ব্রেকিং:
পর্যায়ক্রমে দেশের সবাইকে টিকার আওতায় নিয়ে আসা হবে: প্রধানমন্ত্রী চাঁদ দেখা গেছে, কাল থেকে রোজা করোনায় আক্রান্ত হলে কতদিন পর টিকা নিতে পারবেন নিত্যপণ্য পরিবহনে সহায়তায় মন্ত্রণালয়ের হটলাইন চালু লকডাউনে বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংক খুলতে নির্দেশ জেলেদের জন্য ৩১ হাজার মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ আগামীকাল থেকে সর্বাত্মক লকডাউনে যাচ্ছে দেশ দেশে একদিনে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু কমেছে রমজানে বেঁধে দেওয়া হলো ৬ পণ্যের দাম এলপিজি সিলিন্ডারের দাম নির্ধারণ টিকা কিনতে বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে ৪৩৩০ কোটি টাকার ঋণচুক্তি সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী থানাসহ গুরুত্বপূর্ণ সরকারি স্থাপনায় নিরাপত্তা জোরদার লকডাউনে চলাচল করতে ‘মুভমেন্ট পাস’ নেবেন যেভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদনে নতুন রেকর্ড গড়ল দেশ এটিএম বুথ থেকে তোলা যাবে এক লাখ টাকা লকডাউনে খাদ্য সহায়তা পাবে সোয়া কোটি দরিদ্র পরিবার মিরাজের মেডিকেলে ভর্তির দায়িত্ব নিলেন নোয়াখালীর ডিসি মাস্ক নিতে অস্বীকৃতি, যুবককে মারধর মসজিদে তারাবিসহ সব নামাজে সর্বোচ্চ ২০ জন
  • মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪২৮

  • || ০১ রমজান ১৪৪২

সরকারী ভূমি গাছ কাটায় মেম্বারকে ম্যাজিষ্ট্রেটে দিলেন চেয়ারম্যান

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১ এপ্রিল ২০২১  

সোনাগাজীতে সরকারী গাছ ও মাটি কাটায় রমজান আলী নামের এক ইউপি সদস্য (মেম্বার) কে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারকের হাতে তুলে দিয়েছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রবিউজ্জামান বাবু। বৃহস্পতিবার দুপুরে পরিচালিত এ অভিযানের সময় মাটি কাটার কাজে ব্যবহৃত একটি স্ক্যাভেটর জব্দ করেন আদালত।

ভ্রাম্যমান আদালত ও স্থানীয়রা জানায়, বেশ কয়েকদিন যাবত সোনাগাজী উপজেলার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের পালগীরি গ্রামের বদর মোকাম খালের পাড়ের মাটি ও গাছ কেটে বিক্রি করে দিচ্ছেন পাশ্ববর্তী চর দরবেশ ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড সদস্য (মেম্বার) রমজান আলীসহ একটি চক্র। বিষয়টি জানতে পেরে বৃহস্পতিবার দুপুরে সোনাগাজী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জাকির হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা দেখতে পান। এক পর্যায়ে মতিগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান রবিউজ্জামান বাবু অভিযুক্ত মেম্বারকে বাড়ী থেকে ডেকে এনে ভ্রাম্যমান আদালতের হাতে সোপর্দ করেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জাকির হোসেন জানান, অভিযুক্ত ইউপি সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনায় নিজের দোষ স্বীকার করে অনুতপ্ত হয়েছে। আগামীতে এ ধরনের কোন কাজ সে করবেনা বলে মুছলেকা দিলে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।