ব্রেকিং:
বেনাপোল দিয়ে এল আরও ২০০ টন অক্সিজেন আশ্রয়ণ প্রকল্পে শিশুপার্ক উদ্বোধন ও ত্রাণ বিতরণ স্কিপিং রোপে বিশ্ব রেকর্ড করলেন ঠাকুরগাঁওয়ের রাসেল প্রধানমন্ত্রীর ফেলোশিপ পাবেন ৫৫ ব্যক্তি কেন মানুষ প্রথম প্রেম ভুলতে পারে না বৃষ্টিপাত নিয়ে আজ যে দুঃসংবাদ জানালো আবহাওয়া অফিস আমরা এক দেশপ্রেমিক জননেতাকে হারালাম : প্রধানমন্ত্রী স্কুলে কোরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক করলো পাকিস্তান ধারণার চেয়েও ভয়ঙ্কর করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: সিডিসি আশপাশের শ্রমিকদের দিয়েই চলবে কারখানা হেলেনার বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় আরেক মামলা সিনহা হত্যার এক বছর: ‘প্রদীপের’ নিচেই ছিল অন্ধকার বিশ্বব্যাপী করোনায় মুত্যু কমলেও বেড়েছে আক্রান্ত চালু হতে না হতেই রোগীদের দখলে দুই হাসপাতালের ১৪ আইসিইউ বিশ্বের সাইবার সিকিউরিটির জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি যুক্তরাষ্ট্র: চী বিষ দিয়ে যুবককে হত্যা করলেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন নিয়মনীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে বাফুফের তামাশা, শুরুর এক ঘণ্টা আগে স্থগিত জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকা ব্যক্তিরা টিকা পাবেন বিশেষ প্রক্রিয়ায় দর্শকশূন্য ব্যতিক্রমধর্মী ‘ইত্যাদি’ আজ
  • শনিবার   ৩১ জুলাই ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১৬ ১৪২৮

  • || ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

চাটখিলে স্ত্রীর বিচার চেয়ে লন্ডন প্রবাসীর সংবাদ সম্মেলন

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০২১  

নোয়াখালীর চাটখিলে স্ত্রীর বিচার চেয়ে এবং নিজের সম্পত্তি ফিরে পাওয়ার জন্যে সংবাদ সম্মেলন করেছেন হাজী সেলিম নামের এক ইংল্যান্ড প্রবাসী। তিনি শুক্রবার দুপুরে তার বাড়ি উপজেলার সাধুরখিল গ্রামে এই সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তৃব্যে তিনি জানান, জন্মসূত্রে বাংলাদেশী হলেও তিনি একজন ইংল্যান্ডের নাগরিক। ১৯৮৯ সালে নিজ গ্রামের আবদুল কাদেরের বড় কন্যা সুজানা আক্তারকে পারিবারিক ভাবে বিয়ে করেন তিনি। এক পর্যায়ে স্ত্রীকেও ইংল্যান্ডে নিয়ে যান। পরে তার ৩ বোন ও মাকেও ইংল্যান্ডে নিয়ে যেতে সাহায্য করেন। তাদের দাম্পত্ত জীবনে জন্ম নেয়া একমাত্র সন্তান শিখা মনিকে আমেরিকা প্রবাসী পাত্রের সাথে বিয়ে দেয়া হয়। সে বর্তমানে স্বামীর সাথে আমেরিকাতে আছে। ২০০৭ সালের দিকে তার স্ত্রীর সুজানার সাথে হাজী সেলিমের পারিবারিক কলহ তৈরী হয়। নেমে আসে তার ওপর নির্মম অত্যাচার। এক পর্যায়ে সুজানা নানা কৌশলে বাড়ির কাজের লোকদের সহযোগীতায় ওষধ প্রয়োগের মাধ্যমে তাকে অসুস্থ করে ফেলে। তিনি আরো জানান, সে সময়ে তার থেকে জোর পূর্বক স্বাক্ষর নিয়ে তার নামে থাকা ঢাকার মিরপুরে ৬ তলা একটি বাড়ি মিরপুরেই আরেকটা বাড়ির ডেভলাপারদের থেকে পাওয়া ৩ তলা বাড়ি, ইংল্যান্ডে থাকা একটি ফ্ল্যাট, ইংল্যান্ডের ব্যাংকে থাকা দুইজনের যৌথ একাউন্টে থাকা ২০ হাজার পাউন্ড নিজের করে নেয় এবং তাকে নিস্ব করে দেয়। সাথে সর্বশেষ গ্রামে নির্মান করা ৪ কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত বাড়িটিও নিজের করার পায়তারা করতে শুরু করেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন হাজী সেলিম।

তিনি আরো জানান,২০১৭ সালে সে তাকে রেখে তাদের তাদের বাড়িতে থাকা কাজের ছেলে ফারুক হোসেনকে (যে তার স্ত্রীর ২০ বছরের ছোট) বিয়ে করে ফেলে। তারপর থেকে হাজী সেলিমের ওপর অত্যাচারের মাত্রা আরো বাড়তে থাকে। ওরা দুজন মিলে তাকে মৃত্যুর দুয়ারে নিয়ে যায়। তিনি বলেন,আল্লাহর অশেষ রহমতে আমি অলৌকিকভাবে মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে এসেছি। এখন সে আবার মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাকে ফাঁসাতে চাচ্ছে।

সারা জীবন মাথার গাম পায়ে ফেলে কোটি কোটি টাকা আয় করেছি পরিবারকে সূখে রাখতে সে স্ত্রী আজ আমাকে পথে নামিয়ে দিয়েছে। আমি আজ নিঃস্ব। আমি স্ত্রী রুপি এই ডাইনীর উপযুক্ত বিচার চাই দেশ বাসীর কাছে, বাংলাদেশ ও ইংল্যন্ড সরকারের কাছে। আমি আমার কষ্টার্জিত সম্পদ ফিরে পেতে চাই। আর যেনো কোন সুজানারা কোন পুরুষদের এমনভাবে ধ্বংশ করে দিতে না পারে।

সংবাদ সম্মেলনে সে এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা ও হাজী সেলিমের স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।