ব্রেকিং:
`বেসরকারি স্বাস্থ্য খাত এগিয়ে নিতে নিয়ম সহজিকরণ দাবী ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৪ মহিলাকে কারাদন্ড নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের চূড়ান্ত অনুমোদন মেঘনায় জেলেদের হামলায় ১০ নৌ-পুলিশ আহত বিরল দৃষ্টান্ত, পুলিশের হাতে সন্তানকে তুলে দিলেন মা দেশে একদিনে আক্রান্ত এক হাজারের বেশি, মৃত্যু বেড়েছে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়ন শুরু করেছে সরকার নারীদের একাকিত্বকে টার্গেট করেই চলে কামালের ধর্ষণ আর প্রতারণা ৭ বছরের চাচাতো বোনকে ধর্ষণ করল ১৪ বছরের কিশোর! বিশ্বে একদিনে আক্রান্ত ৪ লাখের বেশি, মৃত্যু ৫৫৯৯ সড়কে গাছ ফেলে পুলিশের গাড়িতে ডাকাতি! স্বাস্থ্যবিধি মেনে ১ নভেম্বর থেকে সবার মিলছে ওমরার সুযোগ স্ত্রীর সামনেই মুরগির সঙ্গে বিকৃত যৌনতায় মেতে ওঠেন রেহান দেশে এক গাভি বছরে জন্ম দেবে দু্টি বাছুর নারীদের অংশগ্রহণ আরো বাড়ানোর আহ্বান বাংলাদেশের আসলের মোড়কে নকল পণ্যের ছড়াছড়ি, বিপাকে ক্রেতারা ২০৩০ সালের মধ্যে সড়কে মৃত্যু ৫০ শতাংশ কমানো হবে রায়পুরে সেচ প্রকল্পে জলাবদ্ধতা রোপা আমন নিয়ে শঙ্কা ফেনীতে গণ উপদ্রব ৪ নারীকে ১ মাস করে কারাদন্ড ধর্ষণের নেশা যুবকের, গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছাড়লো না চাচিকেও
  • রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ১১ ১৪২৭

  • || ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

৩১

ফেনীতে ধর্ষণ বিরোধী লংমার্চে হামলায় আহত ১২

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০২০  

ফেনী ত্যাগের সময় ধর্ষণ বিরোধী লংমার্চে হামলার ঘটনা ঘটেছে। আজ শনিবার (১৭ অক্টোবর) শহরের কুমিল্লা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। বাসদের ফেনী জেলা সাধারণ সম্পাদক মহিবুল হক চৌধুরী রাসেল দাবি করেন, হামলায় ১২ জন আহত হয়েছে। তবে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে তাদের নাম জানাতে পারেন নি। কারা হামলা করেছে তা স্পষ্ট না করলেও দাবি করেন, ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য এ হামলা করা হয়েছে।

এর আগে সকাল ১০টায় ফেনী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সমাবেশ করে প্রগতিশীল জোট। এতে অংশ নেয় বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, নারী মুক্তি কেন্দ্র, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টসহ ফেনীর চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র,  উদীচী ফেনী জেলা সংসদ।

সমাবেশ চলাকালীন অংশ নেয়া কিছু যুবক সমাবেশ স্থল হতে বের হয়ে এসে ট্রাংক রোডের দোয়েল চত্ত¡রে ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারীর ফেস্টুনে রং মেখে দেয় এবং ব্যঙ্গাত্মক মন্তব্য লেখে। কর্মসূচি বহির্ভূত এ কার্যকলাপে লংমার্চে অংশগ্রহণকারীদের নিজেদের মধ্যে বাক বিতন্ডা হয়। এছাড়াও একপর্যায়ে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের সাথে তাদের বাক বিতন্ডা হয়। এসময় ফেনী সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আতোয়ার রহমান ও ফেনী মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি) আলমগীর হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।
লংমার্চে অংশগ্রহণকারীরা বলেন, ধর্ষণের বিরুদ্ধে সমাবেশ ও প্রচারাভিযান করে ফেনী জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের দিকে লংমার্চ যাওয়ার সময় কুমিল্লা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গেলে কয়েকজন কয়েকজন সন্ত্রাসী লাঠিসোটা নিয়ে হামলা ও গাড়ি ভাংচুর করে। এসময় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে হৃদয়, শাহাদাত, অনিক, জাওয়াদসহ ১২ জন আহত হয়।

তারা জানান, সমাবেশে সরকার ও ক্ষমতাসীনদের সমালোচনা করে বক্তব্য দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের উপর হামলা করা হয়। তারা দাবি করেন, হামলাকারীরা সরকার দলের লোক।

একাত্তর টিভি ফেনী প্রতিনিধি জহিরুল হক মিলু জানান, হামলাকারীরা তার মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে ভেঙ্গে ফেলে। এসময় ক্যামেরা পারসন এমবি সাজু বাধা, স্থানীয় সাংবাদিক ইয়াসির আরাফাত রুবেল আহত হয়।

বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ফেনী শহর শাখার সাধারণ সম্পাদক ও ফেনীতে সমাবেশের পরিচালক পংকজ নাথ সূর্য বলেন, এ হামলা ন্যক্কারজনক। হামলা করে আন্দোলন দমিয়ে দিতে চায় সন্ত্রাসীরা।

 ‘ধর্ষণ ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ আন্দোলনের কর্মী আসমানী আক্তার আশা অভিযোগ করেন, পুলিশ আমাদের সাথে থাকা সত্তে¡ও এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারীরা আমাদের উপর চর্তুদিক হতে লাঠিসোটা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে ফেনীতে তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ মিছিল বের করে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। সরকার ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড অনুমোদন দেবার পর ধর্ষণ বিরোধী এ আন্দোলনের দেশকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র বলে অভিযোগ করেন। হামলার ঘটনায় তারা জড়িত নয় দাবী করেন।

 

অপরাধ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর