ব্রেকিং:
দেশে করোনা বিষয়ে সচেতনতা ও টিকাদানে সহায়তা করবে ফেসবুক সরকারি বিধি-নিষেধ মেনে চলতে বিশিষ্ট নাগরিকদের আহ্বান পর্যায়ক্রমে দেশের সবাইকে টিকার আওতায় নিয়ে আসা হবে: প্রধানমন্ত্রী চাঁদ দেখা গেছে, কাল থেকে রোজা করোনায় আক্রান্ত হলে কতদিন পর টিকা নিতে পারবেন নিত্যপণ্য পরিবহনে সহায়তায় মন্ত্রণালয়ের হটলাইন চালু লকডাউনে বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংক খুলতে নির্দেশ জেলেদের জন্য ৩১ হাজার মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ আগামীকাল থেকে সর্বাত্মক লকডাউনে যাচ্ছে দেশ দেশে একদিনে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু কমেছে রমজানে বেঁধে দেওয়া হলো ৬ পণ্যের দাম এলপিজি সিলিন্ডারের দাম নির্ধারণ টিকা কিনতে বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে ৪৩৩০ কোটি টাকার ঋণচুক্তি সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী থানাসহ গুরুত্বপূর্ণ সরকারি স্থাপনায় নিরাপত্তা জোরদার লকডাউনে চলাচল করতে ‘মুভমেন্ট পাস’ নেবেন যেভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদনে নতুন রেকর্ড গড়ল দেশ এটিএম বুথ থেকে তোলা যাবে এক লাখ টাকা লকডাউনে খাদ্য সহায়তা পাবে সোয়া কোটি দরিদ্র পরিবার মিরাজের মেডিকেলে ভর্তির দায়িত্ব নিলেন নোয়াখালীর ডিসি
  • মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪২৮

  • || ০১ রমজান ১৪৪২

ফেনীতে ডেটল ও স্যাভলন উধাও

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২০  

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস প্রার্দূভাবে ঔষুধ দোকান ও মুদি দোকানে ডেটল, সেভলন এবং হেক্সিসল সহ জীবাণুনাশক প্রয়োজনীয় জিনিস বাজার থেকে উধাও। দীর্ঘ ৪০ দিন অতিক্রান্ত হলেও প্রয়োজনীয় এ সামগ্রী বাজারে চাহিদার তুলনায় নেই বলেই চলে। এতে খুচরা ব্যবসায়ীরা নিরাশ হয়ে হাতঘুটিয়ে বসে থাকলেও ডিলাররা পাইকারীভাবে  বিক্রি না করে খুচরা  রমরমা বাণিজ্য চালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

ফেনী বড় বাজারে ব্যবসায়িরা জানায়, করোনা ভাইরাস মহামারি শুরু হওয়ার সময় থেকে এখন পর্যন্ত ডেটল, সেভলন, হেক্সিসলসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজার সামগ্রী  বাজার থেকে কোন অদৃশ্য শক্তির ইশারায় উধাও হয়ে গেছে।  ব্যবসায়ীদের অভিযোগ যারা সংশ্লিষ্ট পণ্যের ডিলার তারাই বাজারে অতি গোপনে খুচরা বিক্রি করছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুকক একাধিক ব্যবসায়ী জানান, ডিলারদের কাছে সেভলন, ডেটল ও হেক্সিসল সহ জীবাণুনাশক প্রয়োজনীয় সার্জিকেল পণ্য চাইলে তারা দিতে অনিহা প্রকাশ করে।  ব্যবসায়ীরা যখন বলেন আপনারা বাজারে  খুচরা বিক্রি করেন ও  গোপনে গ্রাহদের বাড়িতে বা নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছে দিচ্ছেন। এটি কেমন কাজ,  তখন এ বিষয়ে কথা না বলে এড়িয়ে যান তারা ।শহরের বিভিন্ন স্থান  খুচরা বিক্রি করছে। খরিদ করে এমন ব্যক্তিরাই বলেন এমআরপি থেকে অধিক দামে বিক্রি করছে।ছোট ডেটলের এমআরপি ৩৮ টাকা থাকলেও বিক্রি করেছে ৫০/৬০ টাকা।  এদিকে  এসআর বলেন এটি ডিলারের এখতিয়ার আমাদের করার কিছুই নেই। আপনারা ডিলারদের সাথে যোগাযোগ করুন।ডেটলের ডিলার মোঃ কিবরিয়ার সাথে  যোগাযোগের চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি। সেভলনের ডিলার মোঃ দাউদ বলেন, চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহ কম থাকায় সব দোকানে ডেলিভারি দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।

ফেনী শহর ব্যবসা সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃমুশফিকুর রহমান পিপুল বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে ডেটল ও সেভলন খুব প্রয়োজন। অথচ ২৫ মাচ থেকে ফেনীর বাজারে কোথায় ডেটল ও সেভলন নেই। ডিলারা দোকান না দিয়ে গোপন  অধিক দামে খুচরা  বিক্রি করছে ও বাজারে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করছে । এসব অসাধু ব্যবসায়িদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করতে জেলা প্রশাসকের নিকট অনুরোধ করেন।

বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতির ফেনী শাখা সভাপতি ও রাজ্জাক মেডিকেল হল এর স্বত্তাধিকারী নাছির উদ্দিন মিলনের আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেন, আমি ফেনী শহরের  বড় মেডিসিন ব্যবসায়ী অথচ আমার ব্যক্তিগত প্রয়োজনে সেভলন ও ডেটল পাচ্ছি না। এই সব অসাধু ব্যবসায়িদের বিরুদ্ধে ব্যবস্হা গ্রহণ করতে  জেলা প্রশাসকের নিকট আমরা লিখিত  অভিযোগ করবো।