ব্রেকিং:
কোটাবিরোধীতায় অশুভ শক্তি নেমেছে : ওবায়দুল কাদের প্রান্তিক মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে সব করব : সামন্ত লাল চোরাই মোবাইলের স্বর্গরাজ্য চট্টগ্রামের রিয়াজউদ্দিন বাজার বৃষ্টির পানিতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ২ ফার্নিচার কর্মচারীর মৃত্যু ২২ কেজির কোরাল বিক্রি হলো ২৬ হাজার টাকায় আন্দোলনরত শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে ওবায়দুল কাদের প্রতিবন্ধী তরুণকে কুকুর লেলিয়ে হত্যা করল ইসরায়েলি সেনারা ফেনী বন্যাদুর্গত ৭০০ পরিবার পেলো ত্রাণ সামগ্রী এক সপ্তাহে ৭৪১১ কোটি টাকা বাজার মূলধন হারালো ডিএসই রাজধানীতে পিতার ১ কোটি ৬৬ লাখ টাকা চুরি করলেন মেয়ে নৈশ প্রহরীকে বেঁধে বাজারে দুর্ধর্ষ ডাকাতি পচা কাঠের পোকা, দাম ৭৫ লাখ! জানেন কেন? দেশে ফিরেছেন ৬৭৯৭৪ হাজি সারাদেশে ইন্টারনেটে ধীরগতি আন্দোলনকারীরা বক্তব্য দিতে চাইলে আপিল বিভাগ বিবেচনায় নেবেন সচেতনতার অভাবে অনেক মানুষ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি গমের উৎপাদন বাড়াতে সিমিট ও মেক্সিকোর সহযোগিতা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি থেকে বিরত থাকুন : আরাফাত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালকের শ্রদ্ধা
  • রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

ভারতের চোরাই মোবাইল আসে চট্টগ্রামে, নেপথ্যে যারা

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৯ জুলাই ২০২৪  

ঘটনাটি বেশ কয়েকদিন আগের। পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় নিজের ব্যবহৃত আইফোন ১৪ প্লাস মোবাইল হারান দীপান্বিতা সরকার নামে এক নারী। এ ঘটনায় সেখানকার থানায় জিডি করেন তিনি। পরবর্তীতে প্রযুক্তির কল্যাণে দীপান্বিতা জানতে পারেন- তার হারানো মোবাইলটি সচল রয়েছে চট্টগ্রামে।

এরপর তিনি যোগাযোগ করেন  চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে। যেই কথা, সেই কাজ; দীপান্বিতার দেওয়া তথ্যে মোবাইলটি উদ্ধারে অভিযানে নামে সিএমপির গোয়েন্দা পুলিশ। শনাক্ত করে চোরাই মোবাইল বেচাকেনা চক্রের হোতাসহ কয়েকজনকে। কিন্তু এরমধ্যেই বিষয়টি টের পেয়ে যান হোতা। ফলে দীপান্বিতার মোবাইলটি কৌশলে পুলিশের কাছে পৌঁছে দিয়ে সটকে পড়েন তিনি। পরে মোবাইলটি ফিরিয়ে দেওয়া হয় কলকাতায় দীপান্বিতার কাছে।

সোমবার এসব তথ্য জানান সিএমপির এডিসি (মিডিয়া) কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ। এর আগে, শনিবার নগরের কোতোয়ালি থানার রিয়াজউদ্দিন বাজারের তামাকুমন্ডি লেন থেকে মোবাইলটি উদ্ধার করা হয়। পরে রোববার আইনি প্রক্রিয়া মেনে সেটি কলকাতায় পৌঁছে দেওয়া হয়।

এডিসি কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ বলেন, ঐ নারীর দেওয়া তথ্যে মোবাইলটি উদ্ধারে কাজ শুরু করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। মোবাইলটিতে কোনো সিম প্রবেশ না করালেও নানা কৌশলে কাজ করে চার ব্যবসায়ীকে শনাক্ত করা হয়। যারা ভারত থেকে চোরাইপথে মোবাইল এনে রিয়াজউদ্দিন বাজারের তামাকুমন্ডি লেনে বিভিন্ন খুচরা দোকানদারের কাছে পৌঁছে দেন এবং নিজেরাও খুচরায় বিক্রি করেন। চক্রটির হোতাকে টার্গেট করে অভিযানের পরিকল্পনা করছিল পুলিশ, এরমধ্যে বিষয়টি বুঝতে পেরে এক ব্যবসায়ীর মাধ্যমে মোবাইলটি পুলিশের কাছে পৌঁছে দিয়ে পালিয়ে যান তিনি।

এডিসি বলেন, চক্রটি ভারতের সব চোরাই মোবাইল চট্টগ্রামে আনে এবং বাংলাদেশের চোরাই দামি মোবাইল ভারতে ও ভুটানে পাঠিয়ে থাকে। চক্রের সদস্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এদিকে, মোবাইল ফিরে পেয়ে  চট্টগ্রামের পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান ভারতীয় নাগরিক দীপান্বিতা সরকার।

তিনি বলেন, আমার আইফোন ১৪ প্লাস ফোনটি ছিনতাই হয় কলকাতার মহেশতলা থানার জিঞ্জিরা বাজার থেকে। এরপর আমি জিডি করি এবং ট্র্যাক করে দেখি ফোনটি বাংলাদেশের চট্টগ্রামে চলে গেছে। পরে আমি  চট্টগ্রামের পুলিশের কয়েকটি স্টেশনে যোগাযোগ করি। এরমধ্যে  চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ফেসবুক পেজে মেসেজ দিয়ে আমি রেসপন্স পাই। যেটি আমার কাছে একদমই অনাকাঙ্খিত ছিল। পরে তাদের ঘটনা খুলে বলি। 

 

তিনি বলেন, ‘আমার ফোনটি উদ্ধারে এসআই রবিউল ইসলামকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। ফাইনালি  চট্টগ্রাম থেকে রবিউল এবং তার দলের সহায়তায় ফোনটি উদ্ধার হয়েছে। আমি চট্টগ্রাম পুলিশের সহায়তায় ফোন হাতে পেয়েছি। আমি বলে বোঝাতে পারবো না, আমি কতখানি কৃতজ্ঞ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতি। আমি হৃদয়ের অন্তস্থল থেকে রবিউল দাদাকে কৃতজ্ঞতা জানাই জিনিসটিকে গুরুত্ব দেওয়ার জন্য।’

 চট্টগ্রামের নাগরিকদের পুলিশের ওপর ভরসা রাখার আহ্বান জানান দীপান্বিতা। বলেন, ‘আমি সবার কাছে বলতে চাই- চট্টগ্রাম পুলিশের ওপর আপনারা বিশ্বাস রাখুন। তাদের কাজকর্মের ধরণ আউটস্ট্যান্ডিং। আমি বিনা খরচেই ফোনটি হাতে পেয়েছি। আমি অবশ্যই বলবো এসব ক্ষেত্রে লেগে থাকতে।’