ব্রেকিং:
দেশে একদিনে আরো ৩৪ মৃত্যু, আক্রান্ত ২৬৪৪ আরেকটি নতুন মাইলফলকের পথে রিজার্ভ মহামারির মধ্যেও এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী জাতির পিতার স্বপ্নপূরণে সাধ্যের সবটুকু উজাড় করে দেব বঙ্গবন্ধু আগামী প্রজন্মের অনুপ্রেরণার উৎস ‘সোনার বাংলা’ প্রতিষ্ঠাই ছিল বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বঙ্গবন্ধুকে দেখিনি, বাংলাদেশকে দেখেছি মহামানবের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি ইতিহাসের জঘন্যতম হত্যাকাণ্ড বঙ্গবন্ধুর বাঙালি জাতীয়তাবাদের সীমানা ৮ মাসে আটবার সোনার দামের পরিবর্তন, থমকে আছে রূপা জাতীয় শোক দিবসে জাতির পিতার স্মৃতির প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা পর্যটকদের অসচেতনতায় সৌন্দর্য হারাতে পারে খোয়া সাগর দিঘী ছাগলনাইয়ায় ২ হাজার পিস ভারতীয় টার্গেট ট্যাবলেট উদ্ধার শশুর বাড়ির লোকজনের নির্যাতনে নিরুদ্ধেশ গৃহবধু শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী আজ দেশে একদিনে আরো ৩৪ মৃত্যু, আক্রান্ত ২৭৬৬ প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলতে ১২৮ কোটি টাকা খরচ করবে সরকার অগ্নাশয় ক্যান্সার গবেষণায় বাঙালি বিজ্ঞানীর সাফল্য সপ্তাহে ৮ হাজার টাকা আয়ের সুযোগ পাচ্ছেন ৫ লাখ তরুণ
  • শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ৩১ ১৪২৭

  • || ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

১২০

বাংলাদেশে উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে অপরাধ প্রবণতা

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৮ মে ২০২০  

উল্লেখযোগ্য হারে বাংলাদেশে কমেছে অপরাধ প্রবণতা। এখন থানায় মামলা রেকর্ডের হারও অনেক কম। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের সর্বত্রই এমন অবস্থা বিরাজমান। ধর্ষণসহ নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনাও কমে এসেছে। তবে ঘরবন্দি থাকায় পারিবারিক সহিংসতা বেড়েছে। করোনা ভাইরাসজনিত উদ্ভূত পরিস্থিতিতে এমন চিত্র বেরিয়ে এসেছে। শুধু বাংলাদেশ নয়, অপরাধের মাত্রা বিশ্ব জুড়েও হ্রাস পেয়েছে উল্লেখযোগ্য হারে।

তবে এমন পরিস্থিতি কতদিন বজায় থাকবে সেটা নিয়েও সন্দিহান সমাজ বিজ্ঞানী ও অপরাধ বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, সারাদেশে সাধারণ ছুটি চলছে। চলছে অঘোষিত লকডাউন। ফলে ঘরবন্দি বেশির ভাগ মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে বাইরে মানুষের চলাফেরা কম এবং বেশির ভাগ সময় ঘরে থাকায় অপরাধে জড়িয়ে পড়ার মানসিকতায় পরিবর্তন এসেছে। তবে ঘরে অবস্থানের ফলে নারী ও শিশুর প্রতি পারিবারিক সহিংসতা বেড়েছে।

তারা আরো বলছেন, করোনাকালে কর্মহীন হয়ে পড়ছে বিপুলসংখ্যক মানুষ। তাই সার্বিক অবস্থার উন্নতি না হলে অপরাধ প্রবণতা কমে যাওয়ার এই চিত্র যে কোনো সময় পালটে যেতে পারে।

গণমাধ্যম থেকে পাওয়া তথ্যে দেখা যায়, গত বছর ঢাকায় ২০৮টি খুনের ঘটনা ঘটে। এ বছরের প্রথম দুই মাসে ঘটেছে ২১টি খুনের ঘটনা। আর করোনাকালে মার্চে ১৭টি ও এপ্রিলে ৮টি খুনের ঘটনা ঘটেছে। একইভাবে ২০১৯ সালে ডাকাতি ও দস্যুতার ঘটনা ঘটেছিল ১৭৬টি। কিন্তু এ বছরের প্রথম তিন মাসে ৫৩টি ডাকাতি ও দস্যুতা সংঘটিত হয়েছে। এপ্রিলে এই সংখ্যা কমে এসেছে ৬টিতে।

এছাড়া ২০১৯ সালে অস্ত্র, বিস্ফোরক, মাদকদ্রব্য ও চোরাচালান উদ্ধারের ঘটনায় ১৭ হাজার ১৬৬টি মামলা হয়েছিল। চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে ৩ হাজার ৭২৯টি মামলা হয়। এপ্রিল মাসে হয়েছে ১২৩টি উদ্ধারজনিত মামলা। চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে চুরির ঘটনা ঘটেছে ৫৪৯টি। আর এপ্রিলে ৪৬ চুরির ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষণসহ নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনাও কমে এসেছে। গত বছর ধর্ষণ, এসিড নিক্ষেপ, নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ২ হাজার ৪০৮টি। এ বছরে এপ্রিলে ঘটেছে ৪৯টি।তবে করোনা পরিস্থিতিতে নারী ও শিশুর প্রতি বেড়েছে পারিবারিক সহিংসতা। বেসরকারি মানবাধিকার সংগঠন মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন পরিচালিত এক জরিপে বলা হয়েছে, এপ্রিল মাসে ৪ হাজার ২৪৯ জন নারী ও ৪৪৬ জন শিশু এই সহিংসতার শিকার। এর মধ্যে ১ হাজার ৬৭২ জন নারী ও ৪২৪ জন শিশু নতুন এই পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন। এছাড়া বাল্যবিবাহের ঘটনা ঘটেছে ৩৩টি।

এদিকে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যম থেকে প্রাপ্ত তথ্যে দেখা যায়, আমেরিকার অন্যতম সহিংস শহর শিকাগোতে গত কয়েক সপ্তাহের মাদক সংক্রান্ত অপরাধ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪২ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। শহরটিতে অন্যান্য অপরাধও কমেছে প্রায় সমহারে। ল্যাটিন আমেরিকা জুড়ে দশকের পর দশক ধরে চলা অপরাধও হঠাত্ অদৃশ্য হয়ে গেছে। এল সালভাদোরে গত বছরও ৬০০ খুনের ঘটনা ঘটে। তবে করোনা ভাইরাসে সেই পরিস্থিতি বদলে গেছে। একই দৃশ্য ভারতসহ আরো অনেক দেশে।

অপরাধ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর