ব্রেকিং:
ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য নিকলীর বিকল্প বিজয়নগর বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা শান্তিপূর্ণভাবে দুর্গোৎসব সম্পন্ন প্রশংসায় ভাসছেন নোয়াখালী এসপি দল থেকে বিদায় নেওয়ার জন্য আমি প্রস্তুত : শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন বিকেলে কুমিল্লায় চেয়ারম্যানের গাড়িতে গুলি আফ্রিকায় শান্তিরক্ষা মিশনে প্রাণ গেল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জসিমের নভেম্বরের শেষের দিকে জাপান সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী টিকার বুস্টার ডোজ পেলেন সাড়ে ৫ কোটির বেশি মানুষ সন্ধ্যার মধ্যে ন্যাশনাল গ্রিড চালু করার চেষ্টা করছি সরকারি সফরে সুইজারল্যান্ড যাচ্ছেন সেনাবাহিনী প্রধান ঢাকায় আসছেন ব্রুনাইয়ের সুলতান মোবাইলের লক খুলতে গিয়েই ধরা পড়ল ডাকাত প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরেছেন সুবর্ণচরে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বসতভিটা দখলের অভিযোগ দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৩ মাস বাড়বে না ভোজ্যতেলের দাম টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ টার্মিনাল ছাড়া মহাসড়কে টোল আদায় করা যাবে না যৌনপল্লী চালান বিজেপি নেতা!
  • শনিবার   ০৮ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২৩ ১৪২৯

  • || ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সুস্থ মানবসম্পদ ছাড়া এগোনো সম্ভব নয়: ডেপুটি স্পিকার

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২  

ডেপুটি স্পিকার মো. শামসুল হক টুকু বলেছেন, সুস্থ মানবসম্পদ ছাড়া উন্নয়নের মহাসড়কে এগোনো সম্ভব নয়। 

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জীবনভর স্বপ্ন দেখে গেছেন একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের। যে দেশের মানুষ  ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত, সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হয়ে একটি সুন্দর জাতি গঠনের মাধ্যমে মর্যাদার সঙ্গে মাথা উঁচু করে এগিয়ে যাবে। তিনি স্বাস্থ্য খাতের গুরুত্ব অনুধাবন করেই সংবিধানে মৌলিক অধিকারের মধ্যে স্বাস্থ্যকে অন্তর্ভুক্ত করেছিলেন।

বুধবার রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সের সভাকক্ষে বিশ্ব অ্যালঝেইমার দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন ডেপুটি স্পিকার।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সের পরিচালক অধ্যাপক ডা. কাজী দ্বীন মোহাম্মদের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডা. পরিতোষ কুমার সরকার। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক ডা. মালিহা হালিম, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সের যুগ্ম পরিচালক অধ্যাপক ডা. বদরুল আলম।

ডেপুটি  স্পিকার বলেন, অ্যালঝেইমার (স্মৃতি ভ্রষ্টতা) রোগটি এখন অনেক বেশি শনাক্ত হচ্ছে। এ রোগ প্রতিকারে চিকিৎসা নেয়া আবশ্যক। সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও ডাক্তাররা যত্মের সঙ্গে এসব রোগের চিকিৎসা দিয়ে থাকেন। এ সময় তিনি এ রোগ সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন। বিভাগীয় শহর, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে এর প্রতিকারের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আবশ্যকতা রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের মোট সাতটি বিভাগের ওপর অ্যালঝেইমা নিয়ে গবেষণার সচিত্র প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

তিনি দেশের মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য এ সচিত্র প্রতিবেদনটি শহর, জেলা-উপজেলা পর্যায়ে উপস্থাপন করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন।