ব্রেকিং:
অভিনব কায়দায় স্কুলছাত্রীর কানের সোনার দুল নিয়ে চম্পট নারী ডাকাতির পর গৃহবধূকে খুন, ৬ আসামির যাবজ্জীবন মোটরসাইকেল আরোহীদের ফুল চকলেট দিয়ে অভিনন্দন জানাল পুলিশ ইয়াবার চালান নিয়ে নোয়াখালীতে গ্রেফতার ৩ জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৪০ শান্তিরক্ষী অপপ্রচারকারীদের সেবা দেবে না কানাডায় বাংলাদেশ মিশন রিটার্ন জমার সময় এক মাস বাড়ছে ‘বিনা খরচে’ সরকারিভাবে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানো শুরু শান্তি রক্ষায় যৌথ কাজ করবে বিজিবি-বিজিপি ১০ টাকার টিকিট কেটে চোখ দেখালেন প্রধানমন্ত্রী উখিয়ায় ফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে খুন গৃহ পরিচালিকার মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে পুড়ল ২০ দোকান ব্রাহ্মণপাড়ায় সিএনজি চালকের সীটের নিচ থেকে ৬ কেজি গাজাঁ উদ্ধার কচুয়ায় ১৯ বছর পর ১০ একর সম্পত্তি ফিরে পেলো নিরীহ পরিবার মতলব উত্তরে এসএসসিতে পাসের হার ৯০.৬৭ শহরের যানজট নিরসনে কাজ শুরু করেছে চাঁদপুর পৌরসভা কুমিল্লা বিভাগে পাশের হারে শীর্ষে চাঁদপুর জেলা যৌতুকের লোভে স্ত্রীকে হত্যা: স্বামীর মৃত্যুদণ্ড সেই সুমাইয়া জিপিএ-৫ পেয়েছে
  • বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য নিকলীর বিকল্প বিজয়নগর

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০২২  

১৩৫ কোটি টাকা! 
সাড়ে ৯ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য।
তিতাশ পাড়ের দুর্গম হাওরের বুক চিরে চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ।

আর মাত্র অল্প কিছু দিন। এরপরেই বিজয়নগর ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংযোগ সড়ক পাবে বাস্তব রূপ। অপেক্ষা শেষ হবে এই অঞ্চলের লক্ষাধিক মানুষের।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দুর্গম হাওরাঞ্চলের মানূষের দুর্ভোগ ঘোচাতে হাওরের পানির ভেতর দিয়েই নির্মিত হচ্ছে ‘শেখ হাসিনা সড়ক’। এ সড়ক শুধু যে বিজয় নগরের সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের দূরত্বই কমাবে তা নয়, ভূমিকা রাখবে স্থানীয় কৃষি, শিক্ষা ও অর্থনীতিতে।

একটি সময় ছিল, যখন এ অঞ্চলের মানুষ, দুর্বল যাতায়াত ব্যবস্থার ভুক্তভোগী হত প্রতিদিন। জেলা সদর থেকে বিজয়নগর উপজেলায় যেতে পাড়ি দিতে হত ৩৫ কিলোমিটার পথ । সময় লাগতো দেড় থেকে দুই ঘণ্টা।

এই সড়ক নির্মাণ হয়ে গেলে মাত্র ২৫ থেকে ৩৫ মিনিটে বিজয়নগরের মানুষজন আসবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে। আর কোন রোগী এম্বুলেন্সে হারাবে না প্রাণ। গ্রামীন ফসল সবজি পঁচবে না ট্রাকে। কোন পরীক্ষার্থী জ্যামে বসে মূল্যবান সময় অপচয় করবে না।

বছরের অর্ধেক সময় পানিতে টইটম্বুর এই বিস্তীর্ণ হাওর এলাকায় বিগত ৬ বছর ধরে চলছে সড়ক ও জনপদ বিভাগের কাজ। সড়ক নির্মাণ শেষে চলছে এখন কার্পেটিংয়ের কাজ।

এখনই এই রাস্তা ভ্রমণপ্রিয় মানুষের কাছে আকর্ষণের স্থান হয়ে উঠেছে। প্রতিদিন শত শত দর্শনার্থী ভীড় জমাচ্ছেন নির্মাণাধীন সড়কের ২ প্রান্তে।

এতদিন হাওরের বুক চিরে যাতায়াতে একমাত্র কিশোরগঞ্জের নিকলিই ছিল বাংলাদেশের গর্ব। এখন থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-বিজয়নগর সংযোগ সড়ক শুধু যে স্থানীয় মানুষের উপকার করবে তা নয়; দর্শনীয় স্থান হিসেবে পরিচিতি পাবে সমগ্র বাংলাদেশে।