ব্রেকিং:
দেশে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ২৬৯৫, মৃত্যু ৩৭ হাতিয়ায় নদীর পাড়ে মিললো লাশ মৃত ব্যক্তির লাশ রেখে পালালো স্বজনরা, দাফন করলেন ইউপি চেয়ারম্যান পরশুরামের আরও এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু জমির বিরোধ নিয়ে যুবককে কুপিয়ে আহত কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতাসহ আরও ১৬ জনের করোনা প্রধানমন্ত্রীর অনুদানে পৌনে ৪১ লক্ষ টাকা পাচ্ছে ফেনীর ৫ পৌরসভা দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের নতুন রেকর্ড, মৃত্যু ৩৭ নিজেরা আক্রান্ত হয়েও সেবায় পিছিয়ে নেই চিকিৎসাকর্মীরা করোনা সঙ্কটেও মে মাসে দেড় বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনে আরও কঠোর হবে সরকার সংক্রমণ বিবেচনায় তিনটি জোনে ভাগ হবে দেশের বিভিন্ন এলাকা বাংলাদেশী হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বিচারের প্রতিশ্রুতি লিবিয়ার চলমান ক্ষুদ্র ও বৃহৎ উন্নয়ন প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ছে ১০ হাজার কোটি টাকার জরুরী তহবিল এটিএম বুথ এখন গ্রামেও করোনা-উত্তর অর্থনীতি পুনরুদ্ধার মূল লক্ষ্য গণপরিবহনে উঠার সময় এখন যেসব বিষয় না মানলেই বিপদ! রামগঞ্জে শিশু সন্তান নিয়ে প্রবাসীর স্ত্রী উধাও ফেনীতে কাউন্সিলরসহ আক্রান্ত আরো ১৬
  • বুধবার   ০৩ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২১ ১৪২৭

  • || ১১ শাওয়াল ১৪৪১

১৭৬

‘ভোলার ঘটনায় কেউ কর্তব্যে অবহেলা করলে ব্যবস্থা’

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২২ অক্টোবর ২০১৯  

ভোলায় ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্যের জেরে পুলিশ-জনতার মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় কেউ কর্তব্যে অবহেলা করলে তার বিচার হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন।সোমবার সচিবালয়ে এক সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ওইদিন পুলিশ আত্মরক্ষার জন্য গুলি চালায়। এরপরই ঘটে একটা দুঃখজনক ঘটনা। চারজন নিহত হয়েছেন। কয়েকজন আহত হয়েছেন। এছাড়া পুলিশেরও একজন আহত হয়েছেন। আমরা সবাই এটার জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। এই ঘটনায় কেউ কর্তব্যে অবহেলা করলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

তিনি বলেন, ওই এলাকার এমপি তাৎক্ষণিক ওখানে গিয়েছেন, তাদেরকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন। যারা মারা গেছেন তাদের পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতা করেছেন। এমপি আরো ব্যবস্থা নিচ্ছেন, যাতে করে আর্থিক সহযোগিতা তারা পায়। 

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি ঘটনা ঘটার সঙ্গে-সঙ্গে এসপি এবং ওসির সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছিলেন, এই ঘটনার পরে (ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য) একটি সমাবেশ ডেকেছিল। সেই সমাবেশ করে আয়োজকরা চলে গিয়েছেন।

তিনি বলেন, কিন্তু সমাবেশের কিছু অংশ দুই থেকে তিনশ জনতা ইউএনও এবং ওসিসহ পুলিশ অফিসাররা যে রুমে ছিলেন সে জায়গাটিতে এসে মারমুখী আচরণ শুরু করে। তারা দরজা ভাঙার চেষ্টা করেন এবং ইটপাটকেল ছুড়ে তখন ইউএনও গুলিবর্ষণের কথা বলছেন। এটা আমার শোনা কথা। তদন্তের মধ্যেই চলে আসবে কে গুলি করার অনুমতি দিয়েছেন, কিভাবে গুলি হয়েছে। মূল তদন্তের পর এগুলো বের হয়ে আসবে। 

এই ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ছেলেটিকেও আটক করা হয়েছে। এটা তদন্তের জন্য আমরা সিঙ্গাপুর ভিত্তিক যে ফেসবুকের অফিস আছে সেখানে আবেদন করেছি। আশা করছি এক অথবা দুই দিনের মধ্যে সম্পূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে। কে এই লেখা লিখেছে অথবা কার মোবাইল থেকে ঘটনাটি ঘটিয়েছে তার সব তথ্য চলে আসবে। 

তিনি আরো বলেন, সম্পূর্ণ তথ্য না আসা পর্যন্ত সবারই একটু অপেক্ষা করা উচিত।  শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য আমরা সবাইকে আবেদন করছি। যে ঘটনাটি ঘটেছে অবশ্যই আইন অনুযায়ী তার বিচার হবে। কেউ যেন এই মুহূর্তে আইন হাতে তুলে না নেয়।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর