ব্রেকিং:
কেন মানুষ প্রথম প্রেম ভুলতে পারে না বৃষ্টিপাত নিয়ে আজ যে দুঃসংবাদ জানালো আবহাওয়া অফিস আমরা এক দেশপ্রেমিক জননেতাকে হারালাম : প্রধানমন্ত্রী স্কুলে কোরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক করলো পাকিস্তান ধারণার চেয়েও ভয়ঙ্কর করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: সিডিসি আশপাশের শ্রমিকদের দিয়েই চলবে কারখানা হেলেনার বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় আরেক মামলা সিনহা হত্যার এক বছর: ‘প্রদীপের’ নিচেই ছিল অন্ধকার বিশ্বব্যাপী করোনায় মুত্যু কমলেও বেড়েছে আক্রান্ত চালু হতে না হতেই রোগীদের দখলে দুই হাসপাতালের ১৪ আইসিইউ বিশ্বের সাইবার সিকিউরিটির জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি যুক্তরাষ্ট্র: চী বিষ দিয়ে যুবককে হত্যা করলেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন নিয়মনীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে বাফুফের তামাশা, শুরুর এক ঘণ্টা আগে স্থগিত জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকা ব্যক্তিরা টিকা পাবেন বিশেষ প্রক্রিয়ায় দর্শকশূন্য ব্যতিক্রমধর্মী ‘ইত্যাদি’ আজ বাংলাদেশে বিনিয়োগে সর্বোচ্চ মুনাফা কৃষিতে ২৮ হাজার কোটি টাকা ঋণ দেবে ব্যাংকগুলো মাঠ পর্যায় থেকেই ভূমির ভুল রেকর্ড সংশোধনের নির্দেশ সামাজিক মাধ্যমে অপরাধ দমনে সাইবার পেট্রোলিং টিম
  • শনিবার   ৩১ জুলাই ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১৬ ১৪২৮

  • || ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

হযরত মুহম্মদ (সাঃ) এর বংশধর ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২২ জুন ২০২১  

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিশাল জয় পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন দেশটির শীর্ষ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনেয়ির বন্ধু ডানপন্থী বিচারক সাইয়েদ ইব্রাহিম রাইসি।

মোট গৃহীত ভোটের অর্ধেকের বেশি পেয়ে ৫ বছরের জন্য ইরানের মসনদে বসছেন তিনি।

তবে এর আগে ২০১৭ সালে ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হাসান রুহানির কাছে পরাজিত হয়েছিলেন রাইসি। এবারের নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই তাকে নিয়ে ব্যাপক আলোচনা চলছে। বিভিন্ন জরিপে আগামী প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার নাম উঠে আসে।

মূলত আহমেদিনিজাদের মতো শক্তিশালী প্রার্থীরা আগেই প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়ায় রাইসিই ছিলেন সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থী।

বর্তমান ইরানের প্রধান বিচারপতি এই ইব্রাহিম রাইসি। ৬০ বছর বয়সী রাইসি দেশটির ক্ষমতাসীন সরকারের সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের মধ্যে অন্যতম।

ইরানের সর্বোচ্চ আধ্যাত্মিক নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনেয়ি এবং রাইসির জন্ম একই স্থানে, তথা দেশটির উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় শহর মাশহাদে। খামেনেয়ির মতো না হলেও দেশটির সংখ্যাগুরু শিয়া সম্প্রদায়ের কট্টরপন্থীমহলে তার জনপ্রিয়তা ও গ্রহণযোগ্যতা ব্যাপক।

খামেনেয়ির মতো রাইসিরও দাবি, বিশ্বনবী হযরত মুহম্মদের (সাঃ) বংশধর তিনি। বিশ্বনবীর রক্তসম্পর্কিত উত্তরাধিকার হওয়ার কারণে সবসময় কালো রঙের পাগড়ি পরেন তিনি।

কিন্তু ইরানের গণতন্ত্রপন্থী বলয়ে তার জনপ্রিয়তা বেশ কম। কারণ, আশির দশকে ইরান-ইরাক যুদ্ধের সময় দেশটিতে তৎপর হয়ে উঠেছিলেন গণতন্ত্রপন্থীরা, যারা ক্ষমতাসীন ইসলামী কট্টরপন্থী সরকারের বিরোধী।

যুদ্ধ শেষে রাষ্ট্রবিরোধী তৎপরতার কারণে শত শত গণতন্ত্রপন্থীকে গ্রেফতার করা হয় এবং তেহরানের রেভ্যুলুশনারি আদালত সংক্ষিপ্ত বিচারকাজের পরই তাদের অধিকাংশকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয়।

সে সময় রেভ্যুলুশনারি আদালতের প্রধান বিচারক ছিলেন রাইসি। আর ওই বিচার প্রক্রিয়ার পরই খামেনেয়ির আস্থাভাজন হিসেবে উত্থান ঘটে তার। ২০১৯ সালে ইরানের গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংস্থা আস্তান কুদস রাজাভি ফাউন্ডেশনের প্রধান হিসেবে রাইসিকে নিয়োগ দেন খামেনেয়ি।

ইরানের শিয়া মুসলিমদের কাছে পবিত্র তীর্থ বলে বিবেচিত ইমাম রেজার মাজারের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি দাতব্য কার্যক্রম ও দেশের অধিকাংশ কোম্পানি পরিচালনাও করে থাকে এই ফাউন্ডেশন।

তিন বছর মোটামুটি সফলভাবে আস্তান কুদস রাজাভি ফাউন্ডেনের নেতৃত্ব দেয়ার পর ২০১৯ সালে তাকে বিচার বিভাগের প্রধান পদে নিয়োগ দেন খামেনেয়ি। এ পদে থাকার সময় দুর্নীতির বিরু’দ্ধে দৃঢ় অবস্থান নেয়ায় দেশের অভ্যন্তরে জনপ্রিয়তা বেশ বাড়ে তার।