ব্রেকিং:
ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য নিকলীর বিকল্প বিজয়নগর বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা শান্তিপূর্ণভাবে দুর্গোৎসব সম্পন্ন প্রশংসায় ভাসছেন নোয়াখালী এসপি দল থেকে বিদায় নেওয়ার জন্য আমি প্রস্তুত : শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন বিকেলে কুমিল্লায় চেয়ারম্যানের গাড়িতে গুলি আফ্রিকায় শান্তিরক্ষা মিশনে প্রাণ গেল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জসিমের নভেম্বরের শেষের দিকে জাপান সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী টিকার বুস্টার ডোজ পেলেন সাড়ে ৫ কোটির বেশি মানুষ সন্ধ্যার মধ্যে ন্যাশনাল গ্রিড চালু করার চেষ্টা করছি সরকারি সফরে সুইজারল্যান্ড যাচ্ছেন সেনাবাহিনী প্রধান ঢাকায় আসছেন ব্রুনাইয়ের সুলতান মোবাইলের লক খুলতে গিয়েই ধরা পড়ল ডাকাত প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরেছেন সুবর্ণচরে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বসতভিটা দখলের অভিযোগ দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৩ মাস বাড়বে না ভোজ্যতেলের দাম টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ টার্মিনাল ছাড়া মহাসড়কে টোল আদায় করা যাবে না যৌনপল্লী চালান বিজেপি নেতা!
  • শনিবার   ০৮ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২৩ ১৪২৯

  • || ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর: সোহাগ আলীর ১০ বছরের কারাদণ্ড

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২  

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের অফিস থেকে প্রধানমন্ত্রীর ছবি নিয়ে শহিদ মিনারে ভাঙচুরের মামলার রায়ে সোহাগ আলী নামে একজনকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালত ও বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক সাবিনা ইয়াসমিন এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় সাজাপ্রাপ্ত আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।

সাজাপ্রাপ্ত সোহাগ আলী(২৫) সোনারগাঁও উপজেলার সাহাপুর গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে।

আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট কেএম ফজলুর রহমান জানান, ২০১৫ সালের ২৭ ডিসেম্বর দুপুর সাড়ে ১২টায় সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের অফিসে প্রদর্শিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সোহাগ আলী কৌশলে বের করে নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসের শহিদ মিনার প্রাঙ্গনে ভাংচুর করছে। এসময় স্থানীয় লোকজন দেখে সোহাগ আলীকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দেয়। এ ঘটনায় উপজেলার সাট-মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর আশরাফুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আদালত সাক্ষ্য গ্রহণ করে রায় ঘোষণ করেছেন।