ব্রেকিং:
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ ‘স্বল্প সংখ্যক’ যাত্রী নিয়ে ৩১ মে থেকে চলবে বাস-ট্রেন-লঞ্চ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফ্লাইট চালুর প্রস্তুতি করোনা ও অন্য রোগীদের আলাদা চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন শিল্পপ্রতিষ্ঠানসমূহকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে আরও ২ হাজার চিকিৎসক নেওয়ার পরিকল্পনা সংক্রমণ ঝুঁকিমুক্ত বিশেষ চিকিৎসা বুথ তৈরি ছুটি আর বাড়ছে না, ৩১ মে থেকে অফিস শুরু দুর্গম খাসিয়া পুঞ্জিতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন শেখ হাসিনা করোনায় সংক্রমিত পৌরসভার পিয়ন ফকির সুবর্ণচরে সরকারি চাল জব্দ, ডিলার পলাতক, ক্রেতার জরিমানা নোয়াখালীতে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩ জনের মৃত্যু নোয়াখালীতে ডোবায় মিলল ব্যবসায়ীর লাশ হাতিয়া উপকূলে নতুন প্রজাতি আবিষ্কার করলেন নোবিপ্রবি শিক্ষক ফেনীতে মিলে আগুন! লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি শুধু যোদ্ধাই নয়, হাতে ওদের নতুন পৃথিবীও করোনার নমুনা সংগ্রহে ‘ভিটিএম কিট’ তৈরি হলো দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন কোনো ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়নি করোনা জয় করলেন ১১১৯ পুলিশ সদস্য
  • বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

২৫

সামাজিক দূরত্ব না মেনে মার্কেটগুলোতে বেচাকেনার ধুম

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২০  

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সরকারিভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার লক্ষ্যে প্রশাসনের নানা পদক্ষেপের পরও সোনাগাজীতে তা মানা হচ্ছে না। সারাদেশে রোববার থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শর্তসাপেক্ষে দোকানপাট খোলার সিদ্ধান্ত দেওয়ার পর থেকে সোনাগাজী পৌরশহরসহ উপজেলার সবকটি বাজারে বেচাকেনার ধুম পড়েছে। প্রতিটি শপিং মল, বিপনী বিতানসহ দোকানগুলোতে মানুষের উপছে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। কোথাও কোনো ধরণের স্বাস্থ্য বিধি ও সামাজিক দূরত্বে বালাই নেই।

পৌর শহরসহ আশপাশের কয়েকটি বাজারে সরেজমিনে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়। তবে পৌরশহরসহ উপজেলার কোনো শপিংমল, বিপনী বিতানসহ বাজারগুলোতে নিরাপত্তা হিসেবে হাত ধোয়ার কোনো ব্যবস্থা দেখা যায়নি। গতকাল পৌর শহরের মানিক মিয়া প্লাজা, এনায়েত শপিং কমপ্লেক্স, রাকিব প্লাজা, শেখ মোয়াজ্জেম হোসেন ও শেখ বেলায়েত হোসেন মার্কেট, রজনীগন্ধা, সমাগম, উপজেলার ওলামাবাজার, বক্তারমুন্সি বাজার, মতিগঞ্জ, রিয়াজ উদ্দিন মুন্সির হাট, আমিন উদ্দিন মুন্সির হাট, সোনাপুর, ভোরবাজার, তাকিয়া বাজার, কুঠিরহাট, কাজীর হাট, কারামতিয়াসহ আরও বেশ কিছু বাজার ঘুরে সাধারণ দোকানপাট ও শপিংমল গুলোতে বেচাকেনা হতে দেখা যায়। পাইকারি পণ্য বিক্রির দোকানসহ সব ধরনের দোকানপাট খোলা রয়েছে। মানুষের মধ্যে করোনার কোনো ধরনের ভীতি নেই। সড়কে ও বাজারগুলোতে মানুষের জীবন যাপন মনে হচ্ছে স্বাভাকিব ভাবে চলছে। আবার অনেকে মুখে মাস্কও দেখা যায়নি। উপজেলার আভ্যন্তরিক সব সড়কে যাত্রী পরিবহন ও মালবাহী গাড়ি অবাধে চলাচল করছে। প্রশাসন ও সকারের নির্দেশনা মনে হচ্ছে কারও কানে যাচ্ছে না। পৌর শহরের কয়েকজন বিক্রেতার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত তিনদিন ধরে তাদের মার্কেটের সব দোকান খোলা রয়েছে। বেচাকেনাও ভালো চলছে। তবে বেশিরভাগ দোকানে নতুন মালের সংকট থাকায় ক্রেতাদের আকৃষ্ট করা যাচ্ছে না। তারপরও ক্রেতারা নির্বিঘ্নে কেনাকাটা করছেন।

উপজেলার কারামতিয়া বাজারে আসা সালেহা খাতুন নামে এক নারীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সামাজিক দূরত্ব কি তা তিনি জানেন না। রোগ ধরলে মরলে মরে যাব। কেউ বাঁচাতে পারবে না। একদিনতো সবাইকে মরতে হবে। দেশে করোনা না করোলা এসেছে বাড়ির অনেকে বলে শুনেছি। এসব তাদের এলাকায় নেই।

পৌর শহরের খলিলুর রহমান নামে এক কাপড় ব্যবসায়ী বলেন, সরকারিভাবে দোকানপাট খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর থেকে তিনি দোকান খুলে বেচাকেনা করছেন। এতে কোন সমস্যা হচ্ছে না। ক্রেতাদের কাছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে জিনিস বিক্রি করার চেষ্টা করছেন

সোনাগাজী জুয়েলারি ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন বলেন, ১০ মে থেকে সারাদেশে স্বল্প পরিসরে শর্তসাপেক্ষে দোকানপাট খোলা হলেও দেশে বেশিরভাগ জায়গায় বড়বড় মার্কেট ও বিপনী বিতানগুলো বন্ধ রয়েছে। তারাও জনস্বার্থে অন্তত ঈদ পর্যন্ত পৌরশহরের নিত্যপণ্য ও ওষুধ দোকান ছাড়া অন্যান্য দোকান বন্ধ রাখাতে চেয়েছেন। কিন্তু সকল ব্যবসায়ী একমত না হওয়ায় সেটা সম্ভব হচ্ছে না।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম ফেনীর সময় কে বলেন, করোনার সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার লক্ষ্যে পুলিশের পক্ষ থেকে প্রতিটি বাজারে মাইকিং করা হচ্ছে। পুলিশ কর্মকর্তারা এলাকায় গিয়ে জনগনকে বুঝাতে চেষ্টা করছেন। কিন্তু ভয় না থাকায় কোনো ভাবে মানুষ তা মানছেন না। সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে প্রয়োজনে পুলিশ কঠোর হতে বাধ্য হবে।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব বলেন, তিনি নিজে মাঠে গিয়ে জনগনকে সর্তক করছেন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্য বিধি মেনে ব্যবসা করার জন্য। এর ব্যতিক্রম ঘটলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনসহ দোকানপাট বন্ধ করে দেবেনতিনি বলেন, জনস্বার্থে খাদ্যপণ্য ও ওষুধ দোকান ছাড়া অন্যান্য সব দোকানপাট বন্ধ করনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহনের জন্য উপজেলার সব জনপ্রতিনিধি ও ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতাদের নিয়ে বৈঠক করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে

নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর