ব্রেকিং:
নোয়াখালীতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ নোয়াখালী সুবর্ণচরে বৃক্ষরোপণ ও ডেঙ্গু সচেতনতায় সভা তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি কাদেরের ইতালির প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ সেনাবাহিনী প্রধানের সাথে ইন্দোনেশিয়ার সেনাবাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার মান নিশ্চিত করতে হবে: রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীকে ভারত সফরে মোদির আমন্ত্রণ সেদিনের শোক ভোলেননি হাছান মাহমুদ ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় দণ্ডিতদের অবস্থান কেমন আছেন ২১ আগস্টে আহতরা? ভয়াল ২১ আগস্ট আজ নিঝুম দ্বীপের দেশ নোয়াখালীর লোগোর বিশ্লেষণ নোয়াখালীর সর্ববৃহৎ গোপালপুর গণহত্যার ৪৮তম বার্ষিকী নতুন মাইলফলকে পূর্ণিমা বিএনপির রাজনীতির দুর্গন্ধ বিদেশেও ছড়াবে মোমেন-জয়শঙ্কর বৈঠক আজ প্রেমিক চেয়ারম্যানকে বিয়ের দাবিতে গৃহবধূর অনশন! হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী কমছে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা ৪ অক্টোবর জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রায় ব্যাগ-পোটলা নিষিদ্ধ

বৃহস্পতিবার   ২২ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৬ ১৪২৬   ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

সর্বশেষ:
ঈদে স্বাস্থ্য বিভাগের সবার ছুটি বাতিলের সিদ্ধান্ত আলোচনার মাধ্যমেই রোহিঙ্গা সমাধান চায় বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির ব্যর্থতার দগদগে ঘা রয়েছে: ওবায়দুল কাদের জাল নোট চেনার সহজ উপায় গুজব: নায়িকা শাবনূর ‘মারা’ গেছেন!
২৭৭

রাজশাহী বিভাগে সাড়ে পাঁচ হাজার মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম

প্রকাশিত: ২৫ জুলাই ২০১৯  

রাজশাহী বিভাগের অধীনে আটটি জেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ৫হাজার ৮২৮টি মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম স্থাপন করা হয়েছে।রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার নুর-উর-রহমান বলেন, গত জুন পর্যন্ত ৪৮৪টি কলেজ, দুই হাজার ৪১৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও দুই হাজার ৯২৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ডিজিটাল ক্লাসরুম স্থাপন করা হয়েছে।

এছাড়া তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির (আইসিটি) পাশাপাশি ইন্টারনেট ব্যবহার করে শিক্ষার্থীদের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ১০২টি কলেজ, ৩৭৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং ১২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবরেটরি স্থাপন করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আইসিটি সংযোজনের সঙ্গে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম স্থাপনের ফলে শিক্ষার প্রতি শিক্ষার্থীদের মনযোগ আরো বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে।

তিনি আরো জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০টি বিশেষ উদ্যোগের মধ্যে শিক্ষা অন্যতম। সমস্ত মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম এবং অন্যান্য ডিজিটাল ডিভাইসগুলোকে বছরজুড়ে কার্যকর রাখার জন্য সর্বাধিক জোর দেয়া হয়েছে, যাতে শিক্ষার্থীরা সেগুলোর পূর্ণ সুবিধা ভোগ করতে পারে।

বর্তমানে রাজশাহী জেলার ৭০৬ টি উপজেলা ভিত্তিক মাধ্যমিক বিদ্যালযয়ে এসব মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম ব্যবহার করছে। জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন বলেন, আমরা এই বিদ্যালয়ে প্রয়োজন-ভিত্তিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষকদের প্রস্তুতির পাশাপাশি পাঠদানের সুযোগ সুবিধা ত্বরান্বিত করছি।

পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বরের শহীদ নাদির আলী গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী তাসনুভা বলেন, মাল্টিমিডিয়ার জন্য ক্লাসগুলো আমরা উপভোগ করছি। বিষয়গুলো বড় পর্দায় দেখতে পাই। তাই প্রদর্শনীর মাধ্যমে বই পড়ার চেয়ে সহজে বিষয়গুলো বুঝতে পারি।

প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ রুহুল আমিন বলেন, ২০১৬ সালে আইসিটি ব্যবহার শুরু করেছি। তারপর ক্লাসে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি একশ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। সব ছাত্র স্বতঃস্ফূর্ত ক্লাসে উপস্থিত হয়। পাঠদান প্রক্রিয়া সহজ হয়ে যায়।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক সাইদুর রহমান খান জানান, আইসিটি শিক্ষার পূর্ণ সফলতার জন্য শিক্ষকদের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কর্মসূচির লক্ষ হল তথ্য-প্রযুক্তি জ্ঞানে শিক্ষকদের স্বয়ংপূর্ণ করা, যাতে তারা শিক্ষার্থীদের জন্য বহুমাত্রিক শিক্ষা উপকরণ প্রস্তুত করতে পারে। 

একবিংশ শতাব্দীর দ্রুত পরিবর্তন ঘটাতে শিক্ষা একটি প্রযুক্তি ভিত্তিক সংস্করণ হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশে এই কর্মসূচিটি আরো যোগ্য করে উন্নতির দিকে ধাবিত করবে বলে তিনি মনে করেন।

তিনি আরো বলেন, ইন্টারঅ্যাক্টিভ মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে। শিক্ষক ও শিক্ষা কর্মকর্তারা এই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে এ মাত্রাটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারেন।

শিক্ষকরা মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুমে ডিজিটাল কন্টেন্ট, মডেল কন্টেন্ট, স্টুডেন্ট পোর্টাল, ই-বুক, এমএমসি অবজারভেশন অ্যাপ, ডেইজি টকিং, ডিজিটাল ব্রেইল এবং সাক্ষরতা এবং পরিসংখ্যানমূলক শিক্ষা প্রচারের জন্য কাজ করছে।

নোয়াখালী সমাচার
নোয়াখালী সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর