ব্রেকিং:
অপু ও বুবলির পর শাকিব খানের সন্তানের পরবর্তী মা কোন নায়িকা ? শেহজাদ খান বীর, আমার এবং শাকিব খান এর সন্তান - বুবলি পুরো দেশকে উচ্চগতির ইন্টারনেটের আওতায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এইচএসসি পাসে ডিএসসিসিতে চাকরি, আবেদন করুন দ্রুত দ্রুত তওবাকারীদের সম্পর্কে কোরআনে যা বলা হয়েছে ওয়াশিংটন ডিসি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরবে আন্তর্জাতিক কুরআন প্রতিযোগিতায় হাফেজ তাকরিম তৃতীয় রাঙামাটিতে রুপনা চাকমার জন্য ঘর নির্মাণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে জাতিসংঘের জোরালো ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী চাঁদপুরে পুলিশ পরিচয়ে ৩০ হাজার টাকার ইলিশ নিয়ে উধাও প্রতারক সাবিনাদের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে ছাদখোলা বাস প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর: সোহাগ আলীর ১০ বছরের কারাদণ্ড নোয়াখালীতে ভিজিএফের দুই ট্রাক চালসহ আটক ৩ নোয়াখালী ভুয়া কোম্পানি খুলে সাড়ে ৭ কোটি টাকা আত্মসাৎ সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ ৪ শর্তে শিথিল জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্ক পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণের ঘটনা খতিয়ে দেখতে আইজিপির নির্দেশ সীমান্তে এখনই সেনা মোতায়েন নিয়ে ভাবছে না সরকার মিয়ানমারের ব্যাপারে সর্বোচ্চ সংযম দেখাচ্ছে বাংলাদেশ:প্রধানমন্ত্রী জাপানের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বিএনপির সাক্ষাৎ
  • শুক্রবার   ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৫ ১৪২৯

  • || ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শোক দিবসে পুষ্পস্তবক অর্পণে ধস্তাধস্তি-ঠেলাঠেলি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৬ আগস্ট ২০২২  

জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনে ধস্তাধস্তি আর ঠেলা ধাক্কার পরিবেশ। আলোচনা সভার স্থানেও বসার জায়গা নেই। এমন অব্যবস্থাপনায় সম্পন্ন হয় গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালনে জেলা প্রশাসনের গৃহীত কর্মসূচি। এ নিয়ে প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি  হয় অংশগ্রহণকারীদের মাঝে।
প্রশাসনের অনুষ্ঠান সূচিতে সকাল সোয়া ৯টায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে শহরের কাচারীপুকুর পাড় এলাকায় বঙ্গবন্ধু স্কয়ারে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন ও জাতির পিতার প্রতি আনুষ্ঠানিক শ্রদ্ধা নিবেদনপূর্বক গার্ড অব অনার প্রদান করার কথা বলা হয়। কিন্তু সেখানে সামাজিক দূরত্বের কোনো বালাই ছিল না। শত শত মানুষ ভিড় করেন শ্রদ্ধা নিবেদনে বঙ্গবন্ধু স্কয়ারে। 
আনুষ্ঠানিক শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরী এবং জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ  প্রশাসনের কর্মকর্তারা সেখান থেকে চলে যাওয়ার পর শুরু হয় বিশৃঙ্খলা। কে কার আগে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন এ নিয়ে ধস্তাধস্তি আর ঠেলা ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়। কিন্তু শৃঙ্খলা মানানোর তৎপরতায় দেখা যায়নি কাউকে। এর আগে শহরের লোকনাথ ময়দান থেকে বঙ্গবন্ধু স্কয়ার পর্যন্ত র‌্যালি হয়। র‌্যালি শেষে তাদের সবাই ঢুকে পড়েন বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের আবদুল কুদ্দুস মাখন পৌর মুক্তমঞ্চে।

এছাড়াও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং নানা সংগঠনের লোকজন ভিড় জমান সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদনে। সব মিলিয়ে ঠাসাঠাসি ভিড় সৃষ্টি হয়। এই পরিস্থিতিতে ধস্তাধস্তি, ঠেলাঠেলি করে প্রতিকৃতির কাছে পৌঁছতে পারলেও পুষ্পস্তবক রেখে ঠিকভাবে শ্রদ্ধা নিবেদনের সুযোগ মিলছিল না কারও। শ্রদ্ধা নিবেদনে আসা নারীদেরও বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। শ্রদ্ধা নিবেদনে আসা জহির নামে একটি পেশাজীবী সংগঠনের নেতা জানান, খুব বাজে পরিবেশ। কোনো শৃঙ্খলা নেই। যুব মহিলা লীগের নেত্রী পারভীন জানান, ধাক্কাধাক্কি করেই ফুল দিতে হয়েছে তাদের। ঘোষণামঞ্চে দায়িত্বরত একজন জানান, প্রতিকৃতিতে রাখা ফুল গুছিয়ে রাখার জন্য স্বেচ্ছাসেবী রয়েছে। কিন্তু তাদেরকেও দেখছি না। তবে জেলা প্রশাসনের দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা জানান, সেখানে স্কাউট সদস্যদের শৃঙ্খলা দেখার দায়িত্বে নিয়োজিত করা হয়েছে। শ্রদ্ধা নিবেদন পরবর্তী কর্মসূচির বিশেষ আলোচনা সভাতে গিয়েও বসার জায়গা পাননি অনেকে। জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। যেখানে দেড়শ’ লোকের বসার ব্যবস্থা রয়েছে। বসতে না পেরে ফিরে যান অনেকে।