ব্রেকিং:
টেলিটকে ফাইভ-জির গতি উঠলো সেকেন্ডে ১৫১২ এমবিপিএস ভোটকেন্দ্রে টাকা দিতে মেয়রের জোরাজুরি, নিল না পুলিশ আগামী দুই অধিবেশনের মধ্যে ইসি গঠনের আইন আসছে: আইনমন্ত্রী স্থায়ী কমিটির ভূমিকায় সন্দিহান বিএনপির কর্মীরা দীঘিনালায় ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়িতে হামলা, ১৬ জন আহত আজও রাস্তায় শিক্ষার্থীরা, চেক করছে ড্রাইভিং লাইসেন্স ওমিক্রন নিয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন: ডব্লিউএইচওর প্রধান বিজ্ঞানী কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে সরকার সচেষ্ট: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী খালেদার চিকিৎসা নিয়ে নেতা-চিকিৎসকদের সমন্বয়হীনতায় ক্ষুব্ধ তারেক বৈদেশিক বিনিয়োগে বাংলাদেশের গুরুত্ব দিন দিন বাড়ছে: প্রধানমন্ত্রী জাল ভোট দিতে এসে ধরা, ছয় মাসের জেল ইয়াবা দেখে ফেলায় সহপাঠীকে নৃশংস হত্যা সমুদ্র দূষণে শাস্তি বাড়িয়ে সংসদে বিল পাস পুরুষশূন্য কেন্দ্রে নারীদের দীর্ঘ সারি বাংলাদেশের নারীরা সারাবিশ্বে নিজেদের যোগ্যতার পরিচয় দিচ্ছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ১ জানুয়ারি, মিলবে বিআরটিসি বাস সার্ভিস ৮৩ শতাংশ নারীই মনে করেন ‘বউ পেটানো ঠিক’ ঢাকায় বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দেহব্যবসা করে চালিয়েছেন পড়াশোনা, জিতেছেন সুন্দরী প্রতিযোগিতায় যে কারণে পেছাল আবরার হত্যা মামলার রায়
  • সোমবার   ২৯ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৮

  • || ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

দায়িত্ব নেয়ার পরই পদত্যাগ করলেন সুইডেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর ২০২১  

ইউরোপের দেশ সুইডেনের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের মাত্র সাড়ে সাত ঘণ্টার মাথায় পদত্যাগ করছেন ম্যাগদালিনা অ্যান্ডারসন।

ক্ষমতাসীন জোটের শরিক গ্রিন পার্টি বুধবার সকালে সমর্থন দিয়ে বিকেলে তা প্রত্যাহার করায় পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

বৃটিশ পত্রিকা ইন্ডিপেন্ডেন্ট এর প্রতিবেদনে বলা হয়, এক সংবাদ সম্মেলনে ম্যাগদালিনা অ্যান্ডারসন বলেন- আমার জন্য এটা সম্মানের, তবে আমি এমন কোনো সরকারকে নেতৃত্ব দিতে চাই না যার বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার মতো কারণ থাকতে পারে।

উল্লেখ, বুধবার সুইডেনের পার্লামেন্ট অর্থমন্ত্রী ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসনকে দেশটির প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অনুমোদন দিয়েছিল। তিনি সম্প্রতি সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির নতুন নেতা নির্বাচিত হন।

দলটির নেতা এবং প্রধানমন্ত্রীর পদে স্টিফান লোফভেনের জায়গায় অ্যান্ডারসনকে বেছে নেয়া হয়েছিল। চলতি বছরের শুরুতে লোফভেন দায়িত্ব ছেড়ে দেন। এই পদক্ষেপকে সুইডেনের জন্য একটি মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে।

দেশটিকে কয়েক দশক ধরে নারী-পুরুষের সমতার ক্ষেত্রে ইউরোপের সবচেয়ে প্রগতিশীল দেশগুলোর মধ্যে একটি হিসেবে দেখা হয়। তবে দেশটির শীর্ষ রাজনৈতিক পদে এখন পর্যন্ত কোন নারী নেই। লোফভেনের সরকার নিজেদের নারীবাদী হিসেবে বর্ণনা করে। সরকারটি নারী-পুরুষের সমতাকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক কাজের কেন্দ্রে রাখে।