ব্রেকিং:
টেলিটকে ফাইভ-জির গতি উঠলো সেকেন্ডে ১৫১২ এমবিপিএস ভোটকেন্দ্রে টাকা দিতে মেয়রের জোরাজুরি, নিল না পুলিশ আগামী দুই অধিবেশনের মধ্যে ইসি গঠনের আইন আসছে: আইনমন্ত্রী স্থায়ী কমিটির ভূমিকায় সন্দিহান বিএনপির কর্মীরা দীঘিনালায় ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়িতে হামলা, ১৬ জন আহত আজও রাস্তায় শিক্ষার্থীরা, চেক করছে ড্রাইভিং লাইসেন্স ওমিক্রন নিয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন: ডব্লিউএইচওর প্রধান বিজ্ঞানী কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে সরকার সচেষ্ট: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী খালেদার চিকিৎসা নিয়ে নেতা-চিকিৎসকদের সমন্বয়হীনতায় ক্ষুব্ধ তারেক বৈদেশিক বিনিয়োগে বাংলাদেশের গুরুত্ব দিন দিন বাড়ছে: প্রধানমন্ত্রী জাল ভোট দিতে এসে ধরা, ছয় মাসের জেল ইয়াবা দেখে ফেলায় সহপাঠীকে নৃশংস হত্যা সমুদ্র দূষণে শাস্তি বাড়িয়ে সংসদে বিল পাস পুরুষশূন্য কেন্দ্রে নারীদের দীর্ঘ সারি বাংলাদেশের নারীরা সারাবিশ্বে নিজেদের যোগ্যতার পরিচয় দিচ্ছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ১ জানুয়ারি, মিলবে বিআরটিসি বাস সার্ভিস ৮৩ শতাংশ নারীই মনে করেন ‘বউ পেটানো ঠিক’ ঢাকায় বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দেহব্যবসা করে চালিয়েছেন পড়াশোনা, জিতেছেন সুন্দরী প্রতিযোগিতায় যে কারণে পেছাল আবরার হত্যা মামলার রায়
  • সোমবার   ২৯ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৮

  • || ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

খালেদার আসল ছেলে কে?

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২১  

মাকে নিয়ে তারেকের কোনো মাথাব্যথা নেই? বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে, বেগম খালেদা জিয়া জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। তাঁর শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। বিএনপির নেতারা আনুষ্ঠানিকভাবে বলছেন যে, যেকোনো সময় যেকোনো ঘটনা ঘটতে পারে। আর এরকম একটি পরিস্থিতিতে তারেক জিয়ার নিরুত্তাপ-নীরবতা দলের মধ্যে নানারকম প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে। বিএনপির অনেক নেতাই বলছেন যে, তারেক জিয়া বেগম খালেদা জিয়ার একমাত্র জীবিত সন্তান। এরকম পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ তার জন্য যত দুর্গমই হোক না কেন, বাংলাদেশে তার আসা নিয়ে যত প্রতিকূলতাই থাকুক না কেন, তার বাংলাদেশে ফিরে আসা উচিত। বিএনপি নেতারা এটাও মনে করেন যে, তারেক জিয়া বাংলাদেশে এলে পুরো পরিস্থিতি ঘুরে যেত এবং এর ফলে বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার পথও উন্মুক্ত হত। কিন্তু তারেক জিয়ার রহস্যময় আচরণ বিএনপির মধ্যেই প্রশ্ন তৈরি করেছে। তারা বলছেন যে, এ কেমন সন্তান।

বিএনপির একজন নেতা বলেছেন, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর মায়ের জন্য নদী সাঁতরে এসেছিলেন। মায়ের জন্য ত্যাগ স্বীকারের ইতিহাস পৃথিবীতে অনেকে রয়েছে। যারা পৃথিবীতে বড় হয়েছেন, বিখ্যাত হয়েছেন তাদের মাতৃভক্তির ইতিহাস বিভিন্ন সময়ে আলোচিত আছে। আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদাহরণ দিয়েও বিএনপির কোনো কোনো নেতা বলেন যে, ১৯৮১ সালে তিনি বাংলাদেশে এসেছিলেন শুধুমাত্র বাবা-মার হত্যার বিচারের জন্য। আর এরকম পরিস্থিতি যখন তারেক জিয়ার মা জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে তখন তিনি দেশের বাইরে থাকেন কিভাবে। বিএনপি নেতারা খালেদা জিয়ার চিকিৎসা, তারেক জিয়ার ভূমিকা নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলতে রাজি হননি। তবে ব্যক্তিগত আলাপচারিতায় তারা বলেন যে, তারেক জিয়া যদি দেশে ফিরে আসেন তাহলে কি হবে? তাকে জেল দেওয়া হবে, তাকে গ্রেপ্তার করা হবে কিন্তু এর ফলে বিএনপির নেতা-কর্মীরা সাহস পাবে, উদযাপিত হবে এবং তারা আত্মবিশ্বাস ফিরে পাবে।

বিএনপির একজন নেতা বলেছেন যে, তারেক জিয়া যদি দেশে ফিরে জেলখানায় যান তাহলে হয়তো সরকার বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়টি বিবেচনা করবেন এবং তখন তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর অনুমতি দিলেও দিতে পারেন। কিন্তু তারেক জিয়া যদি এভাবে দেশের লন্ডনে বসে থাকেন এবং ষড়যন্ত্র করেন তাহলে সরকার তাকে কিভাবে পাঠাবে। বিএনপির একজন নেতা স্বীকার করেছেন যে, তারাও যদি ক্ষমতায় থাকতেন এবং তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে এরকম পরিস্থিতি হতো তাহলে তারাও হয়তো অনুমতি দিতেন না। যদিও বিএনপি প্রকাশ্যে মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে দেওয়ার অনুরোধ করছেন, তারা বিষয়টিকে রাজনৈতিকভাবে না নিয়ে মানবিকভাবে দেখার জন্য আহ্বান জানাচ্ছেন।

বিএনপির নেতারাই আবার নিশ্চিত যে, তারেক জিয়া দেশে ফিরে না আসলে বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়া হবে না। তারেক জিয়া আগে চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলতেন এবং খোঁজখবর নিতেন। কিন্তু এবার অসুস্থ হয়ে সিসিইউ`তে যাওয়ার পর তারেক জিয়া কারো সঙ্গেই এ বিষয় নিয়ে কথা বলছেন না। আজও তিনি বিএনপির মহাসচিবসহ দুই নেতার সাথে কথা বলেছেন। সেখানে তিনি আন্দোলনের কৌশল এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন, মায়ের অসুস্থতা নিয়ে কথা বলেননি। একজন বিএনপি নেতা দুঃখ করে বলেছেন যে, যখন মা মৃত্যু শয্যায় তখন রাজনীতির চাণক্য, কূটচাল তার মাথায় আসে কিভাবে। এখন তো তার মায়ের রোগমুক্তির জন্য সবকিছু করা উচিত। আর এ নিয়ে এখন বিএনপিতে এক ধরণের ক্ষোভ ও অসন্তোষ তৈরি হয়েছে। তারেক জিয়া বিদেশে থেকে আসলে কি অর্জন করতে চান? একজন মানুষের অন্যতম শ্রেষ্ঠ সম্পদ হলেন তার মা। যদি তিনি মায়েরই সেবা করতে না পারেন তাহলে তিনি দেশের সেবা কিভাবে করবেন এই প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহল থেকে।