ব্রেকিং:
মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র থেকে প্রসূতিকে বের করে দিলেন আয়া,অতঃপর . মাদরাসায় বাংলায় সাইনবোর্ড স্থাপনের নির্দেশ সরকার সবার জন্য নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন নিশ্চিত করছে দেশে খাদ্য ঘাটতির সম্ভাবনা নেই: খাদ্যমন্ত্রী নতুন স্ন্যাপড্রাগন আসছে এ সপ্তাহেই ১৮ মাসের কাজ শেষ হয়নি ৬২ মাসেও অ্যান্টিবায়োটিক চেনাতে চিহ্ন ব্যবহারের সিদ্ধান্ত সরকারের ফেসবুক পোস্টে ‘হা হা’ দেওয়ায় ব্যাপক ভাঙচুর, পুলিশ মোতায়েন নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, গলায় পোড়া দাগ গরু-ছাগলের মাংসে যক্ষ্মার জীবাণু শনাক্ত টানা ২৮ দিন করোনায় মৃত্যুশূন্য দেশ, কমলো শনাক্ত বন্যার্তদের দুঃসময়ে সরকার পাশে রয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাক্তন স্বামীর হামলায় আহত চিকিৎসক স্ত্রী ডাইনিং বন্ধ, হোটেলে উচ্চমূল্য: বিপাকে কুবি শিক্ষার্থীরা দূষণে বছরে ৯০ লাখ মানুষের প্রাণহানি: গবেষণা ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে ৩৭৫২ বেসামরিক নাগরিকের মৃত্যু ‘শুধু চোর নয়, চোরাই মোবাইল বিক্রেতারাও গ্রেফতার হবে’ কক্সবাজারে অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণ নয়: প্রধানমন্ত্রী চরাঞ্চলের জনগণের ক্ষুধা-দারিদ্র্য হ্রাসে প্রকল্প নেয়া হয়েছে
  • বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৯

  • || ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

মাইক্রোসফটে ডাক পেলেন কুবির রাজীব

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১০ মে ২০২২  

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম শিক্ষার্থী হিসেবে মাইক্রোসফটে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন রাজীব চন্দ্র পাল।

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক কম্পিউটার প্রযুক্তি কর্পোরেশন মাইক্রোসফটে কাজ করার সুযোগ পেলেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এই শিক্ষার্থী। 

তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। 

গত ২৯ এপ্রিল মাইক্রোসফটের অফিশিয়াল মেইল থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। আগামী ১৫ অক্টোবর মাইক্রোসফট কর্পোরেশনের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনে মাইক্রোসফট রিসার্চ সেন্টারে যোগদান করবেন। 

মাইক্রোসফটে কাজের সুযোগ পাওয়াকে জীবনের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি মনে করছেন রাজীব। অনুভূতি প্রকাশ করে তিনি বলেন, সবসময় চেয়েছি বিশ্বের বড় বড় কোম্পানিগুলোতে কাজ করার। আমরা যারা ইঞ্জিনিয়ারিং সাবজেক্ট গুলোতে পড়াশোনা করি তাদের লক্ষ্য থাকে গ্লোগল, মাইক্রোসফট, ফেসবুকের মতো বিশ্বের বড় বড় কোম্পানিগুলোতে কাজ করা। আমি সেটা পেয়েছি, যা আমার জীবনের লক্ষ্য ছিলো। আমি খুবই সৌভাগ্যবান। 

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমাদের অনেকেই কোডিং, সফটওয়্যার ভিত্তিক কাজগুলো করতে চাই। কিন্তু এক্ষেত্রে প্রধান বাধা হল ভয়। আমিও ভয়ে পেয়েছি শুরুতে কিন্তু এগুলো কোন বিষয় নয়। আমার জানা মতে কুবির অনেকে আছেন, যারা সফটওয়্যার ভিত্তিক বিভিন্ন অফিসে কাজ করার ক্ষমতা রাখে। তাদের সে দক্ষতা আছে, শুধু প্রসেস জানাটা জরুরি।

প্রথম শিক্ষার্থী হিসেবে রাজীবের মাইক্রোসফটে যোগদানের খবরে উচ্ছ্বাসিত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। রাজীবের বিভিন্ন প্রজেক্টের সাবেক টিমমেট ও সিএসই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক খলিল আহমেদ বলেন, রাজীব পালের মধ্যে শুরু থেকে কোডিং করার আগ্রহ দেখতে পাই আমরা। সে শুরু থেকে প্রচন্ড পরিশ্রমী ছিলো। কোডিং শেখার, জানার চেষ্টা করেছেন, স্কিল ডেভেলপমেন্ট করেছেন এবং আজকে সফল হয়েছেন। রাজীব প্রমাণ করেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও মাইক্রোসফট, গ্লোগলে কাজ করা সম্ভব। আগামীতে কুবির সিএসই বিভাগ আরও সুখবর নিয়ে আসবে।