ব্রেকিং:
আন্দোলনকারীরা বক্তব্য দিতে চাইলে আপিল বিভাগ বিবেচনায় নেবেন সচেতনতার অভাবে অনেক মানুষ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি গমের উৎপাদন বাড়াতে সিমিট ও মেক্সিকোর সহযোগিতা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি থেকে বিরত থাকুন : আরাফাত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালকের শ্রদ্ধা মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত গাজায় শান্তি রক্ষা করবে আরব যৌথ বাহিনী: বাইডেন কোটা আন্দোলন প্রশ্নে আইনমন্ত্রী কি বললেন? ‘পুলিশের গুলিতে কোনো শিক্ষার্থী মারা যায় নি" ভারত থেকে আমদানি হলো ১১টি বুলেটপ্রুফ সামরিক যান সৌদি আরবে হামলার হুমকি, স্পর্শকাতর স্থানের ভিডিও প্রকাশ পরকীয়া করতে গিয়ে ধরা, সেই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বহিষ্কার বাংলাদেশ-চীনের মধ্যে ২১ চুক্তি ও সাত ঘোষণাপত্র সই লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে প্রযুক্তি বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা ঝিনুকে তৈরি মুক্তার গহনা প্রধানমন্ত্রীর হাতে লক্ষ্মীপুরে হাত-পা বেঁধে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার পর ডাকাতি নোয়াখালীতে প্রকৌশলীসহ সেই চার শিক্ষক কারাগারে নোয়াখালীতে পরীক্ষা হলে হট্টগোল-খোশগল্প চট্টগ্রামে এডিসি কামরুল ও তার স্ত্রীর সম্পদ ক্রোকের আদেশ
  • শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

লক্ষ্মীপুরে মন্দিরের জায়গা দখলের অভিযোগ

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৯ জুন ২০২৪  

লক্ষ্মীপুর পৌর শ্মশান ঘাটের মন্দিরের জায়গা দখলের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের মাঝে তীব্র অসন্তোষ বিরাজ করছে।

তবে এ বিষয়ে অভিযুক্ত মানিক সাহা ওরফে ট্রাঙ্ক মানিককে দোষারোপ করছেন স্থানীয়রা। সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলরা বলছেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্থানীয়রা জানান, লক্ষ্মীপুর পৌর শ্মশান ঘাটের মন্দিরের জায়গা দখল করে একটি হাউজিং কোম্পানি পানি নিষ্কাশনের পাইপ লাইন স্থাপন করা হয়েছে। এ বিষয়ে মানিক সাহা জড়িত রয়েছে বলে জানান স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ সাথে কথা বলে জানা যায, মন্দিরের জায়গা দখল নয়,  পানির লাইনের কাজের সুবিধার্থে পাইপ লাইন বসানো হয়েছে। কারো দ্বিমত থাকলে তা সরিয়ে ফেলা হবে বলেও জানান তারা।

তবে শ্মশান ঘাটের লোকজন বলেন, শ্মশান ঘাটের সম্পত্তির উপর দিয়ে কারো ব্যক্তিগত সুবিধা আদায় করা উচিত নয়।

এ বিষয়ে কথা বলতে অভিযুক্ত হাউজিং কোম্পানি ও মানিক সাহার সাথে যোগাযোগ করে তাদেরকে পাওয়া যায়নি।