ব্রেকিং:
টেলিটকে ফাইভ-জির গতি উঠলো সেকেন্ডে ১৫১২ এমবিপিএস ভোটকেন্দ্রে টাকা দিতে মেয়রের জোরাজুরি, নিল না পুলিশ আগামী দুই অধিবেশনের মধ্যে ইসি গঠনের আইন আসছে: আইনমন্ত্রী স্থায়ী কমিটির ভূমিকায় সন্দিহান বিএনপির কর্মীরা দীঘিনালায় ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়িতে হামলা, ১৬ জন আহত আজও রাস্তায় শিক্ষার্থীরা, চেক করছে ড্রাইভিং লাইসেন্স ওমিক্রন নিয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন: ডব্লিউএইচওর প্রধান বিজ্ঞানী কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে সরকার সচেষ্ট: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী খালেদার চিকিৎসা নিয়ে নেতা-চিকিৎসকদের সমন্বয়হীনতায় ক্ষুব্ধ তারেক বৈদেশিক বিনিয়োগে বাংলাদেশের গুরুত্ব দিন দিন বাড়ছে: প্রধানমন্ত্রী জাল ভোট দিতে এসে ধরা, ছয় মাসের জেল ইয়াবা দেখে ফেলায় সহপাঠীকে নৃশংস হত্যা সমুদ্র দূষণে শাস্তি বাড়িয়ে সংসদে বিল পাস পুরুষশূন্য কেন্দ্রে নারীদের দীর্ঘ সারি বাংলাদেশের নারীরা সারাবিশ্বে নিজেদের যোগ্যতার পরিচয় দিচ্ছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ১ জানুয়ারি, মিলবে বিআরটিসি বাস সার্ভিস ৮৩ শতাংশ নারীই মনে করেন ‘বউ পেটানো ঠিক’ ঢাকায় বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দেহব্যবসা করে চালিয়েছেন পড়াশোনা, জিতেছেন সুন্দরী প্রতিযোগিতায় যে কারণে পেছাল আবরার হত্যা মামলার রায়
  • সোমবার   ২৯ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৮

  • || ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

দড়ি লাফের আশ্চর্য সব গুণ

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২১  

শরীরকে সুস্থ রাখতে নিয়মিত ব্যায়াম অপরিহার্য। আর ভালো ব্যায়াম হিসেবে বিবেচিত হতে পারে ‘দড়ি লাফ’। হাঁটা, দৌড়ানো বা সাইকেল চালানোর চেয়ে দড়ি লাফে মিলবে বেশি উপকার।

স্কিপিং বা দড়ি লাফ আবহমান কাল থেকে গ্রাম বাংলার জনপ্রিয় খেলাগুলোর একটি। আজকাল শহরের মানুষও সুস্থতার প্রয়োজনে দড়ি লাফের অভ্যাস সৃষ্টি করছে।

চলুন জেনে নেই, দড়ি লাফের আশ্চর্য কিছু গুণ

দেহের ক্যালরি পোড়ায়

ক্যালরি পুড়িয়ে শরীর সুস্থ রাখাতেই আমরা ব্যায়াম করি। আর ক্যালরি তখনই পোড়ে, যখন ব্যায়ামের কারণে শরীর গরম হয়ে ওঠে। অন্য ব্যায়ামের চেয়ে দড়ি লাফে বেশি ক্যালরি পোড়ে। 

অতিরিক্ত ওজন ও পেট কমাতে

মাত্র ৩০ মিনিট দড়ি লাফিয়ে আপনি ৪৫০ ক্যালোরি পোড়াতে পারেন। মাত্র ১০ মিনিট দড়ি লাফাতে আপনার যে পরিশ্রম হয়, তা মাত্র ৮ মিনিটে ১ মাইল দৌড়ানোর সমান। পুরো শরীরের অতিরিক্ত ওজন বা পেট যেটাই কমাতে চাইলে তা নিয়মিত দড়ি লাফের মাধ্যমে সম্ভব।

শরীরকে করে তোলে ভারসাম্যপূর্ণ

দড়ি লাফের সময় শরীরের বেশিরভাগ পেশিই কাজ করে। ফলে শরীরের মাংসপেশীর গঠন সুন্দর ও দৃঢ় হয়। স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাসে সহায়তা করে।রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। ইতিবাচক মানসিকতা তৈরিতে সহায়তা করে। ভারসাম্যপূর্ণ করে তোলে দেহকে। মানসিকতা নেতিবাচক থাকলে, তা হয়ে উঠবে ইতিবাচক।

হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়

দড়ি লাফে হৃৎপিণ্ডে রক্ত সঞ্চালন বাড়ে। এটি কার্ডিওভাসকুলার ব্যবস্থা ও হৃৎপিণ্ডকে সুস্থ রাখে। দড়ি লাফের ফলে ব্যায়ামকারীর শরীরে ‘ভিওটু ম্যাক্স’ বাড়ে। ভিওটু ম্যাক্স হলো একজন ব্যক্তির ব্যায়ামের সময় শরীরে সর্বোচ্চ যে পরিমাণ অক্সিজেন ব্যবহার করতে পারে, তার পরিমাণ। যার ভিওটু ম্যাক্স যত বেশি হবে, তার কার্ডিওভাসকুলার ব্যবস্থার সক্ষমতা তত বেশি হবে। এর সবই হৃৎপিণ্ডকে সুস্থ রাখতে প্রভাব ফেলে।

হাড় মজবুত করে

দড়ি লাফে শরীরের হাড় মজবুত হয়। হাড়ের পুরুত্ব নির্ধারণ করে। হাড়ের পুরুত্ব বেশি হলে বৃদ্ধ বয়সে অস্টিয়োপরোসিস রোগের ঝুঁকি কমে। এক গবেষণায় উল্লেখ করা হয়েছে নিয়মিত দড়ি লাফ এই রোগের ঝুঁকি কমিয়ে দেয়। ১১ থেকে ১৪ বছর বয়সী কিশোরীদের মধ্যে যারা নিয়মিত দড়ি লাফ করে, তাদের শরীরের হাড়ের পুরুত্ব অন্যদের চেয়ে বেশি। দুর্বল হাড়ের ব্যক্তিরাও দড়ি লাফ থেকে উপকার পেতে পারে। তবে এটি শুরু করার আগে তাদের অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

তাই আজই  আপনার নিত্যদিনের চর্চার তালিকায় যোগ করতে পারেন দড়ি লাফ।