ব্রেকিং:
আন্দোলনকারীরা বক্তব্য দিতে চাইলে আপিল বিভাগ বিবেচনায় নেবেন সচেতনতার অভাবে অনেক মানুষ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি গমের উৎপাদন বাড়াতে সিমিট ও মেক্সিকোর সহযোগিতা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি থেকে বিরত থাকুন : আরাফাত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালকের শ্রদ্ধা মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত গাজায় শান্তি রক্ষা করবে আরব যৌথ বাহিনী: বাইডেন কোটা আন্দোলন প্রশ্নে আইনমন্ত্রী কি বললেন? ‘পুলিশের গুলিতে কোনো শিক্ষার্থী মারা যায় নি" ভারত থেকে আমদানি হলো ১১টি বুলেটপ্রুফ সামরিক যান সৌদি আরবে হামলার হুমকি, স্পর্শকাতর স্থানের ভিডিও প্রকাশ পরকীয়া করতে গিয়ে ধরা, সেই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বহিষ্কার বাংলাদেশ-চীনের মধ্যে ২১ চুক্তি ও সাত ঘোষণাপত্র সই লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে প্রযুক্তি বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা ঝিনুকে তৈরি মুক্তার গহনা প্রধানমন্ত্রীর হাতে লক্ষ্মীপুরে হাত-পা বেঁধে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার পর ডাকাতি নোয়াখালীতে প্রকৌশলীসহ সেই চার শিক্ষক কারাগারে নোয়াখালীতে পরীক্ষা হলে হট্টগোল-খোশগল্প চট্টগ্রামে এডিসি কামরুল ও তার স্ত্রীর সম্পদ ক্রোকের আদেশ
  • শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

প্রধানমন্ত্রীর কাছে ফেনীর এমপির ৩ প্রস্তাব

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৫ জুন ২০২৪  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তিনটি প্রস্তাব দিয়েছেন ফেনী-১ আসনের সংসদ সদস্য আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনের আলোচনায় তিনি বলেন, সংসদে আজ আওয়ামী লীগের যে চেহারা দেখছি, সেটা আওয়ামী লীগের মূল চেহারা নয়।

আওয়ামী লীগের মূল চেহারার লোকগুলো আওয়ামী লীগ থেকে ক্রমান্বয়ে হারিয়ে যাচ্ছে। তাদের সম্মান দেওয়ার সময় এসেছে।

আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম বলেন, ১৯৭৫ সালের পর থেকে চারটি পর্যায় দেখেছি। ১৯৭৫-৮১, ১৯৮১-৯৬, ২০০১-২০০৬ এবং ২০০৭-০৮। এ চারটি পর্যায়ে শেখ হাসিনা রাস্তায় আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছেন, পিকেটিং করেছেন, অবরোধ ভেঙেছেন। তিনি শুধু লন্ডনে বসে খুনি তারেক রহমানের মতো নির্দেশ দেননি। কর্মসূচি ঘোষণা করেননি।  

তিনি আরও বলেন, রাজপথে আন্দোলনে থাকায় ২১ বারের মতো শেখ হাসিনার জীবনের ওপর হামলা এসেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চলার পথে দীর্ঘ ৪০ বছরে আন্দোলন-সংগ্রাম করতে গিয়ে যারা হারিয়ে গেছেন, তাদের যথাযথ সম্মান প্রদর্শনের সময় এসেছে।  

এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনটি প্রস্তাব তুলে ধরে বলেন, ১৯৭৫-৮১, ১৯৮১-৯৬, ২০০১-২০০৬ এবং ২০০৭-০৮ সময়ে আন্দোলন-সংগ্রামের ওপর গবেষণার জন্য একটি কমিশন গঠন করা প্রয়োজন। এ চার পর্যায়ে আন্দোলন-সংগ্রামে যারা শহীদ হয়েছেন তাদের অফিশিয়ালি শহীদের মর্যাদা দেওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। মাসে অন্তত দুই দিন সারা দেশের দুর্দিনের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের জন্য প্রধানমন্ত্রী তার বাসভবনে সাক্ষাৎকারের ব্যবস্থা করলে খুব ভালো হয়। এ মানুষগুলোর আর কোনো আশা-আকাঙ্ক্ষা নেই। তারা শেষবারের মতো প্রধানমন্ত্রীকে সামনে থেকে দেখতে চান। তার মুখ থেকে কথা শুনতে চান।

