ব্রেকিং:
ফেরিতে আটলান্টিক পাড়ি দিতে গিয়ে অসুস্থ বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা হলি আর্টিজানে নিহতদের প্রতি রাষ্ট্রদূতদের ফুলেল শ্রদ্ধা হলি আর্টিজান হামলা, পরের ৬ বছরে গ্রেফতার ২৪১০ জঙ্গি হলি আর্টিজান হামলা: রক্তের দাগ, বুলেটের ক্ষত রয়েছে স্মৃতিপটে হলি আর্টিজান মামলার অগ্রগতি কতদূর হলি আর্টিজান হামলা ও এদেশের জঙ্গিবাদ হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার বিভীষিকাময় দিন হলি আর্টিজান মামলা: হাই কোর্টে এখনও শুনানির অপেক্ষা রাস্তার পাশে পড়েছিল কাপড়ে মোড়ানো নবজাতকের মরদেহ বাল্যবিয়ে বন্ধ, খাবার গেলো এতিমখানায় যমজ সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে রুমা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পরিবর্তে ‘বি-বাড়িয়া’ না লিখার নির্দেশ যেসব পশু কোরবানি করা যাবে ও যাবে না নোয়াখালীতে গৃহপরিচারিকার লাশ উদ্ধার ঈদযাত্রার অগ্রিম ট্রেনের টিকিট পেতে কাউন্টারে ভিড় ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়েতে টোল আদায় শুরু বিশ্বে একদিনে করোনায় ১৩৮০ জনের মৃত্যু ঈদযাত্রার অগ্রিম ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু বুয়েটের মেধা তালিকায় এবার আবরার ফাহাদের ছোট ভাই ফাইয়াজ কোরবানির হাটে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা
  • শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৭ ১৪২৯

  • || ৩০ জ্বিলকদ ১৪৪৩

৪০ বছর পর মরদেহ রাখার ফ্রিজ পেলো হাসপাতাল

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৬ মে ২০২২  

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ফেনী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে ৬টি ড্রিপ ফ্রিজ সংযোজন করা হয়েছে। শনিবার (১৪ মে) বিকেলে গণপূর্ত বিভাগের মাধ্যমে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে এ ফ্রিজ স্থাপন করা হয়। এতে করে অজ্ঞাত মরদেহ সংরক্ষণসহ অন্যান্য মরদেহ রক্ষণাবেক্ষণে হাসপাতালটির দীর্ঘদিনের সমস্যা লাঘব হবে।

১৯৮২ সালে প্রতিষ্ঠিত এ হাসপাতালে স্থাপিত মর্গটি (লাশ ঘর) সবসময়ই তুলনামূলক অবহেলিত ছিলো। পরে বিষয়টি দৃষ্টিগোচরে এলে ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী লাশকাটা ঘরটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত করার ব্যবস্থা করেন। বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন ফেনীর সভাপতি ডা. সাহেদুল ইসলাম কাওসার মর্গে ব্যবহারিত আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবস্থা করে দেন। কিন্তু দীর্ঘ ৪০ বছরেও এ মর্গে মরদেহ সংরক্ষণের কোনো ব্যবস্থা না থাকায় নানা সমস্যার সৃষ্টি হতো।

জানা যায়, ফেনী জেনারেল হাসপাতালটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাছে হওয়ায় এবং আশপাশের জেলার সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো থাকায় প্রতিদিনই ফেনী হাসপাতালের মর্গে মরদেহ ময়নাতদন্ত করতে হয়। বিশেষ করে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তিদের মরদেহ শনাক্ত হওয়ার জন্য মর্গে মরদেহ সংরক্ষণ করতে হয়। ফ্রিজার না থাকায় অনেক সময় মরদেহ নষ্ট হয়ে বিভিন্ন পোকামাকড়ের কবলে পড়ে।

এছাড়াও আত্মহত্যা, পুকুরে ডুবে মারা যাওয়াসহ মামলা সংক্রান্ত সকল মরদেহেরই ময়নাতদন্ত করতে হয়। এসব মরদেহ যেকোনো দিন বিকেলে নিয়ে এলে পরের দিন ময়নাতদন্তের কাজ করতে হয়। যথাযথভাবে মরদেহ সংরক্ষণ করতে না পারায় ময়নাতদন্তে নানান সমস্যার সৃষ্টি হতো।

এছাড়াও মৃত ব্যক্তির আত্মীয়-স্বজনের অনুরোধে এখানে মরদেহ সংরক্ষণের ব্যবস্থা না থাকায় দূর দূরান্ত থেকে অধিক টাকা ব্যয়ে লাশবাহী ফ্রিজিং গাড়ি ভাড়া করতে হতো। এমতাবস্থায় হাসপাতাল মর্গে মরদেহ সংরক্ষণের জন্য ফ্রিজারের ব্যবস্থা হওয়ায় সংশ্লিষ্টদের মাঝে স্বস্তি এসেছে।

ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ইকবাল হোসেন ভূঞা জানান, মর্গে মরদেহ রাখার জন্য ফ্রিজার না থাকায় নানা রকমের সমস্যার সৃষ্টি হতো। শনিবার বিকেলে সরকারিভাবে ফেনী হাসপাতালের মর্গে ৬টি মরদেহ রাখার ফ্রিজার স্থাপন করা হয়েছে। এতে করে এ হাসপাতালে মরদেহ সংরক্ষণের সমস্যা লাঘব হবে।

হাসপাতালটির তত্ত্বাবধায়ক আবুল খায়ের মিয়াজী জানান, ফেনী হাসপাতাল মর্গে ফ্রিজারে মরদেহ রাখার চাহিদা বহু বছর আগে থেকেই ছিলো। দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর হাসপাতালটিতে মরদেহ রাখার ফ্রিজারের ব্যবস্থা হওয়ায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন স্বাস্থ্য বিভাগের এ কর্মকর্তা।