ব্রেকিং:
কেন মানুষ প্রথম প্রেম ভুলতে পারে না বৃষ্টিপাত নিয়ে আজ যে দুঃসংবাদ জানালো আবহাওয়া অফিস আমরা এক দেশপ্রেমিক জননেতাকে হারালাম : প্রধানমন্ত্রী স্কুলে কোরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক করলো পাকিস্তান ধারণার চেয়েও ভয়ঙ্কর করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: সিডিসি আশপাশের শ্রমিকদের দিয়েই চলবে কারখানা হেলেনার বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় আরেক মামলা সিনহা হত্যার এক বছর: ‘প্রদীপের’ নিচেই ছিল অন্ধকার বিশ্বব্যাপী করোনায় মুত্যু কমলেও বেড়েছে আক্রান্ত চালু হতে না হতেই রোগীদের দখলে দুই হাসপাতালের ১৪ আইসিইউ বিশ্বের সাইবার সিকিউরিটির জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি যুক্তরাষ্ট্র: চী বিষ দিয়ে যুবককে হত্যা করলেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন নিয়মনীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে বাফুফের তামাশা, শুরুর এক ঘণ্টা আগে স্থগিত জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকা ব্যক্তিরা টিকা পাবেন বিশেষ প্রক্রিয়ায় দর্শকশূন্য ব্যতিক্রমধর্মী ‘ইত্যাদি’ আজ বাংলাদেশে বিনিয়োগে সর্বোচ্চ মুনাফা কৃষিতে ২৮ হাজার কোটি টাকা ঋণ দেবে ব্যাংকগুলো মাঠ পর্যায় থেকেই ভূমির ভুল রেকর্ড সংশোধনের নির্দেশ সামাজিক মাধ্যমে অপরাধ দমনে সাইবার পেট্রোলিং টিম
  • শনিবার   ৩১ জুলাই ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১৬ ১৪২৮

  • || ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

বস্ত্র বিতরণকালে বৃদ্ধকে ঘুষি মারলেন কাদের মির্জা!

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০২১  

 নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এক অসহায় বৃদ্ধকে ঘুষি মারার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। শুক্রবার, ১৬ জুলাই সকাল ১০টার দিকে ঈদুল আজহা উপলক্ষে তিনি গরিব  ও অসহায় মানুষের মাঝে শাড়ি এবং লুঙ্গি বিতরণের সময় ওই বৃদ্ধকে ঘুষি মারেন কাদের মির্জা। 

বর্তমানে বৃদ্ধকে ঘুষি মারার চুম্বক অংশের ১মিনিট ১৪ সেকেন্ডের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। মেয়রের এমন আচরণে সামাজিক মাধ্যমে বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছেন কাদের মির্জা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকালে পৌর ভবনের নিচে এবং ওপরে কাদের মির্জা পর্যায়ক্রমে ঈদুল আজহা উপলক্ষে লাড়ি-লুঙ্গি বিতরণ করেন।  বিপত্তি বাধে পৌরসভার নিচে শাড়ি বিতরণকালে এক বৃদ্ধের হাতে একটি শাড়ি তুলে দেন কাদের মির্জা। বৃদ্ধ শাড়িটি পরিবর্তন করতে চাইলে কাদের মির্জা ক্ষিপ্ত হয়ে তার বুকে ঘুষি মেরে তাকে সরিয়ে দেন। এ সময় কাদের মির্জার অনুসারীরা শাড়ি-লুঙ্গি বিতরণ অনুষ্ঠানটি ফেসবুকে লাইভ করছিল। অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে বুদ্ধকে ঘুষি মারারা ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে। 

এ বিষয়ে জানতে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

ফেসবুকে রফিকুন বিন তাহের নামে একটি আইডি থেকে লেখা হয়েছে, আমাদের রাষ্ট্র নায়করা কোথায়? উনারা কি এই ভিডিও ক্লিপগুলো দেখেন না। মারওয়ান আল মাংকি নামে একটি আইডি থেকে লেখা হয়েছে, জুলুমের মাত্রা বেড়ে গেলেই এমন হয়। এদের ধ্বংস অনিবার্য। খালেদ সাইফুল্যাহ নামে একটি আইডি থেকে লেখা হয়েছে, “অহংকার পতনের মূল" কথাটা কালে কালে সত্যে রুপান্তরিত হয়েছে, হবে। ডা.হামিদুর রহমান নামে একটি আইডি থেকে লেখা হয়েছে, ভাই আপনার একজন ভক্ত আমি আপনার অনেক প্রশংসা করি।  কিন্তু আজ বুড়া লোকটার সাথে যে ব্যবহার করেছেন তা সারা পৃথিবীসহ সকলে দেখেছে।  সবাই কিন্তু খারাপ বলছে, অল্প থেকেই অনেক বড় হয়ে যায়, (ধৈর্য ধরুন)। রাসেল নোয়াখালী আইডি থেকে লেখা হয়েছে, মানুষকে দোষারোপ করার আগে তাদের দোষারোপ করো যারা যত্রতত্র লাইভ দেয়। একটা জিনিস বিতরণ করতে ধৈর্য হারা হয় অনেকে। যদি লাইভ না থাকতো তাহলে এই ইস্যু হত না।