ব্রেকিং:
দেশব্যাপী তালগাছ রোপণ অভিযান শুরু করেছে আওয়ামী লীগ আরেকটি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রাথমিকে শূন্য পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া দ্রুত করার সুপারিশ ঢাকা বাইপাস সড়কের চার লেন প্রকল্পের কাজ শুরু পার্বত্য জেলার ১৪২ প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের সুপারিশ এলডিসি থেকে টেকসই উত্তরণে নতুন প্ল্যাটফর্ম আওয়ামী লীগ কেবল রাজনৈতিক দল নয়, জাতির নিউক্লিয়াসও: জয় আওয়ামী লীগ হীরার টুকরো, ভাঙলে বেশি জ্বলজ্বল করে : প্রধানমন্ত্রী খালের পানিতে নেমে ডুবে গেল দুই শিশু ৩০ টাকায় মেলে ভাত মাছ সবজি ডিম গাছে গাছে পাখির নিরাপদ আশ্রয় করে দিচ্ছেন যুবকরা দুই আঙুলে নাক টিপে পথ চলতে হয় এখানে চাচার ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন কলেজছাত্রী এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের ১৬ লাখ টাকা লুটের নেপথ্যে ‘ছিনতাই’ প্রতিবন্ধীদের চলাচলের রাস্তা কেটে ফেলার অভিযোগ লুঙ্গি ও গামছা পরে সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে গ্রেফতার করল এএসআই টিকা উৎপাদনে আন্তর্জাতিক সহায়তা চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিশ্বে মৃত্যু ছাড়াল ৩৯ লাখ, আক্রান্ত ১৮ কোটি আন্তর্জাতিক বাজারে ২ বছরের মধ্যে তেলের দাম সর্বোচ্চ করোনার অতি উচ্চ ঝুঁকিতে দেশের ৪০ জেলা
  • বৃহস্পতিবার   ২৪ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ১২ ১৪২৮

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪২

মাদকাসক্ত পরিবার থেকে বাচার জন্য ব্যবসায়ির আবেদন

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৮ জুন ২০২১  

আখাউড়া উপজেলায় মাদকাসক্ত পরিবার থেকে বাচার জন্য সংবাদ সম্মেলন করেছেন সাহাব উদ্দিন মুন্সী নামে এক ঔষধ ব্যবসায়ি। আজ শনিবার সকালে উপজেলার মোগড়া বাজারে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে সাহাব উদ্দিন মুন্সী জানান, উপজেলার মোগড়া বাজারে অবস্থিত ’মেসার্স সুইটি মেডিসিন সেন্টার নামক একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন যাবত ভাড়ায় পরিচালনা করার পর গত বছরের জুলাই মাসে নগদ টাকায় ক্রয় করে প্রতিষ্ঠানটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরিচালনা করছেন। এই অবস্থায় কিছুদিন পর বিক্রেতা ফজলে রাব্বি তার আরেকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বা দোকান বিক্রয় করার প্রস্তাব দিলে তার পাশের হওয়ায় আত্মীয়স্বজনদের নিকট থেকে দারদেনা করে এবং ব্যাংক থেকে ব্যবসায়ি লোন নিয়ে ১৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা হ্যান্ডনোটের মাধ্যমে বায়না করে মূল্যের উপর সরকারী নিষেধাজ্ঞা থাকায়। পরে দোকানটি অন্যত্র বন্ধক দেয়ার চেষ্টা করলে দোকান বিক্রয় বাবত আরো ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা দিয়েছে ফজলে রাব্বিকে। পরে বাকী টাকা জোগার করে তাকে দলিল রেজিস্ট্রির জন্য চাপ দিলে সে নানা তালবাহানা শুরু করে।
তিনি বলেন, দোকান ক্রয়ের আগে ফজলে রাব্বি তার মাকে জানাতে রাজি হয়নি। সে বলেছে তার মা তানিয়া বেগম একজন নেশাখোর, বয়সকালে তার ছেলের বয়সী আরেক নেশাখোর মামুন মৃধাকে বিয়ে করেছে তাই ফজলে রাব্বি তার মায়ের উপর ক্ষিপ্ত ছিল। তবে ফজলে রাব্বিসহ তার মা তানিয়া বেগম ও তানিয়ার স্বামী মামুন মৃধা তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার বলেছেন, তাদের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলনে সাহাব উদ্দিন মুন্সী যেসব অভিযোগ এনেছেন তা সম্পূর্ণ সাজানো মিথ্যা।
তিনি আরো জানান, বর্তমানে ১৬ লাখ টাকা আত্মসাৎ করতে তার মাদকাসক্ত মা তানিয়া বেগম ও মায়ের দ্বিতীয় স্বামী মামুন মৃধা তাকে প্রায়ই প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। গত ২৫ মে বিকাল ৩টায় তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে দা, লাঠি, লোহার রড দিয়ে আক্রমন করার চেষ্টা করে। পরে তিনি গত ৩০ মে এই টাকা উদ্ধারের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি এবং নিজের নিরাপত্তার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছে। যে কোনো মুর্হুতে তার উপর হামলা হতে পারে। সে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন বলে জানিয়ে দেশের সমস্ত প্রশাসন ও কর্তৃপরে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।