ব্রেকিং:
আজ থেকে বিপিএলে থাকছে ‘বিকল্প ডিআরএস’ কমিউনিটি ক্লিনিকে আরো বিনিয়োগ প্রয়োজন: পরিকল্পনামন্ত্রী এবার আইপিএলের সব খেলা এক শহরে! মৌসুমী ঝড়ে আফ্রিকার তিনদেশে নিহত ৭০ জুমার দিনে যে আমল করলে ৮০ বছরের গুনাহ মাফ হবে কুমিল্লায় জনপ্রিয় হচ্ছে সমলয় পদ্ধতিতে ধান চাষ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে কাদের মির্জার ৯ প্রার্থীর অভিযোগ বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ছাড়াল সাড়ে ৫৬ লাখ, শনাক্ত সাড়ে ৩৬ কোটি লক্ষ্যমাত্রার ৭ ভাগ আমন সংগ্রহ হয়েছে ফেনীতে নৌকা ঠেকাতে আনারসে ভোট চাইলেন এমপি একরামুল মসজিদের ৭ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্লাস্টিকের লেমিনেশন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা চিলির মাঠে মেসিহীন আর্জেন্টিনার দাপুটে জয় কোম্পানীগঞ্জে এক বস্তা দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার প্রাথমিকে অনলাইনে ক্লাসসহ ৬ নির্দেশনা সরকারি ব্যাংকের সব নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত চাঁবিপ্রবির জমি অধিগ্রহণে অনিয়মের খবর ভিত্তিহীন: শিক্ষামন্ত্রী ১৫ বছরের গোপন সম্পর্ক, কথা না রাখায় দেবরের ঘরে অনশনে ভাবি পার্কে প্রেমিককে জুতাপেটা, আটক করে টাকা নিলেন মেম্বার আখাউড়ায় পাঁচ মাদক সেবনকারীর কারাদণ্ড
  • শুক্রবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১৫ ১৪২৮

  • || ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

চোরের নম্বরে টাকা পাঠালেই মেলে মিটার

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০২২  

রাতের আঁধারে চুরি হয় একে একে চারটি রাইস মিলের মিটার। তবে চুরি যাওয়া মিটার পেতে চোরের বিকাশে পাঠাতে হয়েছে টাকা। টাকা পাঠিয়ে নিজের মিটার ফেরতও পেলেন অটো রাইচমিল মালিক আব্দুর রাজ্জাক।

চুরি যাওয়া মিটার ফিরে পাওয়ায় আব্দুর রাজ্জাকের দেখাদেখি বাকি তিনজনও চোরের বিকাশে টাকা পাঠান। শেষে তারাও ফেরত পান নিজেদের চুরি যাওয়া মিটার। সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার এমন ঘটনায় এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অনেক ব্যবসায়ী ও সেচ পাম্প মালিকদের মধ্যে দেখা দিয়েছে মিটার চুরির আতঙ্ক।

গতকাল বৃহস্পতিবার চোরের রেখে যাওয়া নম্বরে বিকাশে টাকা পাঠান আব্দুর রাজ্জাক। টাকা পেয়ে চোরের বলে দেওয়া স্থান উপজেলার বাকশাপাড়া গ্রামের খড়ের গাদার মধ্যে মেলে মিটারটি।

জানা গেছে, ৮ জানুয়ারি গভীর রাতে কাজিপুরের সোনামুখী ইউনিয়নের হরিনাথপুর গ্রামে অবস্থিত শাহাদত হোসেন রাজের একটি সেমি-অটোমিল, রুবেল হোসেনের একটি রাইসমিল এবং কাজিপুর উপজেলা চালকল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাকের একটি সেমি অটো ও একটি রাইস মিলের মিটার চুরি যায়। এ সময় চোরেরা চিরকুটে ফোন নম্বর লিখে মিলের কাছে রেখে যায়। রাজ্জাকের মতো অন্য তিন ব্যবসায়ীও মিটার প্রতি পাঁচ হাজার করে টাকা পাঠিয়ে মিটার ফেরত পান।

আবদুর রাজ্জাক জানান, আইনের মাধ্যমে গেলে মিটার পেতে অনেক সময় ও বিড়ম্বনা হতে পারে। তাই টাকা দিয়েই রফা করলাম।

কাজিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ পঞ্চনন্দ সরকার বলেন, বিষয়টি মৌখিকভাবে শুনেছি। কেউ অভিযোগ করেনি। তবে নম্বরটি শনাক্তের চেষ্টা চলছে।