ব্রেকিং:
কুমিল্লা সমাবেশে রুমিনের মোবাইল ছিনতাই করল যুবদল কর্মী হাইমচরে নৌকার পক্ষে প্রচারণায় মাঠে ডা:টিপু ও মেয়র জুয়েল চাঁদপুর শহরের গ্রীণ ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আজ বিশেষ মুনাজাতের মধ্যে শেষ হচ্ছে চাঁদপুর জেলা ইজতেমা মতলব উত্তর ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রামপুরে বিষ প্রয়োগে অসহার কৃষকের মাছ নিধন ‘গুসি শান্তি পুরস্কার’ পেলেন শিক্ষামন্ত্রী মতলবের ধনাগোদা নদীতে কচুরিপানা জটে নৌ চলাচল বন্ধ ৩৫ বছরে শৈশবের স্বাদ, হতে চান উচ্চশিক্ষিত লক্ষ্মীপুরে ছাত্রদলের ১৫১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দক্ষিণ আফ্রিকায় নোয়াখালীর ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা অটোরিকশা-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, প্রাণ গেল ২ তরুণের মুরাদনগরের সিদল যাচ্ছে বিদেশে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীসহ ২ জনের মৃত্যু যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত বঙ্গবন্ধু টানেলে গাড়ি চলবে জানুয়ারিতে বিদেশিদের মন্তব্যে বিরক্ত সরকার আমনের বাম্পার ফলন রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আইওআরএ মন্ত্রীদের সাক্ষাৎ
  • রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বৃহত্তর নোয়াখালীতে এখনো চালু হয়নি আইএইচটি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৭ অক্টোবর ২০২২  

বৃহত্তর নোয়াখালীতে (নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর) একমাত্র ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজির (আইএইচটি) কাজ শেষ হয়েছে। কিন্তু লোকবল নিয়োগ না দেওয়ায় এখনো চালু করা যায়নি প্রতিষ্ঠানটি। এর কার্যক্রম চালু হলে স্বাস্থ্যসেবায় ব্যাপক ভূমিকা রাখবে বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

দেশের স্বাস্থ্যসেবা প্রসারের লক্ষ্যে নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলায় স্থাপন করা হয় আইএইচটি। স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে প্রায় ৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৮ সালের ১৬ আগস্ট শুরু করা হয় এর নির্মাণকাজ। বৃহত্তর নোয়াখালীর (নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর) জন্য মাত্র একটি। ২০২১ সালের ২৩ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠানটির নির্মাণকাজ শেষ হয়। তবে পদায়ন সৃষ্টি না হওয়ায় জনবল-সংকটে এখনো চালু করা যায়নি এটি।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রতিষ্ঠানটি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কোনো নিরাপত্তাপ্রহরী ও কেয়ারটেকার নেই। এতে প্রতিষ্ঠানের প্রতিটি ভবনে ময়লা পড়ে গেছে। জনবল ছাড়া এভাবে পড়ে থাকলে আইএইচটির মূল্যবান মালামাল খোয়া যেতে পারে। স্থানীয়দের দাবি, দ্রুত প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম চালু হলে এটি দেশের স্বাস্থ্য খাতে ব্যাপক অবদান রাখতে সক্ষম হবে।

জানা গেছে, প্রতিষ্ঠানটির নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার পর একজন প্রিন্সিপাল ও একজন সহকারী পরিচালক (এডি) নিয়োগ দেওয়া হলেও বাকি পদগুলো এখন সৃষ্টি না হওয়ায় কোনো জনবল নিয়োগ হয়নি। নির্মাণকাজ শেষ হওয়ায় চলতি বছরের ২৫ এপ্রিল প্রিন্সিপাল ও সহকারী পরিচালককে প্রতিষ্ঠানটি বুঝিয়ে দেয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এতে চারতলাবিশিষ্ট ভবনে একটি প্রশাসনিক, ছাত্রছাত্রীদের জন্য আলাদা দুটি হোস্টেল ভবন রয়েছে। এ ছাড়া তিনতলাবিশিষ্ট একটি প্রিন্সিপাল ও স্টাফ কোয়ার্টার ভবন এবং দোতলাবিশিষ্ট একটি সাবস্টেশন ও গ্যারেজ ভবন রয়েছে।

তিন একর জমির ওপর নির্মিত আইএইচটিতে ছাত্রী হোস্টেলে ১১৪টি ও ছাত্র হোস্টেলে ১৮৪টি আবাসিক আসন রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি চালু হলে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন মেয়াদে ডিপ্লোমা ইন ফার্মেসি, ল্যাবরেটরি মেডিসিন, ফিজিওথেরাপি, রেডিওথেরাপি, রেডিওলজি অ্যান্ড ইমেজিং, ডেন্টিস্ট্রি, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর শিপ ট্রেইনিং, আরও অনেক মেডিকেল টেকনোলজি কোর্স করতে পারবে।

স্থানীয়রা বলছেন, সারা দেশের স্বাস্থ্যসেবা ভূমিকা রাখে আইএইচটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে অন্তত ১৪টি। এর মধ্যে নোয়াখালীর কবিরহাটে একটি। সাবেক সেনাপ্রধান আবু বেলাল মো. শফিউল হক ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠানটি নির্মাণ হলেও, শুধু জনবল-সংকটের কারণে এখনো সেটি আলোর মুখ দেখছে না।

তাঁরা বলছেন, এভাবে পড়ে থাকলে যেকোনো মুহূর্তে খোয়া যেতে পারে প্রতিষ্ঠানের মূল্যবান মালামাল, নষ্ট হয়ে যেতে পারে এসি, জেনারেটর, সিসি ক্যামেরা, লাইট, ফ্যান, সুইচবোর্ড, সৌরবিদ্যুৎ প্যানেলসহ মূল্যবান ইলেকট্রনিকস সামগ্রী। দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রতিষ্ঠানটিতে জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করে উদ্বোধন ও কার্যক্রম চালু করা যেমন জরুরি। তেমনি প্রতিষ্ঠান চালুর আগে প্রধান সড়ক থেকে প্রতিষ্ঠানে প্রবেশের সড়কটি চলাচলের উপযোগী করাও প্রয়োজন।

একাধিক সূত্র জানায়, প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চালু না হওয়ায়, নিজেদের বসার নির্দিষ্ট কোনো আসবাবপত্র না থাকায় নিয়োগপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল ও সহকারী পরিচালক নিয়মিত আসেন না। কোনো নিরাপত্তা প্রহরী বা লোকবল না থাকায় জনমানবশূন্য পড়ে আছে প্রতিষ্ঠানটি। যদিও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ১-২ জন লোক নিজের মালামালের দেখাশোনার জন্য কিছু সময় এখানে থাকেন।

প্রতিষ্ঠানের সহকারী পরিচালক বিদ্যুৎ কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘দ্রুত সময়ের মধ্যে জনবল নিয়োগ করে প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম চালুর জন্য আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিত দিয়েছি। কিন্তু দাপ্তরিক বিভিন্ন জটিলতার কারণে সেটি এখনো কোনো সফলতা পায়নি। আমরা আশা করছি প্রতিষ্ঠানটি দ্রুত সময়ের মধ্যে উদ্বোধনের মাধ্যমে জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে শ্রেণি কার্যক্রম চালু করতে পারব।’