ব্রেকিং:
টেলিটকে ফাইভ-জির গতি উঠলো সেকেন্ডে ১৫১২ এমবিপিএস ভোটকেন্দ্রে টাকা দিতে মেয়রের জোরাজুরি, নিল না পুলিশ আগামী দুই অধিবেশনের মধ্যে ইসি গঠনের আইন আসছে: আইনমন্ত্রী স্থায়ী কমিটির ভূমিকায় সন্দিহান বিএনপির কর্মীরা দীঘিনালায় ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়িতে হামলা, ১৬ জন আহত আজও রাস্তায় শিক্ষার্থীরা, চেক করছে ড্রাইভিং লাইসেন্স ওমিক্রন নিয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন: ডব্লিউএইচওর প্রধান বিজ্ঞানী কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে সরকার সচেষ্ট: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী খালেদার চিকিৎসা নিয়ে নেতা-চিকিৎসকদের সমন্বয়হীনতায় ক্ষুব্ধ তারেক বৈদেশিক বিনিয়োগে বাংলাদেশের গুরুত্ব দিন দিন বাড়ছে: প্রধানমন্ত্রী জাল ভোট দিতে এসে ধরা, ছয় মাসের জেল ইয়াবা দেখে ফেলায় সহপাঠীকে নৃশংস হত্যা সমুদ্র দূষণে শাস্তি বাড়িয়ে সংসদে বিল পাস পুরুষশূন্য কেন্দ্রে নারীদের দীর্ঘ সারি বাংলাদেশের নারীরা সারাবিশ্বে নিজেদের যোগ্যতার পরিচয় দিচ্ছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ১ জানুয়ারি, মিলবে বিআরটিসি বাস সার্ভিস ৮৩ শতাংশ নারীই মনে করেন ‘বউ পেটানো ঠিক’ ঢাকায় বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দেহব্যবসা করে চালিয়েছেন পড়াশোনা, জিতেছেন সুন্দরী প্রতিযোগিতায় যে কারণে পেছাল আবরার হত্যা মামলার রায়
  • সোমবার   ২৯ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৮

  • || ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

‘সরকার উচ্চশিক্ষায় কোয়ালিটি এডুকেশন নিশ্চিত করতে চায়’

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২১ নভেম্বর ২০২১  

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, সরকার উচ্চশিক্ষায় কোয়ালিটি এডুকেশন নিশ্চিত করতে চায়। সব কলেজ অনার্স-মাস্টার্স দরকার নেই। এর মানে আমরা উচ্চশিক্ষাটাকে সংকোচন করতে চাই না, এটাকে রিস্ট্রাকচারিং করতে চাই। কারণ চাকরিদাতা এবং চাকরি প্রত্যাশী এদের চাওয়া-পাওয়ার মধ্যে বিস্তর ফারাক রয়েছে। এটাকে কমাতে চাই।

শনিবার (২০ নভেম্বর) রংপুরে পুলিশ লাইন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজ মিলনায়তনে ‘শিক্ষা ব্যবস্থাপনা ও শিক্ষার মানোন্নয়ন’ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। রংপুর অঞ্চলের অধিভুক্ত কলেজ অধ্যক্ষদের সঙ্গে কর্মশালার আয়োজন করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। 

এতে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান। প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। কর্মশালায় রংপুর অঞ্চলের ২৪৭টি কলেজের অধ্যক্ষরা অংশগ্রহণ করেন।

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমান সময়ের চাহিদা মাথায় রেখেই প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে কোর্স-কারিকুলাম তৈরি করা হচ্ছে। এটি যখন চালু হবে, তখন বড় পরিবর্তন আমরা দেখতে পাবো। চাহিদার উপর ভিত্তি করে উচ্চশিক্ষার কারিকুলামও তৈরি করতে হবে। নতুন কারিকুলাম তৈরিতে ইন্ডাস্ট্রির চাহিদা মাথায় রাখতে হবে। 

সভাপতির বক্তব্যে ভিসি প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান বলেন, আমরা শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত করতে চাই, কিন্তু সর্বাগ্রে শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক সবার মধ্যে করণীয় কী সেই বার্তাটা পৌঁছে দেয়া জরুরি। কারণ আমাদের সামনে এখন আর কথার কথা বলর অবকাশ নেই। এখন সময় ইমপ্লিমেন্টেশনের। যেটা এখন করা দরকার- সেটা এখনই, পরে নয়। যে জাতি রাষ্ট্রের সৃষ্টিতে ৩০ লাখ শহীদ এবং ২ লাখ মা বোনের সম্ভ্রমহানি ঘটেছে, সেই দেশ মাতৃকাকে গড়ে তোলার পবিত্র দায়িত্ব সবার। এটি অন্য জাতি রাষ্ট্রের মতো নয়। আমাদের যে রক্তের ঋণ রয়েছে! এই জাতিরাষ্ট্রের প্রতিটি নাগরিক যেন মানবিক, কল্যাণকর, ধর্মনিরপেক্ষ হয় সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সেটি আমাদের নিশ্চিত করতে হবে।

শিক্ষার মানোন্নয়নে গবেষণার বিকল্প নেই উল্লেখ করে ভিসি আরো বলেন, শিক্ষার মান নিশ্চিতে গবেষণা আবশ্যক। সেই গবেষণা দেশজ সংস্কৃতি, মূল্যবোধ এবং সমাজকে ধারণ করে করতে হবে। তা না হলে সেটি ফলপ্রসূ হবে না। গবেষণায় বরাদ্দ কোন সমস্যা নয়। আমরা প্রয়োজনে আরও বরাদ্দ গবেষণায় বাড়াবো। কিন্তু কোয়ালিটি গবেষণা আমাদের করতে 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মোল্লা মাহফুজ আল-হোসেনের সঞ্চালনায় কর্মশালায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর আবদুস সালাম হাওলাদার, স্নাতকোত্তর শিক্ষক প্রশিক্ষণ ও গবেষণা কেন্দ্রের ডিন প্রফেসর ড. মো. আনোয়ার হোসেন, স্নাতকপূর্ব শিক্ষা বিষয়ক স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. নাসির উদ্দিন, কারিকুলাম উন্নয়ন ও মূল্যায়ন কেন্দ্রের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ বিন কাশেম।