এসময় ফেনীর এই সংসদ সদস্য বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকার ওপর প্রায় ৫০ বছর ধরে স্বৈরাচারের জগদ্দল পাথর চেপে বসে ছিল। এ এলাকা থেকে খালেদা জিয়া চারবার সংসদ সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। দুবার প্রধানমন্ত্রী হয়েও এ এলাকার উন্নয়নে দৃষ্টিপাত করেননি। আমাদের কাছে মনে হয়েছে তিনি আমাদের এলাকা বুকে ধারণ করেননি বা আমাদের এলাকার প্রতি কোনো প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে গিয়ে ওই এলাকাকে বছরের পর বছর উন্নয়নবঞ্চিত করেছেন।  

বর্তমানে বেশ কয়েকটি সড়ক প্রশস্তকরণের কাজ শুরু হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী ও যোগাযোগমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম।  

নাসিম চৌধুরীর দাবি গত ১০০ বছরের স্মৃতিবিজড়িত ফেনী-বিলোনিয়া রেলপথটি পুনরায় চালুর অনুরোধ জানান তিনি।  
নির্বাচনি এলাকায় তিনটি স্বাস্থ্য কেন্দ্রের দুরবস্থা তুলে ধরে বলেন, স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোয় ডাক্তারদের বারবার পোস্টিং দেওয়া হচ্ছে, আবার অ্যাটাচমেন্টের নামে তাদের ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এ পদগুলো না হচ্ছে শূন্য, না হচ্ছে পূর্ণ। এ এক আজব ব্যাপার!

বাজেট নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, বাজেটে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। জনবান্ধব বাজেটে সামাজিক সুরক্ষার জন্য ১০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে। তবে শুধু অর্থ বরাদ্দ করলেই সেই বাজেট থেকে জনগণ সুফল পেতে পারে না। আজ (গতকাল) বাংলাদেশ প্রতিদিনে স্বাস্থ্য খাতের ওপর একটি রিপোর্ট বেরিয়েছে।  

তাতে দেখা গেছে, খুলনা মেডিকেল কলেজ এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ১০ কোটি টাকার দুটি এমআরআই মেশিন সরবরাহের পর থেকেই নষ্ট অবস্থায় গোডাউনে পড়ে আছে। এমন প্রচুর ঘটনা আছে। এখন গুগলে ক্লিক করলেই প্রতিটি পণ্যের দাম জানতে পারি। কিন্তু আমরা দেখি সেই দামের থেকে তিন-চার গুণ বেশি দিয়ে পণ্য কেনা হচ্ছে। তাই অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই-সরকারের ক্রয়নীতি অর্থাৎ পিপিআর সংশোধনের সময় এসে গেছে। এটি যথাযথভাবে সংশোধন করে সরকারি অর্থের অপচয়ের পথ বন্ধ করা জরুরি।  

শিক্ষামন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা পেতে অবসরের পরে দীর্ঘদিন পথে পথে ঘুরতে হয়। এটা সমাধানে বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ নেওয়া দরকার। একই সঙ্গে এনটিআরসির মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগের কারণে সারা দেশে গ্রামের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো শিক্ষকশূন্যতায় ভুগছে। আজ ৬০ হাজার শিক্ষকের পদ শূন্য আছে। এনটিআরসির মাধ্যমে নিয়োগের বিধান বাতিল করে যুগোপযোগী ও বিকেন্দ্রীকরণের মাধ্যমে গ্রাম পর্যায়ে ফিরিয়ে দেওয়াই যৌক্তিক।