ব্রেকিং:
আন্দোলনকারীরা বক্তব্য দিতে চাইলে আপিল বিভাগ বিবেচনায় নেবেন সচেতনতার অভাবে অনেক মানুষ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি গমের উৎপাদন বাড়াতে সিমিট ও মেক্সিকোর সহযোগিতা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি থেকে বিরত থাকুন : আরাফাত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালকের শ্রদ্ধা মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত গাজায় শান্তি রক্ষা করবে আরব যৌথ বাহিনী: বাইডেন কোটা আন্দোলন প্রশ্নে আইনমন্ত্রী কি বললেন? ‘পুলিশের গুলিতে কোনো শিক্ষার্থী মারা যায় নি" ভারত থেকে আমদানি হলো ১১টি বুলেটপ্রুফ সামরিক যান সৌদি আরবে হামলার হুমকি, স্পর্শকাতর স্থানের ভিডিও প্রকাশ পরকীয়া করতে গিয়ে ধরা, সেই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বহিষ্কার বাংলাদেশ-চীনের মধ্যে ২১ চুক্তি ও সাত ঘোষণাপত্র সই লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে প্রযুক্তি বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা ঝিনুকে তৈরি মুক্তার গহনা প্রধানমন্ত্রীর হাতে লক্ষ্মীপুরে হাত-পা বেঁধে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার পর ডাকাতি নোয়াখালীতে প্রকৌশলীসহ সেই চার শিক্ষক কারাগারে নোয়াখালীতে পরীক্ষা হলে হট্টগোল-খোশগল্প চট্টগ্রামে এডিসি কামরুল ও তার স্ত্রীর সম্পদ ক্রোকের আদেশ
  • শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

লক্ষ্মীপুরে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন শুরু, খাবে ৩ লাখ শিশু

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১ জুন ২০২৪  

লক্ষ্মীপুরে জাতীয় ভিটামিন 'এ' প্লাস ক্যাম্পেইন উদ্বোধন করা হয়। এই জেলায় মোট ২ লাখ ৯৯ হাজার ৯৯৩ জন শিশু এই কর্মসূচির আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রার নির্ধারণ করা হয়েছে।

শনিবার (১ জুন) সকালে শহরের রেহান উদ্দিন সড়কের পাশে জনতার ঘরে এই ক্যাম্পেইন উদ্বোধন করেন পৌর সভার মেয়রের পক্ষে তার সহধর্মিণী শায়লা শারমিন জুমা।

এ সময় পৌরসভার স্যানেটারি ইসপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক মুহাম্মদ আবদুল্লা হিল হাকিম সুমন, নন্দন মুক্ত রোভার স্কাউট সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদসহ যুব রেড ক্রিসেন্ট সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

শায়লা শারমিন জুমা ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন সফল করতে সবাইকে আহ্বান জানিয়ে বলেন, পৌর এলাকার ১৫টি ওয়ার্ডে ৪৫টি কেন্দ্রে ৬ মাস থেকে ৬ মাস থেকে ৫ বছর বয়সী সব শিশুকে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস খাওয়ানো হবে।

লক্ষ্মীপুর পৌরসভার স্যানেটারি ইসপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক মুহাম্মদ আবদুল্লা হিল হাকিম সুমন বলেন, পৌর এলাকায় ২টি ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্রসহ ৪৫টি কেন্দ্রে ৬-১১ মাস বয়সী ২ হাজার ৩১৪ এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী ১৫ হাজার ১২ জন জাতীয় ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. নাহিদ রায়হান জানান, এই জেলায় মোট ২ লাখ ৯৯ হাজার ৯৯৩ জন শিশু এই কর্মসূচির আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রার নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে (৬-১১ মাস) বয়সী ৩৫ হাজার ২০৮ জনকে নীল রঙের এবং ১২-৫৯ বয়সী ২ লাখ ৬৪ হাজার ৭৮৫ বয়সী শিশু লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ৫টি উপজেলার ৫৮টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় ওই দিন এই কার্যক্রম চলবে। ১ হাজার ৪৮০টি কেন্দ্রে ২২২ জন স্বাস্থ্য সহকারী, ১৯৪ জন সুপারভাইজার, ২ হাজার ৯৬০ জন সেচ্ছাসেবক এই কর্মসূচিতে থাকবে।

শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মোরশেদ আলম হিরু বলেন, ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল শিশুদের নানান অসুখ থেকে মুক্ত রাখে। রাতকানা ও বিটটস স্পর্ট, দীর্ঘ মেয়াদি ডায়রিয়া, হাম ও মারাত্মক অপুষ্টির হাত থেকে রক্ষা করে। ভিটামিন ‘এ’ দেহের স্বাভাবিক বৃদ্ধিতে সহায়তা করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমায়।