীরের পরামর্শে ৩ ও ৪ নম্বর আসামি সাক্ষী আনার জন্য চলে যায়। এরপর টর্চলাইট দিয়ে ভিকটিমকে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করেন আলমগীর। একপর্যায়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রথমে আলমগীর ও পরে ২ নম্বর আসামি ধর্ষণ করেন। পরে ঘটনাটি কাউকে জানালে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ভিকটিমকে দুর্গাপুর পাকা রাস্তার ওপর ফেলে পালিয়ে যায়।
র‌্যাব জানায়, ভিকটিম ঘটনাটি তার পরিবারকে জানান এবং তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে বরুড়া থানায় আলমগীরসহ চারজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন। মামলার বিষয়টি জানতে পেরে আলমগীরসহ অন্য আসামিরা আত্মগোপনে চলে যান। বৃহস্পতিবার রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর কাজলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে আলমগীরকে গ্রেফতার করা হয়। এরই মধ্যে তাকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানায় র‌্যাব।