ব্রেকিং:
আন্দোলনকারীরা বক্তব্য দিতে চাইলে আপিল বিভাগ বিবেচনায় নেবেন সচেতনতার অভাবে অনেক মানুষ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি গমের উৎপাদন বাড়াতে সিমিট ও মেক্সিকোর সহযোগিতা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি থেকে বিরত থাকুন : আরাফাত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালকের শ্রদ্ধা মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত গাজায় শান্তি রক্ষা করবে আরব যৌথ বাহিনী: বাইডেন কোটা আন্দোলন প্রশ্নে আইনমন্ত্রী কি বললেন? ‘পুলিশের গুলিতে কোনো শিক্ষার্থী মারা যায় নি" ভারত থেকে আমদানি হলো ১১টি বুলেটপ্রুফ সামরিক যান সৌদি আরবে হামলার হুমকি, স্পর্শকাতর স্থানের ভিডিও প্রকাশ পরকীয়া করতে গিয়ে ধরা, সেই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বহিষ্কার বাংলাদেশ-চীনের মধ্যে ২১ চুক্তি ও সাত ঘোষণাপত্র সই লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে প্রযুক্তি বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা ঝিনুকে তৈরি মুক্তার গহনা প্রধানমন্ত্রীর হাতে লক্ষ্মীপুরে হাত-পা বেঁধে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার পর ডাকাতি নোয়াখালীতে প্রকৌশলীসহ সেই চার শিক্ষক কারাগারে নোয়াখালীতে পরীক্ষা হলে হট্টগোল-খোশগল্প চট্টগ্রামে এডিসি কামরুল ও তার স্ত্রীর সম্পদ ক্রোকের আদেশ
  • শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

আদালতে কাঁদলেন ‘আমাকে নিয়ে চলেন, লাশ দেখাবো’ বলা সেই রনি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৫ জুন ২০২৪  

ফেনীর সোনাগাজীতে বটি দিয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর থানায় গিয়ে পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করা সেই রনি হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার ফেনীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশেকুর রহমানের আদালতে অভিযুক্ত রনি এ জবানবন্দি দেন। এ সময় তিনি হত্যাকাণ্ডের জন্য অনুতপ্ত হয়ে ম্যাজিস্ট্রেটের খাস কামরায় কান্নাকাটি করেন।

আদালতে রনি জানান, স্ত্রীর মানসিক অত্যচার ও শাশুড়ির হুমকি-ধমকিতে অতিষ্ঠ হয়ে তিনি স্ত্রী সিনথিয়া ইসলাম খুসবুকে খুন করেছেন। জবানবন্দি দেওয়ার সময় স্ত্রী খুশবুকে খুব ভালোবাসতেন বলে উল্লেখ করেন রনি।

জানা গেছে, ২ বছর আগে সিনথিয়া ইসলাম খুসবুকে বিয়ে করেন আক্কাস আলী রনি (২৬)। বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কলহ চলছিল। মঙ্গলবার (১১ জুন) রাতে ফেনী পৌরসভার চর গণেশ এলাকার ভাড়া বাসায় বাজার আনা নিয়ে তাদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এর জেরে বুধবার (১২ জুন) ভোরে খুসবুকে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন আক্কাস।

পরে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে থানায় গিয়ে পুলিশকে জানান, স্ত্রীকে গলা কেটে খুন করেছেন। পুলিশ কর্মকর্তারা খুব একটা পাত্তা দেননি। কিন্তু যুবক তার কথায় অটল। শেষে জোর দিয়ে বললেন, ‘আমাকে সঙ্গে নিয়ে চলেন, লাশ দেখাব।’ এরপর নড়েচড়ে বসেন ডিউটি অফিসার।

পরে রনির দেওয়া তথ্যমতে, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সিনথিয়ার লাশ উদ্ধার করে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দুপুরে সিনথিয়ার মা লিপি আক্তার আলী আক্কাস রনিসহ অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সুদ্বিপ রায় পলাশ বলেন, ‌মামলা দায়েরের পর তদন্তকারী কর্মকর্তা অভিযুক্তকে ফেনীর আদালতে হাজির করেন। পরে আদালতে অভিযুক্ত রনি হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। একই দিন দুপুরে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নিহতের ময়নাতদন্ত শেষে তার মা-বাবার কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।