ব্রেকিং:
অভিনব কায়দায় স্কুলছাত্রীর কানের সোনার দুল নিয়ে চম্পট নারী ডাকাতির পর গৃহবধূকে খুন, ৬ আসামির যাবজ্জীবন মোটরসাইকেল আরোহীদের ফুল চকলেট দিয়ে অভিনন্দন জানাল পুলিশ ইয়াবার চালান নিয়ে নোয়াখালীতে গ্রেফতার ৩ জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৪০ শান্তিরক্ষী অপপ্রচারকারীদের সেবা দেবে না কানাডায় বাংলাদেশ মিশন রিটার্ন জমার সময় এক মাস বাড়ছে ‘বিনা খরচে’ সরকারিভাবে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানো শুরু শান্তি রক্ষায় যৌথ কাজ করবে বিজিবি-বিজিপি ১০ টাকার টিকিট কেটে চোখ দেখালেন প্রধানমন্ত্রী উখিয়ায় ফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে খুন গৃহ পরিচালিকার মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে পুড়ল ২০ দোকান ব্রাহ্মণপাড়ায় সিএনজি চালকের সীটের নিচ থেকে ৬ কেজি গাজাঁ উদ্ধার কচুয়ায় ১৯ বছর পর ১০ একর সম্পত্তি ফিরে পেলো নিরীহ পরিবার মতলব উত্তরে এসএসসিতে পাসের হার ৯০.৬৭ শহরের যানজট নিরসনে কাজ শুরু করেছে চাঁদপুর পৌরসভা কুমিল্লা বিভাগে পাশের হারে শীর্ষে চাঁদপুর জেলা যৌতুকের লোভে স্ত্রীকে হত্যা: স্বামীর মৃত্যুদণ্ড সেই সুমাইয়া জিপিএ-৫ পেয়েছে
  • বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

মুরাদনগরে ভারতীয় নাগরিককে জন্মনিবন্ধন, নাগরিক ও ওয়ারিশ সনদ দেয়ার

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০২২  

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় এক ভারতীয় নাগরিককে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জন্ম সনদ, ওয়ারিশ সনদ ও নাগরিক সনদ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলাউদ্দিন ভূঁইয়া জনির কাছে এমন একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল হওয়ার পর থেকে বিষয়টি নিয়ে উপজেলাজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে।

মুরাদনগর ইউনিয়নর পরিষদ কী করে একজন ভারতীয় নাগরিককে জন্ম সনদ, ওয়ারিশ সনদ ও নাগরিক সনদ প্রদান করল? এমন অভিযোগে এলাবাসীর অনেকে এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের কাকরাবন গোমতী থানার রাজধরনগরে ১৯৬১ সালে জানুয়ারি মাসের ২ তারিখে জন্মগ্রহণ করেন হারাধন চন্দ্র দাস। ভারতে জন্মগ্রহণ ও ভারতীয় নাগরিকত্ব প্রাপ্ত; যার ভারতীয় পাসপোর্ট নম্বর আর-৭৫৮৯৫০৩ ও ভারতের পিন নম্বর ৭৯৯০১৩। ভারতীয় নাগরিক হওয়া সত্ত্বেও মুরাদনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নের করিমপুর গ্রামের বাসিন্দা দেখিয়ে মুরাদনগর উপজেলার ১৩ নম্বর মুরাদনগর ইউয়িন পরিষদের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তাদের মাধ্যমে জালিয়াতি করে একটি ডিজিটাল জন্মনিবন্ধন সনদ (নম্বর : ১৯৫৮১৯৩৮১৫৪১০৯১৬৭), একটি নাগরিকত্ব সনদ (নম্বর : ২০২২১৯১৮১৫৪০১১৩৮৮) ও একটি ওয়ারিশ সনদ (নম্বর ২০২২১৯১৮১৫৪০০১১১৮) গ্রহণ করে বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র করার চেষ্টা চালাচ্ছেন তিনি। এমন অভিযোগ এনে গত ১৩ সেপ্টেম্বর উপজেলার করিমপুর গ্রামের দাস বাড়ির মৃত গয়াচরণ দাসের ছেলে মাখন চন্দ্র দাস মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয় উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. কবির আহামেদকে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, কোনো ব্যক্তির জন্মসনদ থাকলে তার জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকলেও যেহেতু বাংলাদেশে পাসপোর্ট তৈরি করা যায় তাই এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে সক্রীয় হয়ে উঠতে পারে মানবপাচারকারীরা। ভারতীয় নাগরিকদের ভুয়া সনদ তৈরি করে মোটা অঙ্কের টাকা উপার্জনে জড়িত থাকতে পারে ওই ইউনিয়ন পরিষদের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা।

এ বিষয়ের তদন্ত কর্মকর্তা ও উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. কবির আহামেদ বলেন, ইউএনও স্যারের নির্দেশে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মুরাদনগর সদর ইউনিয়ন পরিষদের কর্তৃপক্ষকে নোটিশ পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। যেহেতু এটি একটি টেকনিক্যাল বিষয় সেহেতু তদন্তের গভীর পর্যন্ত যেতে কিছু সময় লাগবে।

এ বিষয়ে মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দীন ভূঁইয়া বলেন, আমরা এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। সে অনুযায়ী তদন্তের কাজ চলছে। বিষয়টি রাষ্ট্রীয় ব্যাপার। তাই আগে তদন্ত হোক, পরে সবকিছু জানানো হবে। তিনি আরো বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্র যেন না করতে পারে সে জন্য উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে অবহিত করা হবে।