ব্রেকিং:
পঁচাত্তরটি বীজ সংরক্ষণাগার নির্মাণ করবে সরকার বাংলাদেশসহ ৩১ দেশকে রুশ মুদ্রায় লেনদেনের অনুমতি জিয়ার গুম-খুন ও খালেদার অগ্নি সন্ত্রাসের বিচার দাবি দেশের মানুষ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ অক্টোবর থেকে এনআইডি সেবা আরও ৩ দেশে মাধ্যমিক শিক্ষা খাতে বিশ্বব্যাংকের ৩০ কোটি ডলার ঋণ ১৬টি আন্তঃনগর ট্রেনে যুক্ত হচ্ছে লাগেজ ভ্যান জ্বালানি তেল আমদানি ও বিপণন উন্মুক্ত হচ্ছে নারায়ণগঞ্জবাসী পাচ্ছে নতুন বিশ্ববিদ্যালয় অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট হবে: প্রধানমন্ত্রী তিন বিশ্ববিদ্যালয়কে ১১০০ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এডিবি খুনি জিয়ার মরণোত্তর বিচার চায় ‘মায়ের কান্না’ মানবাধিকার রক্ষার নামে যেন রাজনৈতিক চাপ সৃষ্টি না হয় রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনই বাংলাদেশের অগ্রাধিকার চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন রাজারগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল শাহমাহমুদপুরের তিন ওয়ার্ডে যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন লায়ন্স ক্লাব অফ চাঁদপুর রুপালীর ত্রাণ বিতরণ চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের শোক বিএনপির আন্দোলনের পালে হাওয়া লাগেনি : শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জ্ঞাপন
  • সোমবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ||

  • আশ্বিন ৯ ১৪৩০

  • || ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

হাজীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কমছে না দালালদের দৌরাত্ম্য

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকদের সেবার মান বৃদ্ধি পাওয়ায় গত এক বছর যাবৎ রোগীদের উপস্থিতি বেড়েই চলছে। রোগী বাড়ার পাশাপাশি হাজীগঞ্জের প্রাইভেট হাসপাতাল গুলোর নিয়োগকৃত দালালদেরও সংখ্যা বাড়ছে। এতে চিকিৎসা সেবা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়। যেন কোন ভাবেই কমছেনা দালালদের দৌরাত্ম্য।

কয়েকদিন পূর্বে হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি(চাঁদপুর -৫) আসনের সাংসদ ও হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মেজর অবঃ রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের সভাপতিত্বে আয়োজিত মাসিক সভায়ও বিষয়টি তুলে ধরেন হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. গোলাম মাওলা নাঈম। তিনি ওই সময় বিষয়টি সমাধানে রাজনৈতিক ও সুশীলসমাজের নেতৃবৃন্দের সহযোগীতা কামনা করেন। তথাপী অদ্যাবধি বিষয়টির কোনো সমাধান না হওয়ায় রোগীরা হয়রানির শিকার হচ্ছে বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন চিকিৎসক।

অনুসন্ধানে হাসপাতালের কয়েকজন চতুর্থশ্রেণীর কর্মচারীদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, হাজীগঞ্জ বাজারস্থ লাইফ এইড হাসপাতাল থেকে আলেয়া, হৃদয় ও সাইফুল, আরিয়ানা হাসপাতাল থেকে রেহানা, দুলাল ও সবুজ, মা ও শিশু জেনারেল হাসপাতাল থেকে ফাতেমা আক্তার রেখা, নিশাত হসপিটাল থেকে রতন, শাহজাহান মেমোরিয়াল হাসপাতাল থেকে আমির হোসেনকে দালাল(মার্কেটিং) হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। উল্লেখ্য, পরবর্তী অনুসন্ধানে আরও কিছু দালালের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যেতে পারে বলে তথ্য রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন দালাল জানায়, আমরা পেটের দায়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের চাপে এই কাজ করতে বাধ্য হচ্ছি।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা. মোঃ জামাল উদ্দীন জানান, আমরা দালাল প্রতিরোধে চেষ্টা করছি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, চিকিৎসার সময় আমার চেম্বারে কোনো দালাল মেয়ে থাকে না।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ গোলাম মাওলা নাঈম চাঁদপুর টাইমসকে জানান, আমরা দালালদের বিষয়ে জিরো টলারেন্স। এই বিষয়ে উপজেলা ও থানা প্রশাসনের সহযোগীতা চাই। সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে সাংবাদিকদেরও সহযোগীতা চান তিনি।

হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রাশেদুল ইসলাম তানজীর জানান, মাসিক সাধারণ সভায় আলোচনা হয়েছে। আমরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে দ্রুত ব্যবস্থা নিবো।