ব্রেকিং:
অসাধু আইপিটিভি: সাংবাদিকতার নামে চাঁদাবাজি! রাস্তা থেকে মাদ্রাসার ছাত্রী অপহরণ, ৯দিন পর উদ্ধার! আড়াই হাজার ইয়াবাসহ পুলিশ সদস্য আটক একবার সুযোগ দিন ১০ বছরের উন্নয়ন ৫ বছরে করবোঃ চেয়ারম্যান প্রার্থী কক্সবাজারের রিসোর্টে চান্দিনার এক নারীর মরদেহ ‘লিঙ্গ ভিত্তিক নির্যাতন প্রতিরোধ’ নিয়ে কর্মশালা কুমিল্লায় একই লাইনে দুই ট্রেন নিয়োগ প্রক্রিয়া কালিমাযুক্ত করতে দেয়া হবে না শেকলবন্দী কলেজছাত্র আগুনে দাহ কু.বি বাস স্টাফের সাথে এ্যাম্বুলেন্স চালকদের সংঘর্ষ নতুন করে ৮৯ লাখ ডোজ টিকার বরাদ্দ পেল বাংলাদেশ নারী নেতৃত্বের নেটওয়ার্ক গঠনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর শাহজালালে করোনার পরীক্ষামূলক পরীক্ষা শুরু ভারতে ছুটছে মিয়ানমারের হাজার হাজার মানুষ মানবকল্যাণের প্রকল্পে সরকার নিজস্ব অর্থায়ন করবে: এলজিআরডিমন্ত্রী মৎস্যজীবীদের স্বার্থেই ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞা: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী চিতা বিড়ালের ‘বিরল প্রসব’ ফেনীতে লাইসেন্স ছাড়াই চলছে ১৯ হাজার মোটরসাইকেল অপপ্রচার-অপরাজনীতি সত্ত্বেও ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সফল হয়েছি অপহৃত দশম শ্রেণির ছাত্রী ৯ দিন পর উদ্ধার, গ্রেফতার ১
  • বৃহস্পতিবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৮ ১৪২৮

  • || ১৪ সফর ১৪৪৩

আফগানিস্তানকে ১০০ কোটি ডলারের বেশি সহায়তার প্রতিশ্রুতি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১  

তালেবান ক্ষমতায় আসার ফলে বড় ধরনের মানবিক বিপর্যয়ের মুখোমুখি আফগানিস্তান। এমতাবস্থায় সেটি এড়াতে ৬০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা চেয়েছিল জাতিসংঘ। তবে দাতারা ১০০ কোটি ডলারেরও (১ বিলিয়ন) বেশি অর্থ সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। 

সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানের জনগোষ্ঠীকে সহায়তার জন্য সোমবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় এক সভার আয়োজন করে জাতিসংঘ। সেখানে দাতা দেশগুলোর কাছে ৬০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা চাওয়া হয়।

সভায় জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, কয়েক দশকের যুদ্ধ, ভোগান্তি এবং নিরাপত্তাহীনতার পর আফগানরা সম্ভবত তাদের সবচেয়ে বিপজ্জনক সময়ের মুখোমুখি। আফগানিস্তানের জনগণের জন্য একটি লাইফলাইন প্রয়োজন।

বর্তমানে আফগানিস্তানের আর্থিক ব্যবস্থা খুবই সীমিত জানিয়ে তিনি বলেন, সেখানে অবস্থা এমন যে অর্থনীতির মৌলিক বিষয় নিয়ে দেশটিতে কাজ করা যাবে না।

তালেবানরা ক্ষমতা দখল করার আগে থেকেই আফগানিস্তানের প্রায় অর্ধেক জনসংখ্যা বা ১ কোটি ৮০ লাখ মানুষ আন্তর্জাতিক সহায়তার ওপর নির্ভরশীল ছিল। এখন সেটি আরো বাড়তে পারে বলে সতর্ক করেছেন জাতিসংঘসহ বিভিন্ন সাহায্য সংস্থার কর্মকর্তারা।

পূর্ববতি সরকারের শাসনামলে কয়েক'শ কোটি ডলার বিদেশি সহায়তা পেয়ে আসছিল যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি। কিন্তু তালেবান ক্ষমতায় আসায় সবকিছু হঠাৎ করেই বন্ধ হয়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে জাতিসংঘের বিভিন্ন কর্মসূচির ওপর চাপ বেড়েছে।

গত শুক্রবার জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, সংস্থাটি বর্তমানে আর্থিক সংকটে রয়েছে এবং এ কারণে আফগানিস্তানে কর্মীদের বেতন পর্যন্ত দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।