ব্রেকিং:
আন্দোলনকারীরা বক্তব্য দিতে চাইলে আপিল বিভাগ বিবেচনায় নেবেন সচেতনতার অভাবে অনেক মানুষ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি গমের উৎপাদন বাড়াতে সিমিট ও মেক্সিকোর সহযোগিতা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি থেকে বিরত থাকুন : আরাফাত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালকের শ্রদ্ধা মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত গাজায় শান্তি রক্ষা করবে আরব যৌথ বাহিনী: বাইডেন কোটা আন্দোলন প্রশ্নে আইনমন্ত্রী কি বললেন? ‘পুলিশের গুলিতে কোনো শিক্ষার্থী মারা যায় নি" ভারত থেকে আমদানি হলো ১১টি বুলেটপ্রুফ সামরিক যান সৌদি আরবে হামলার হুমকি, স্পর্শকাতর স্থানের ভিডিও প্রকাশ পরকীয়া করতে গিয়ে ধরা, সেই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বহিষ্কার বাংলাদেশ-চীনের মধ্যে ২১ চুক্তি ও সাত ঘোষণাপত্র সই লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে প্রযুক্তি বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা ঝিনুকে তৈরি মুক্তার গহনা প্রধানমন্ত্রীর হাতে লক্ষ্মীপুরে হাত-পা বেঁধে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার পর ডাকাতি নোয়াখালীতে প্রকৌশলীসহ সেই চার শিক্ষক কারাগারে নোয়াখালীতে পরীক্ষা হলে হট্টগোল-খোশগল্প চট্টগ্রামে এডিসি কামরুল ও তার স্ত্রীর সম্পদ ক্রোকের আদেশ
  • শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

ঈদ যাত্রায় ভোগান্তির কারণ হতে পারে চান্দিনা-বাগুর বাস স্টেশন

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৬ জুন ২০২৩  

ব্যস্ততম ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা থেকে ঢাকা পর্যন্ত যেসব এলাকায় যানজট নিত্যসঙ্গী তারমধ্যে অন্যতম চান্দিনা-বাগুর বাস স্টেশন। প্রতিদিনই ওই স্টেশন এলাকায় যানজট কখনও কখনও দীর্ঘ হয়ে উভয় পাশে ২-৩ কিলোমিটার এলাকার বিস্তার করে। ঈদ মৌসুমে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে ওই স্টেশন এলাকাটি হতে পারে দূর্ভোগের অন্যতম কারণ।


মহাসড়কের চান্দিনা-বাগুর স্টেশন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, স্টেশন এলাকায় থাকা ফুটওভার ব্রীজ ব্যবহার না করে অধিকাংশ পথচারীরা দলবদ্ধ ভাবে মহাসড়ক পারাপার, মহাসড়কের দুই পাশে অবৈধ দোকান-পাট গড়ে উঠা, নির্ধারিত স্থানে গাড়ি পার্কিং না করা, মহাসড়কের মাঝেই বাস থামিয়ে যাত্রী উঠানো-নামানো, স্টেশন এলাকায় অবৈধ মারুতি স্টেশন গড়ে উঠা সহ নানা কারণে যানজট কমাতে পারছে না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।


বাস যাত্রী এ.এম মতিউর রহমান জানান, আমি ব্যবসায়ীক কাজে সপ্তাহে ২/৩দিন ঢাকা যাই। কুমিল্লা থেকে ঢাকা পর্যন্ত যানজটের তিনটি নির্ধারিত স্থান। এর মধ্যে নিমসারের কাঁচা বাজার, চান্দিনা-বাগুর বাস স্টেশন এবং মদনপুর চৌমুহনী। প্রায় ৯৫ কিলোমিটার মহাসড়কের মধ্যে অন্য কোথাও যানজট না থাকলেও এই তিনটি স্থানে যানজট অবধারিত। এছাড়াও মহাসড়কের চান্দিনার মাধাইয়া ও দাউদকান্দি উপজেলার ইলিয়টগঞ্জ বাস স্টেশন এলাকাগুলোতে প্রায়ই যানজট সৃষ্টি হয়। ওই যানজট নিরসনে কার্যত কোন ভূমিকা নেই প্রশাসনের।


বাস চালক বিল্লাল হোসেন জানান, যেখানে আমাদের গাড়ি থামানোর কথা সেখানে রিক্সা, মারুতি স্টেশন। মহাসড়কের পাশে অবৈধ দোকান-পাট বসার পর তার সামনে মারুতি গাড়ির এলোপাথারী সারি। আমরা বাধ্য হয়েই মহাসড়কের মাঝে গাড়ি থামিয়ে যাত্রী উঠাই। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘আপনি দেখেন তো, মারুতি গুলো কয়েকটি সারি হয়ে মহাসড়কের অর্ধেক দখল করে আছে’। এমন পরিস্থিতি চলতে থাকলে যানজট কিছুতেই কমবে না।


নাম প্রকাশ না করা শর্তে একাধিক স্থানীয় ব্যবসায়ী জানান, মহাসড়কের পাশে থাকা দোকানগুলো থেকে প্রতিদিন চাঁদা আদায় ও অবৈধ মারুতি থেকে প্রতিদিন চাঁদাবাজি বন্ধ করা না হলে স্টেশনের শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ করা মোটেও সম্ভব হবে না। এছাড়া হাইওয়ে পুলিশ মাঝে মধ্যে টহল না দিয়ে স্থায়ী ভাবে এই ষ্টেশনে একটি টিম কাজ করলেই যানজট নিরসন সম্ভব।


এ ব্যাপারে হাইওয়ে পুলিশ ইলিয়টগঞ্জ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. ওবায়েদুল হক জানান, ঈদকে সামনে রেখে আমরা অতিরিক্ত পুলিশ ও পাবলিক ডিফেন্স পার্টি নিয়োজিত করেছি। আশাকরি ঈদে চান্দিনা ও ইলিয়টগঞ্জ বাজার এলাকার কোথাও যানজট থাকবে না।