ব্রেকিং:
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ ‘স্বল্প সংখ্যক’ যাত্রী নিয়ে ৩১ মে থেকে চলবে বাস-ট্রেন-লঞ্চ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফ্লাইট চালুর প্রস্তুতি করোনা ও অন্য রোগীদের আলাদা চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন শিল্পপ্রতিষ্ঠানসমূহকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে আরও ২ হাজার চিকিৎসক নেওয়ার পরিকল্পনা সংক্রমণ ঝুঁকিমুক্ত বিশেষ চিকিৎসা বুথ তৈরি ছুটি আর বাড়ছে না, ৩১ মে থেকে অফিস শুরু দুর্গম খাসিয়া পুঞ্জিতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন শেখ হাসিনা করোনায় সংক্রমিত পৌরসভার পিয়ন ফকির সুবর্ণচরে সরকারি চাল জব্দ, ডিলার পলাতক, ক্রেতার জরিমানা নোয়াখালীতে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩ জনের মৃত্যু নোয়াখালীতে ডোবায় মিলল ব্যবসায়ীর লাশ হাতিয়া উপকূলে নতুন প্রজাতি আবিষ্কার করলেন নোবিপ্রবি শিক্ষক ফেনীতে মিলে আগুন! লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি শুধু যোদ্ধাই নয়, হাতে ওদের নতুন পৃথিবীও করোনার নমুনা সংগ্রহে ‘ভিটিএম কিট’ তৈরি হলো দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন কোনো ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়নি করোনা জয় করলেন ১১১৯ পুলিশ সদস্য
  • বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

১৭৩

বিশ্বের ৩০০ কোটি মানুষের কাছে সাবান-পানি নেই : জাতিসংঘ

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২০ মার্চ ২০২০  

বিশ্বজুড়ে যখন করোনাভাইরাস মোকাবিলায় হিমশিম খাচ্ছে তখন জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে দিয়ে বলেছে যে, এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ জন্য প্রাথমিক সুরক্ষা হিসেবে সাবান-পানিই সবচেয়ে বেশি কার্যকর। তবে সেই সাবান-পানি নেই বিশ্বের প্রায় ৩০০ কোটি মানুষের কাছে। এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি এশিয়া ও আফ্রিকার দেশগুলোতে। এ দুই মহাদেশের বেশিরভাগ মানুষের জন্যই পর্যাপ্ত পানি নেই।

বৃহস্পতিবার এক রিপোর্টে এ তথ্য জানিয়েছে জাতিসংঘ।

চীনের উহানে প্রথমে শনাক্ত হওয়া এ ভাইরাস এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৮০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। এ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে  ১০ হাজার ৪০৫ জনে দাঁড়িয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৫১ হাজার ৯৭৪ জন। এছাড়া চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৮৯ হাজার ০৫৪ জন।

চীনে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৮০ হাজার ৯৬৭ জন । মারা গেছে ৩ হাজার ২৪৮ জন। প্রায় দুই মাস তাণ্ডব চালানোর পর এ মুহূর্তে চীনে এর প্রকোপ কমে এসেছে।

এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ঘটনায় এখন সবার ওপরে আছে ইউরোপের দেশ ইতালি। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আরো ৪২৭ জনের মারা গেছেন। এ নিয়ে ইউরোপের দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৪০৫ জনে। গত বুধবার ইতালিতে একদিনে প্রাণ হারিয়েছিলেন ৪৭৫ জন কোভিড-১৯ রোগী। এখন পর্যন্ত এটাই যেকোনো দেশের জন্য একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।

জানা গেছে, বিভিন্ন ইউরোপীয় দেশসহ বিশ্বের অনেক দেশই তাদের নাগরিকদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলেছে। আর করোনার কারণে উন্নয়নশীল দেশগুলোর স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থা ভেঙে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আফ্রিকা এবং এশিয়ার বিভিন্ন দেশও ভ্রমণে ব্যাপক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এছাড়া কোয়ারেন্টাইন ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখাসহ বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে তারা। চলাচল সীমিত না করলে সংক্রামক এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে এমন আশঙ্কায় তারা এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে এ ভাইরাস প্রতিরোধের প্রাথমিক হাতিয়ারই নেই লাখ লাখ মানুষের কছে। জাতিসংঘ বলছে, অন্তত ৩০০ কোটি মানুষের কাছে হাত হওয়ার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেই। খানা জরিপ করে জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক তহবিল জানিয়েছে, বিশ্বের প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষ বা ৩০০ কোটি মানুষের কাছে তাদের ঘরে হাত ধোয়ার প্রয়োজনীয় জিনিস নেই।

পূর্ব এবং দক্ষিণ আফ্রিকার ইউনিসেফের পানি ও স্যানিটেশন বিভাগের প্রধান স্যাম গডফ্রে বলেন, ভাইরাসটি এখন তার হাত প্রসারিত করেছে এশিয়া ও আফ্রিকার দরিদ্র অঞ্চলগুলোতে। এ দুই মহাদেশের বহু দেশই এরইমধ্যে তাদের সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে। সেইসঙ্গে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়সহ সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান। তারপরও সংক্রমণ থামছে না। অতি দরিদ্র, দুর্বল অবকাঠামো ও নাজুক স্বাস্থ্য ব্যবস্থার কারণে লাখো মানুষ আক্রান্ত হতে পারে।

তিনি আরো বলেন, অনেকের কাছে পানির অভাব রয়েছে, তারা সাবান কিনতে পারছেন না বা অসুস্থতা প্রতিরোধে এর গুরুত্ব কতটুকু তা উপলব্ধি করতে পারছেন না।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, হাতে নোংরা দৃশ্যমান হলে সাবান-পানি দিয়ে ধুতে হবে। হাতের নোংরা দৃশ্যমান না হলে অ্যালকোহলসমৃদ্ধ হ্যান্ড রাব (হ্যান্ড স্যানিটাইজার) অথবা সাবান-পানি দিয়ে বারবার হাত ধুতে হবে।

করোনাভাইরাস বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর