ব্রেকিং:
চট্টগ্রামে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণের পর ভবন ধস: নিহত ৭, আহত ২৫ বেসরকারি চাকরি প্রত্যাশীদেরও ডোপ টেস্ট পেঁয়াজ পৌঁছবে দু’এক দিনের মধ্যে: প্রধানমন্ত্রী টনে টনে নষ্ট পেঁয়াজ ফেলে দিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা সুধারামে কলেজছাত্রী অপহরণ ‘আমরা নোয়াখাইল্লা পরিবার’ এর শীতবস্ত্র বিতরণ মুছাপুর রেগুলেটর বন্ধ কবিরহাটে তাবলীগ জামাতের ১৪সদস্যদেকে অচেতন করে চুরি গাঁজা সেবনকালে (নোবিপ্রবি) ৩ ছাত্রী আটক দরজা ভাঙতেই মিলল প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ সাকিবকে ছেড়ে দিয়েছে হায়দরাবাদ বিএনপির বড় বড় উইকেট পড়ে যাচ্ছে: কাদের মোটরসাইকেলের দামে প্রাইভেট কার! পেঁয়াজের বিকল্প ‘চিভ’ আবিষ্কার বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে বিধি-নিষেধ আরোপ চাটখিলে এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার ফরম পূরণে ‘গলাকাটা’ ফি সোনাপুর-চেয়ারম্যান ঘাট সড়ক ফোরলেন একনেকে অনুমোদন নোয়াখালীতে পাগলা কুকুরের কামড়ে আহত ১৭ নোয়াখালীতে ডায়াবেটিক দিবস পালন বুলুর জামিন বাতিল

রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান রাজধানীতে চার জঙ্গি আটক ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
৫৫১৮

লন্ডন থেকে পাঠানো টাকায় কোটি কোটি টাকার ভোট বাণিজ্যে বিএনপি

প্রকাশিত: ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮  

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আর মাত্র ৪ দিন বাকি থাকতেই অস্থিতিশীল হচ্ছে ভোটের রাজনীতি। হামলা, সহিংসতার মধ্যেই কোটি কোটি টাকা ছড়িয়ে নির্বাচনকে প্রভাবিত করার নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে। র্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ জানান, নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে গত দুই মাসে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে প্রায় ১৫০ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছে। এর কথিত মালিক মাহমুদের অ্যাকাউন্টে এক মাসে ৭৩ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। কালো টাকার মাধ্যমে নির্বাচনকে প্রভাবিত করাই ছিল তাদের উদ্দেশ্য। এই টাকার একটি অংশ গতকাল শরীয়তপুর-৩ আসনের বিএনপির প্রার্থী মিয়া নুরুদ্দিন আহমেদের (অপু) কাছে পাঠানোর পরপর সেখানে নির্বাচনী সহিংসতা হয়। কোটি টাকাসহ আটক তিনজনের একজন হাওয়া ভবনে কাজ করতেন। এই আটক তিনজন হলেন, আলী হায়দার (২৪), আলমগীর হোসেন (৩৮) ও জয়নাল আবেদীন (৪৫)।

নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে এই টাকা লেনদেনের জন্য মতিঝিলে ইউনাইটেড করপোরেশন ও ইউনাইটেড এন্টার প্রাইজ নামে দুটি অফিসও খোলা হয়। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন স্থানে টাকা ছড়ানোর জন্য মূলত এই অফিস ভাড়া নেয়া হয়।
টাকার উৎস সম্পর্কে র্যাব মহাপরিচালক বলেন, টাকা এসেছে দুবাই থেকে হুন্ডি ও ব্যাংকের মাধ্যমে । যেখানে থেকে গত মঙ্গলবার র্যাব ১০ কোটি টাকার চেক ও আট কোটি টাকা নগদ উদ্ধার করে।

অনুসন্ধনে জানা গেছে, বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে সবসময় তৎপর ছিল পাকিস্থানি গোয়েন্দা সংস্থা (আইএসআই)। দুবাই থেকে ব্যাংক ও হুণ্ডির মাধ্যমে আইএসআই বাংলাদেশে নির্বাচনী সহিংসতা চালাতে, নির্বাচন বানচাল করতে ও নির্বাচনী ব্যয় বাবদ প্রায় ১০০ কোটি টাকা পাঠায়। আইএসআইয়ের কাছ থেকে সরাসরি এই টাকা গ্রহণ করে তারেক রহমান। লন্ডনে তারেক রহমান ব্যবসায়ীর মাধ্যমে এই টাকা দেশে পাঠান বলে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যে উঠে আসে। এর আগেও ২০০১ সালের নির্বাচনেও আইএসআই বিএনপি-জামায়াতকে টাকা দিয়ে সহায়তা করে যা এই সংস্থার সাবেক প্রধানের জবানবন্দিতে উঠে এসেছিল।

নির্বাচনকালীন সময়ে বিএনপি-জামায়াতের এই টাকার আরেকটি উৎস হচ্ছে মনোনয়ন বাণিজ্য থেকে আয় করা অর্থ। অনুসন্ধানে জানা যায়, মনোনয়ন বাণিজ্যের সর্বোচ্চ রেকর্ড গড়ে দলটি। মনোনয়ন বাণিজ্য থেকে বিএনপি প্রায় ৫০ কোটি টাকা আয় করে। আয়ের এই টাকা সরাসরি চলে যায় লন্ডনে তারেক রহমানের কাছে। মনোনয়ন বাণিজ্যকে কেন্দ্র করে দলীয় কোন্দল ও অসন্তোষে একসময় অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে দলটি। মনোনয়ন বাণিজ্যে প্রতারিত নেতারা বিএনপির গুলশান অফিসে তালা দেয়।

মনোনয়ন বাণিজ্যের ৫০ কোটি টাকা ও আইএসআই হতে প্রাপ্ত ১০০ কোটি টাকা লন্ডনে তারেক রহমানের কাছ থেকে বিভিন্ন ব্যাংক ও হুন্ডির মাধ্যমে মতিঝিলে ইউনাইটেড করপোরেশন ও ইউনাইটেড এন্টার প্রাইজের কাছে আসলে সে টাকা দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো ছাড়াও একটি বড় অংশ যায় মির্জা আব্বাস ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের কাছে। গত মঙ্গলবার ঢাকা-৩ আসনে চুনকাটিয়া এলাকা থেকে কদমতলীতে প্রায় পাঁচ কোটি টাকা নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় যান গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও তার দলের কর্মীরা।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, কদমতলীতে নির্বাচনী প্রচারণার সময় গয়েশ্বর চন্দ্রের গাড়িতে কালো কাপড় বাধা একটি বড় ব্যাগ দেখতে পেয়ে স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হলে গাড়িটিকে ধাওয়া করে ভাঙচুর করে। গয়েশ্বর চন্দ্রের কর্মীরা বাধা দিয়ে পালাতে চেষ্টা করলে লোকজন ধাওয়া দিলে গয়েশ্বর চন্দ্র দৌড়ে পালাতে গেলে পড়ে গিয়ে মাথা ফেটে আহত হন।

মধ্যরাতে ভোটার ও নেতাকর্মীর মাঝে টাকা বিলি করতে গিয়ে টঙ্গীবাড়িতে বিএনপির কোষাধ্যক্ষ ও মুন্সীগঞ্জ-২ (লৌহজং-টঙ্গীবাড়ি) আসনে বিএনপি প্রার্থী মিজানুর রহমান জনতার ধাওয়া খান। রবিবার রাত সাড়ে বারোটার দিকে টঙ্গীবাড়ি উপজেলার বাহেরপাড়া চৌরাস্তা মোড় এলাকায় ব্যাগ ভর্তি টাকা দেখে ডাকাত ভেবে লোকজন ধাওয়া দেয়। এ সময় গণধোলাইয়ের শিকার মিজানুর রহমান সিনহা ও তার পুত্র সুপ্রিয় সিনহা এবং কন্যা স্নিদ্ধাসহ কমপক্ষে ১১জন ।

এর আগে গত সোমবার মির্জা আব্বাসের স্ত্রী ঢাকা-৮ আসনের বিএনপির মনোনীত প্রার্থী আফরোজা আব্বাসের দুই সহযোগী রাজধানীর শাহজাহানপুরে টাকা দিয়ে ভোটারদের প্রভাবিত করার সময় চার লাখ টাকাসহ ডিবি পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। সোমবার বেলা সোয়া দুইটার দিকে রাজারবাগ এলাকায় আল বারাকা হাসপাতালের সামনে প্রার্থীর পক্ষে টাকা বিলির সময় হাতেনাতে শহীদুল ইসলাম ও মুহিত নামে দুইজনকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ।

নোয়াখালী সমাচার
নোয়াখালী সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর