ব্রেকিং:
আন্দোলনকারীরা বক্তব্য দিতে চাইলে আপিল বিভাগ বিবেচনায় নেবেন সচেতনতার অভাবে অনেক মানুষ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি গমের উৎপাদন বাড়াতে সিমিট ও মেক্সিকোর সহযোগিতা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি থেকে বিরত থাকুন : আরাফাত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালকের শ্রদ্ধা মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত গাজায় শান্তি রক্ষা করবে আরব যৌথ বাহিনী: বাইডেন কোটা আন্দোলন প্রশ্নে আইনমন্ত্রী কি বললেন? ‘পুলিশের গুলিতে কোনো শিক্ষার্থী মারা যায় নি" ভারত থেকে আমদানি হলো ১১টি বুলেটপ্রুফ সামরিক যান সৌদি আরবে হামলার হুমকি, স্পর্শকাতর স্থানের ভিডিও প্রকাশ পরকীয়া করতে গিয়ে ধরা, সেই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বহিষ্কার বাংলাদেশ-চীনের মধ্যে ২১ চুক্তি ও সাত ঘোষণাপত্র সই লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে প্রযুক্তি বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা ঝিনুকে তৈরি মুক্তার গহনা প্রধানমন্ত্রীর হাতে লক্ষ্মীপুরে হাত-পা বেঁধে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার পর ডাকাতি নোয়াখালীতে প্রকৌশলীসহ সেই চার শিক্ষক কারাগারে নোয়াখালীতে পরীক্ষা হলে হট্টগোল-খোশগল্প চট্টগ্রামে এডিসি কামরুল ও তার স্ত্রীর সম্পদ ক্রোকের আদেশ
  • শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

হাতিয়ায় খাদ্যে নেশা দ্রব্য মিশিয়ে অজ্ঞান করে ডাকাতি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০২৪  

নোয়াখালী হাতিয়ায় খাবারে নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে অজ্ঞান করে ঘরের স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা লুটে নিয়েছে দুষ্কৃতকারীরা।

সোমবার (১০ জুন) দিবাগত রাতে হাতিয়া পৌরসভা ৫নং ওয়ার্ডের ছৈয়দিয়া বাজার সংলগ্ন সাহেদ সেলিনা দম্পতির ঘরে এ ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, পৌরসভা ৫নং ওয়ার্ডের ছৈয়দিয়া বাজারের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে আহছানুল কবির শাহেদ ও তার স্ত্রী সেলিনা আক্তার শম্পা বাড়িতে একাই থাকতেন। সোমবার রাত ১০ টায় তারা রাতের খাবার খেয়ে ঘরে শুয়ে পড়ে।

মঙ্গলবার (১১ জুন) সকালে পার্শ্ববর্তী কাজের মহিলা তাদেরকে ডাকতে থাকে। অনেক বেলা হওয়ার পরেও না উঠতে দেখে কাজের মহিলা খোলা জানালা দিয়ে দেখে শাহেদ ও তার স্ত্রী শম্পা বেহুশ হয়ে এলোমেলো পড়ে আছে। এমতাবস্থায় সে চারিদিক থেকে আত্মীয় স্বজনদের ডেকে আনে। তারা দেখে যে ঘরের দরজা খোলা এবং আলমারি, সুটকেস, শোকেস খোলা। সব জিনিসপত্র তছনছ হয়ে পড়ে আছে। গৃহকর্তা সাহেদ ও তার স্ত্রীর শারীরিক চেতনা না ফেরায় তাদের দ্রুত হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। কিন্তু অজানা চেতনা নাশক দ্রব্যের প্রভাবে অসুস্থতা মাত্রাতিরিক্ত হওয়ায় তাদেরকে জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত মেডিকেল অফিসার ডাক্তার সাকিব বিন মহিউদ্দিন জানান, এটি একটি অজানা বিষক্রিয়া। রোগীর যেকোনো মূহুর্তে আইসিইউ’র প্রয়োজন হতে পারে। তাই আমরা দ্রুত তাদের জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছি।

হাতিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিসান আহমেদ জানান, ঘটনা শুনে সরেজমিনে দেখতে এসেছি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে রাতের খাবারের সঙ্গে নেশা জাতীয় দ্রব্য প্রয়োগ হতে পারে। দুষ্কৃতকারীদেরকে আইনের আওতায় আনতে আমরা কাজ শুরু করছি। পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে